Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 2.9/5 (47 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৩-২২-২০১৬

অবৈধ বিলবোর্ডে সয়লাব

অবৈধ বিলবোর্ডে সয়লাব

সিরাজগঞ্জ, ২২ মার্চ- সিরাজগঞ্জ মহাসড়কের দুপাশে ও হাটিকুমরুল গোলচত্বর অবৈধ বিলবোর্ডে ছেয়ে গেছে। নীতিমালা অমান্য করে এগুলো স্থাপন করায় একদিকে সড়কের জায়গা যেমন সংকুচিত হচ্ছে, অপরদিকে বাড়ছে চালকের দৃষ্টিভ্রম হয়ে দুর্ঘটনার আশঙ্কা। সেই সঙ্গে সরকারও বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

সম্প্রতি এসব অবৈধ বিলবোর্ড অপসারণে সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী নির্দেশ দিলেও এখন পর্যন্ত অবস্থার কোনো হেরফের হয়নি বলে অভিযোগ উঠেছে।

সড়ক ও জনপথ (সওজ) বিভাগ সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯৮ সালে বঙ্গবন্ধু সেতু চালু হওয়ার পর গুটিকয়েক কোম্পানি অনুমতি সাপেক্ষে সেতুর পার্শ্ববর্তী এলাকায় বিলবোর্ড স্থাপন করে। এরপর থেকে বঙ্গবন্ধু সেতু থেকে হাটিকুমরুল গোলচত্বর, বনপাড়া-হাটিকুমরুল মহাসড়ক, নগরবাড়ী-বগুড়া মহাসড়কসহ অনান্য সড়কের দুই পাশে সওজ বিভাগের জায়গায় বিভিন্ন কোম্পানি বিলবোর্ড স্থাপন করে। বর্তমানে বিশাল আকৃতির এসব বিলবোর্ডে বিভিন্ন রাজনৈতিক নেতা-কর্মীদের রংবেরঙের ছবিসহ নামীদামি কোম্পানির রকমারি পণ্যের বাহারি বিজ্ঞাপন শোভা পাচ্ছে। এলাকার প্রভাবশালী ব্যক্তিরাও অবৈধ বিলবোর্ড স্থাপনের সঙ্গে জড়িত। ফলে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এসব প্রভাবশালীর বিলবোর্ড সরাতে বা এসব প্রভাবশালীর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে পারছে না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সওজের একটি সূত্র জানায়, প্রভাবশালীদের মধ্যে অন্যতম হাটিকুমরুল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হেদায়েতুল আলমও আছেন। তিনি হাটিকুমরুল গোলচত্বরে বিশাল একটি বিলবোর্ড স্থাপন করে ভাড়া দিয়েছেন। দুই-তিন বছর ধরে এ অবৈধ বিলবোর্ডটি রয়েছে।

তবে চেয়ারম্যান হেদায়েতুল আলম গতকাল রোববার বলেন, তাঁর বিরুদ্ধে এ ধরনের অবৈধ বিলবোর্ড স্থাপনের অভিযোগ সম্পূর্ণ বানোয়াট। বরং তিনি নিজেই তাঁর এলাকার রাস্তার পাশ থেকে সব অবৈধ বিলবোর্ড উচ্ছেদের দাবি করেন।
সওজ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলীর কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, মহাসড়কে বিলবোর্ড স্থাপন করতে হলে সড়ক থেকে ১০ ফুট দূরে এবং একটি থেকে অপর বিলবোর্ডের দূরত্ব অন্তত ৫০০ ফুট রাখার নিয়ম রয়েছে। এসব নিয়ম অমান্য করে একই জায়গায় চার থেকে পাঁচটি বিশালাকার বিলবোর্ডসহ হাটিকুমরুল গোলচত্বর ও আশপাশের সড়কগুলোতে নানা আকারের বিলবোর্ড স্থাপন করা হয়েছে। মহাসড়কে বিলবোর্ড স্থাপনে সরকার-নির্ধারিত প্রতি বর্গফুটের জন্য বছরে ২২৫ টাকা হারে রাজস্ব পাওয়ার কথা। প্রতিবছর নির্ধারিত অর্থ পরিশোধ সাপেক্ষে এসব বিলবোর্ড নবায়ন করে রাখার নিয়ম রয়েছে। কিন্তু এসব বিলবোর্ড কোম্পানি সওজের কোনো অনুমোদন বা নবায়নের ধার না ধেরেই বছরের পর বছর ব্যবসা পরিচালনা করে অবৈধভাবে লাখ লাখ টাকা আয় করছে। যে কারণে সরকার বিপুল পরিমাণ রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

ঢাকার বিলবোর্ড ব্যবসায়ী প্রবর্তনা কোম্পানির প্রতিনিধি মিন্টু মিয়া বলেন, কোম্পানির নিয়মানুযায়ী হাটিকুমরুল থেকে গোলচত্বর পর্যন্ত সড়কের পাশে ৯০ বর্গফুটের একটি বিলবোর্ডের বার্ষিক ভাড়া ৪ লাখ টাকা নির্ধারণ করা আছে। আবার ঠিক গোলচত্বর এলাকায় এ ভাড়া ১০ শতাংশ বেশি। এ নিয়মেই কোম্পানিটি বিলবোর্ড বাবদ ভাড়া নিয়ে আসছে বলে জানান প্রতিনিধি মিন্টু মিয়া। তবে তাঁর কোম্পানির বিলবোর্ডগুলো স্থানীয় ব্যাক্তিদের মালিকানাধীন জায়গায় স্থাপিত বলে দাবি করেন তিনি।

সিরাজগঞ্জ স্বার্থরক্ষা সংগ্রাম কমিটির আহ্বায়ক জহুরুল হক বলেন, সরকারি নিয়ম মেনে বিলবোর্ডগুলো স্থাপন করলে সরকার প্রতি মাসে এখান থেকে প্রায় অর্ধকোটি টাকা আয় করতে পারত। এ বিষয়ে জরুরিভাবে পদক্ষেপ নেওয়া উচিত বলে তিনি মত প্রকাশ করেন।

সম্প্রতি সড়ক যোগাযোগ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সিরাজগঞ্জে এসে বিভিন্ন স্থান থেকে অবৈধ বিলবোর্ড অপসারণের জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছিলেন। সর্বশেষ তিনি চার-পাঁচ মাস আগেও বিলবোর্ড সরাতে নির্দেশ দিয়ে যান। কিন্তু গতকাল রোববার পর্যন্ত কোনো অবৈধ বিলবোর্ড অপসারণের কথা জানা যায়নি।

এ বিষয়ে হাটিকুমরুল হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবদুল কাদের জিলানী বলেন, ‘এসব বিলবোর্ডের কারণে বিশেষ করে গোলচত্বর এলাকায় যানবাহন চলাচলে মারাত্মক অসুবিধা হচ্ছে। এগুলো দেখার দায়িত্ব সওজ বিভাগের। তারপরও আমরা গত ঈদের আগে বেশ কিছু অবৈধ বিলবোর্ড উচ্ছেদ করেছি।’ তিনি আরও বলেন, এলাকার রাজনৈতিক প্রভাবশালীদের ছত্রচ্ছায়ায় উচ্ছেদ করা অবৈধ বিলবোর্ডগুলো আবার স্থাপন করা হয়েছে।

সার্বিক বিষয়ে সিরাজগঞ্জ সওজ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু হেনা মোস্তফা কামাল বলেন, ‘প্রাথমিক অবস্থায় কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে বিলবোর্ড স্থাপনের অনুমোদন দেওয়া হলেও তারা পরবর্তী সময়ে তা আর নবায়ন করেনি। আমরাও বিভিন্ন কাজে ব্যস্ত থাকায় এগুলো উচ্ছেদের বিষয়ে নজর রাখতে পারছি না। তবে এবার এগুলো উচ্ছেদে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

এস/১৩:৩০/২২ মার্চ

সিরাজগঞ্জ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে