Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৩-২০-২০১৬

আগে অর্থ উদ্ধার: গভর্নর

আগে অর্থ উদ্ধার: গভর্নর

ঢাকা, ২০ মার্চ- হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে হাতিয়ে নেওয়া অর্থ উদ্ধারকেই আপাতত বেশি গুরুত্ব দিচ্ছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের নতুন গভর্নর ফজলে কবির।

রোববার আনুষ্ঠানিকভাবে গভর্নরের দায়িত্ব নেওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে প্রথম সাক্ষাতে ফজলে কবির বলেন, “আমাদের সিস্টেম থেকে বা বাইরের ব্যাংকে রাখা আমাদের অ্যাকাউন্ট থেকে ৮১ মিলিয়ন ডলার বের হয়ে গেছে।

“এটা রিকভারি প্রক্রিয়ার মধ্যে আছে। সেটা রিকভারি করাই আমার প্রথম প্রায়োরিটি হবে। এক নম্বর প্রায়োরিটি।”

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সংস্কার, নিরাপত্তাসহ বিভিন্ন বিষয়ে নিজের কর্মপরিকল্পনাও তুলে ধরেন সাবেক এই অর্থ সচিব।

এর আগে দুপুরে কেন্দ্রীয় ব্যাংকে পৌঁছে যোগদানপত্রে স্বাক্ষর করেন ফজলে কবির।

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অফ নিউ ইয়র্কে গচ্ছিত বাংলাদেশের রিজার্ভের ১০ কোটি ডলার ‘হ্যাকিংয়ের’ মাধ্যমে লোপাট হওয়ার খবরটি ফেব্রুয়ারি মাসে গণমাধ্যমে আসে।

ওই অর্থের ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার ফেব্রুয়ারির শুরুতে ফিলিপিন্সের একটি ব্যাংকের মাধ্যমে পাচার হলে দেশটির অ্যান্টি মানি লন্ডারিং কাউন্সিল তদন্তে নামে, তাতেই বাংলাদেশের রিজার্ভ চুরির ঘটনাটি প্রকাশ পায়।   

শুরুতে টের পেলেও তা অর্থ মন্ত্রণালয়কে জানাননি আতিউর। এ নিয়ে সমালোচনার মুখে গত ১৫ মার্চ গভর্নর পদ থেকে সরে দাঁড়ান আতিউর রহমান।

ওইদিনই সাবেক এই অর্থ সচিবকে গভর্নর করার ঘোষণা আসে। পরদিন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ফজলে কবিরকে চার বছরের জন্য গভর্নর হিসেবে নিয়োগের প্রজ্ঞাপন জারি করে।

ভবিষ্যতে আর যেন এ ধরনের ঘটনা না ঘটে, সেজন্যও কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রযুক্তিগত নিরাপত্তা বাড়ানোর কথাও বলেন গভর্নর।


সোনালী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সাবেক চেয়ারম্যান ফজলে কবির বলেন, “ভবিষ্যতে এর পুনরাবৃত্তি যেন না হয়, এর নন রেকারেন্সের জন্য কি কি ব্যবস্থা নিতে হবে, বিশেষ করে আইটি নিরাপত্তা ব্যবস্থা, সেগুলো আমরা দেখব, সেগুলোও আমরা প্রায়োরিটি দিচ্ছি।”

অর্থ হাতিয়ে নেওয়ার ঘটনা তদন্তে সাবেক গভর্নর মো. ফরাস উদ্দিনের নেতৃত্বাধীন কমিটির প্রতিবেদন পাওয়ার পর তাদের প্রস্তাব ও সুপারিশ অনুযায়ী পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে তিনি জানান।

আলোচিত এই ঘটনার পর কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মীদের মনোবল যাতে ভেঙ্গে না পড়ে সেদিকেও নজর দেওয়া হবে বলে জানান ফজলে কবির।

“এটা (রিজার্ভ হ্যাক) আমরা বলতে পারি একটা ওয়েক আপ কল হয়েছিল। আমাদের আরও বেশি প্রি-কশন নিয়ে, আরও বেশি সিকউরিটি মেজার নিয়ে আমাদের কাজ করতে হবে।”

এসময় বিদায়ী গভর্নর আতিউর রহমানের প্রসঙ্গ চলে এলে তার বিভিন্ন উদ্যোগ চালু রাখার কথা বলেন ফজলে কবির।  

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “আতিউর রহমানের ইনক্লুসিভ ব্যাংকিং, মানবিক ব্যাংকিং- এগুলো যেভাবে চলছে, সেভাবেই চলবে। এছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংকের অন্যান্য যেসব প্রোগ্রাম বা কর্মসূচি আছে, সেগুলো যথারীতি চলবে।”

আর/১৮:০৫/২০ মার্চ

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে