Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (21 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৩-২০-২০১৬

সুন্দরবনে কোস্টার ডুবি: শুরু হয়নি উদ্ধার কাজ 

সুন্দরবনে কোস্টার ডুবি: শুরু হয়নি উদ্ধার কাজ 

বাগেরহাট, ২০ মার্চ-  সুন্দরবনের শেলা নদীর হরিণটানা এলাকায় তলাফেটে এক হাজার ২৩৫ টন কয়লা নিয়ে ডুবে যাওয়া সি হর্স-১ নামের কোস্টারটির উদ্ধার কাজ এখনো শুরু করা যায়নি। 

রোববার সকালে বন বিভাগ, মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ, কোস্টগার্ড, জেলা প্রশাসন ও বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহণ কর্তৃপক্ষ (বিআইডব্লিউটিএ) আলাদা আলাদাভাবে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

কোস্টার ডুবির ঘটনা তদন্তে রোববার সকালে চার সদস্যের একটি কমিটি গঠন করেছে বন বিভাগ। এই কমিটিকে আগামী তিন কার্য দিবসের মধ্যে কীভাবে পণ্য বোঝাই কোস্টারটি পানিতে নিমজ্জিত হল এবং এতে কী পরিমাণ ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে তা নিরুপণ করে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের শরণখোলা রেঞ্জের সহকারী বন সংরক্ষক (এসিএফ) কামাল উদ্দিন আহমেদকে প্রধান করে চার সদস্যের এই তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন- চাঁদপাইরেঞ্জের ফরেস্ট রেঞ্জার গাজী মতিয়ার রহমান খান, ফরেস্টার সুলতান মাহমুদ ও সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের জীববৈচিত্র কর্মকর্তা মেহেদী হাসান।

সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা (ডিএফও) সাইদুল ইসলাম জানান, রোববার সকালে পণ্যবাহী কোস্টারটি যে এলাকায় ডুবেছে সে এলাকা পরিদর্শন করা হয়েছে। পণ্যবাহী কার্গোটি পানির নিচে তলিয়ে যাওয়ায় তা একেবারেই দেখা যাচ্ছেনা। ইতোমধ্যে ডুবে যাওয়ার স্থানটি চি‎হ্ণিত করা হয়েছে। এখান থেকে চলাচল করা নৌযানগুলো যাতে নিরাপদে চলাচল করতে পারে সেজন্য লাল পতাকা দিয়ে সীমানা নির্ধারণ করা হয়েছে। ডুবে যাওয়া কোস্টারটি দ্রুত কীভাবে তোলা যায় সেজন্য বিআইডব্লিউটিএ, কোস্টারের মালিক পক্ষ এবং মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। 

মংলা বন্দর কর্তৃপক্ষের হারবার মাস্টার কমান্ডার মোহম্মদ হাসান বলেন, ‘কয়লা বোঝাই কোস্টার ডুবিতে মংলা বন্দরের আগমন ও নির্গমন করা নৌযান চলাচলে কোনো অসুবিধা হচ্ছেনা। সকালে চিফ হাইডোগ্রাফার ফারুকুল ইসলামের নেতৃত্বে একটি দল সেখানে পরিদর্শনে গেছে। ডুবে যাওয়া ওই যানটিকে কীভাবে দ্রুত অপসারণ করে চ্যানেলটি স্বাভাবিক রাখা যায় তার জন্য আমাদের ওই দলটি কাজ করবে।’

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মো. জাহাঙ্গীর আলম জানান, কয়লা নিয়ে ডুবে যাওয়া সি হর্স-১ নামের কোস্টারটি কীভাবে ডুবলো তা জানতে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোমিনুর রশিদকে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করতে পাঠানো হয়েছে। তিনি ফিরে আসার পর ডুবে যাওয়া কোস্টারটি কী উপায়ে দ্রুত অপসারণ করা যায় তার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

প্রসঙ্গত: শনিবার বিকেলে সুন্দরবন পূর্ব বিভাগের চাঁদপাই রেঞ্জের শেলা নদীর হরিণটানার কাছে কয়লা নিয়ে ডুবে যায় সি হর্স-১ নামের কোস্টারটি। এর আগে ২০১৪ সালের ৯ ডিসেম্বর সুন্দরবনের শেলা নদীতে ওটি সাউদার্ন স্টার-৭ নামে একটি ওয়েল ট্যাঙ্কার ডুবে যায়। ওই সময় সুন্দরবনের এই নৌপথটি দিয়ে যান চলাচল বন্ধ করতে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও পরিবেশবাদী সংগঠন দাবি জানিয়ে আসছে।

এস/০২:৩০/১৮ মার্চ

বাগেরহাট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে