Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (25 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৩-২০-২০১৬

বীরাঙ্গনা ফুলমতির মুখে স্বস্তির হাসি

তোফায়েল হোসেন জাকির


বীরাঙ্গনা ফুলমতির মুখে স্বস্তির হাসি

গাইবান্ধা, ২০ মার্চ- একাত্তর সালের মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন পাক বাহিনীর হাতে নির্যাতিত রাজকুমারী রবিদাস ফুলমতি রাণী বীরাঙ্গনার স্বীকৃতি পাওয়ায় তার মুখে ফুটে উঠেছে তৃপ্তির হাসি। 

বর্তমানে বয়সের ভারে নুয়ে পড়া ৭৩ বছর বয়সী বৃদ্ধা ফুলমতির বাড়ি গাইবান্ধা জেলাধীন সাদুল্যাপুর উপজেলা শহরের উত্তর পাড়াস্থ রাস্তার ধারের এক খাস জমিতে।
   
ফুলমতি রাণী জানান, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালীন সময়ে স্থানীয় এক বিহারীর সঙ্গে পাক হানাদার বাহিনীর কয়েকজন সৈন্য তার বাড়িতে এসে তাকে ঘর থেকে বের করে অন্যত্র নিয়ে গিয়ে শারীরিক নির্যাতন করেন। সেই অসহ্য যন্ত্রণা আর নির্যাতনের স্মৃতি আজও বারবার তাড়িয়ে ফেরে বৃদ্ধা ফুলমতি রানীকে। হাজারো চেষ্টা করেও তিনি ভুলতে পারেন না সেই দুঃসহ স্মৃতির কথা। সব সময়ে অসহ্য কষ্ট বুকে করে বেঁচে থাকা। একদিকে হায়েনাদের নির্যাতনের স্মৃতি, অন্যদিকে দারিদ্রের কষাঘাত। 

এরই ধারাবাহীকতায় সংসারের একমাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তি তার স্বামী ফসিরাম রবিদাস ১৯৮৮ সালে মারা যান। যেন মরার উপর খারার ঘা। এরপরই শুরু হয় ফুলতির জীনযুদ্ধ। তার ৪ ছেলে ও ১ মেয়েকে নিয়ে দু’চোখে অন্ধকার দেখতেন। আর খেয়ে না খেয়ে কোনোমতে জীবিকা নির্বাহ করে আসছিলেন ফুলমতি রাণী। একেবারই জীবনযুদ্ধে পরাজিত তিনি। সব অন্ধকারের শেষ আছে। 

স্বাধীনতার ৪৭ বছর পর সে আঁধার কেটে গেছে তার জীবন থেকে। তিনি যে স্বপ্ন নিয়ে বেঁচে আছেন, আজ সেই স্বপ্নই তার বাস্তবায়ন হয়েছে। সম্প্রতি ফুলমতি রাণী মুক্তিযোদ্ধার স্বীকৃতিপ্রাপ্ত গেজেটভুক্ত বীরাঙ্গনার স্বীকৃতি পান। খবরটা শুনে আরও একবার প্রাণ খুলে কাঁদলেন। তারপর অসহ্য যন্ত্রণা আর নির্যাতনের স্মৃতিজড়িত কান্না দিন শেষ হল। 

বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, একাত্তরে পাকিস্তানি বাহিনী এবং রাজাকারদের হাতে নির্যাতনের স্বীকার সাদুল্যাপুরের রাজকুমারী রবিদাস ফুলমতি রাণীকে মুক্তিযোদ্ধার তালিকায় বীরাঙ্গনা হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করে ১৪ মার্চ/১৬ তারিখে গেজেট প্রকাশ করেছেন সরকার। বাংলাদেশ গেজেটের ৪৮,০০,০০০০,০০৪,৩৭,২৮,১৬-২৯৯-জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল আইন, ২০০২(২০০২ সনের ৮নং আইন) এর ৭(ঝ) ধারা অনুযায়ী প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধাদের (বীরাঙ্গনা) তালিকা, মোতাবেক ৪১ এর ৫নং ক্রমিকে প্রদত্ত ক্ষমতা বলে রাজকুমারী রবিদাস ফুলমতির নামে মুক্তিযোদ্ধাদের (বীরাঙ্গনা) স্বীকৃতি স্বরূপ গেজেট প্রকাশ হয়েছে। 

তিনি মুক্তিযোদ্ধাদের মতো সব ধরনের সরকারি বিভিন্ন সুযোগ-সুবিধা ভোগ করতে পারবেন বলে সূত্র জানায়। মৃত্যুর আগে ফুলমতিদের জন্য সত্যি এটা অনেক বড় তৃপ্তির, অনেক বেশি আনন্দের।

এস/০২:২৫/১৮ মার্চ

গাইবান্দা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে