Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-১৯-২০১৬

সরকারি উদ্যোগে মাছের এসি রেস্তোরাঁ নলবনে

দেবযানী সরকার


সরকারি উদ্যোগে মাছের এসি রেস্তোরাঁ নলবনে

কলকাতা, ১৯ মার্চ- কলকাতায় বাঙালি খাবার ছাড়াও চাইনিজ, কন্টিনেন্টাল, মোগলাই খাবারের রেস্তোরাঁর অভাব নেই৷ কিন্তু এক্সক্লুসিভলি ফিস আইটেমের জন্য আলাদা রেস্তোরাঁ শুধু কলকাতা কেন পূর্ব ভারতের কোথাও আছে বলে মনে করতে পারছেন না অনেকেই৷ রাজ্য মৎস্য উন্নয়ন নিগমের সৌজন্যে এবার সল্টলেকের নলবন ফুড পার্কে আপনার মনের মতো মাছের পদ মিলতে চলেছে৷ উল্লেখ্য, এই রেস্তোরাঁয় মাংসের কোনও প্রবেশ নেই৷ চিংড়ি, পাবদা, কই পারশেরাই এখানে একা রাজত্ব করবে৷

খাদ্য রসিকদের রসনা তৃপ্ত করতে এক ছাদের তলায় এক্সক্লুসিভলি ফিস আইটেম আনল রাজ্য মৎস্য উন্নয়ন নিগম৷ এই প্রথম রাজ্যের কোনও সরকারি রেস্তোরাঁয় লোকে কব্জি ডুবিয়ে মাছ-ভাত খেতে পারবেন৷ তাও আবার সাধ্যের মধ্যে৷ মাত্র ৪০ টাকায় মিলবে গন্ধলেবু, সুগন্ধি চালের ভাত, ঘি আর সঙ্গে চাটনি, পাঁপড় ভাজা৷ এখানে মাছের পদ শুরু হচ্ছে ৪০ টাকায়৷ এত কম টাকায় মাছের পদ মানে কেবল মাছ ভাজা বা চারা মাছের পদ নয়, বড় পোনা মাছের পাতুরি মিলবে ৪০ টাকায়। এছাড়া এক পিস তেল কই, ভেটকি মাছের ঝোল কিংবা পাবদার ঝাল মিলবে ৮০ টাকায়৷ শুনলে অবাক হবেন, এই বাজারেও গলদা, বাগদার মালাইকারি পাওয়া যাবে মাত্র ৬০ টাকায়৷ অনান্য রেস্তোরাঁয় যেখানে ডাব চিংড়ির ডিশ শুরু ৩৫০ বা ৪০০ টাকা থেকে, সেখানে এই সরকারি রেস্তোরাঁয় মাত্র ২৫০ টাকাতেই মিলবে এটি।

এছাড়াও ফিস বিরিয়ানি, ফিস টিক্কার মতো মাছ দিয়ে চাইনিজের একাধিক প্রিপারেশন, এমনকি স্ন্যাক্সও মিলবে এই রেস্তোরাঁয়৷ সব মিলিয়ে প্রায় ৪০ থেকে ৪২ রকমের মাছের পদ থাকছে এখানে৷ তবে শুক্র, শনি ও রবি- সপ্তাহের এই তিনদিন স্পেশালই বাঙালি খাবার মিলবে৷ মৎস্য দফতরের সচিব সুমন্ত চৌধুরি বলেন, আমরা এর আগে বিভিন্ন ইভেন্টে দেখেছি, সেখানে গলদা বা ভেনামি চিংড়ির মালাইকারি, ডাব চিংড়ি, ভেটকির ফ্রাইয়র মতো পদগুলোর খুব চাহিদা৷ সেই কারণে মধ্যবিত্ত বাঙালির পাতে মাছের এই পদগুলো তুলে দিতেই আমাদের এই উদ্যোগ৷

বিভিন্ন ফুড ফেস্টিভ্যালের মাধ্যমে রাজ্য মৎস উন্নয়ন নিগম পাঙাস, ভিয়েতনামী কই, ভেনামী চিংড়ি, নোনা ট্যাংরার মতো বেশ কিছু লুপ্তপ্রায় মাছকে রাজ্যবাসীর সঙ্গে ইতোমধ্যেই পরিচয় করিয়েছে৷ সেই মাছগুলিরই বিভিন্ন পদ থাকছে নলবন ফুড পার্কে৷ মৎস উন্নয়ন নিগমের ম্যানেজিং ডিরেক্টর জানিয়েছেন সৌম্যজিৎ দাস বলেন, ইতোমধ্যেই আমরা কয়েকটা নামী চেইন রেঁস্তারাকে এই মাছগুলো সরবরাহ করেছি৷ সেখান থেকে আমরা খুব ভালো রেসপন্স পেয়েছি৷ তাই এবার আমরা নিজেরাই খাদ্যরসিকদের পাতে মাছের হরেকরকম পদ তুলে দেওয়ার উদ্যোগ নিয়েছি৷

এফ/০৯:১৫/১৯মার্চ

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে