Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-১৮-২০১৬

একই সমাধিতে রানী নেফারতিতি আর পুত্র তুতেনখামেন!

একই সমাধিতে রানী নেফারতিতি আর পুত্র তুতেনখামেন!
মিসরের রানী নেফারতিতি

কায়রো, ১৮ মার্চ- পুরাতত্ত্ববিদরা প্রাচীন মিশরের রানী নেফারতিতির সমাধির খোঁজ করছেন বহুদিন ধরে। কিন্তু কিছুতেই খোঁজ পাননি। কিছুদিন আগে বিশেষজ্ঞরা সম্রাট তুতেনখামেনের সমাধির ভেতরেই তার গোপন কবরের কিছু ইঙ্গিত পেয়েছিলেন। সেই অনুসন্ধানের সূত্র ধরে এই সমাধির ভিতরে ফাঁপা জায়গার অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া গেছে এবং সেখানে সাম্ভাব্য জৈব পদার্থ রয়েছে বলে জানিয়েছেন মিশরীয় অনুসন্ধানকারীরা।

এ বিষয়ে মিশরের পুরাকীর্তি বিষয়ক মন্ত্রী মামদো এল দামাতি জানিয়েছেন, গত নভেম্বরে রাডার স্ক্যানিংয়ের মাধ্যমে সমাধির ভেতরের আরেকটি কবরের অস্তিত্ব পাওয়া গিয়েছিল। যে কারণে আমরা আরো অনুসন্ধান চালিয়ে যাচ্ছি। অনুসন্ধান শেষে আমরা আরো নতুন কিছু জানতে পারবো।’

নভেম্বরের অনুসন্ধান সম্পর্কে তিনি আরো বলেন, ‘আমরা ইতমধ্যে ৯৯ ভাগ নিশ্চিত যে এখানেই নেফারতিতিকে সমাধিস্ত করা হয়েছিল। তবে আমরা শতভাগ নিশ্চিত না হয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করবো না।’

পুরাকীর্তির গুরুত্ব বুঝাতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘এটা আমাদের মিশরীয় ইতিহাসের জন্য খুব গুরুত্বপূর্ণ। কেবল মিশরের জন্য নয়, বরং সারা বিশ্বের জন্যই এটা অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কেননা কারণ নেফারতিতির এই অমীমাংসীত রহস্য এখনো মানুষকে ধাঁধায় ফেলে রেখেছে।’


তুতেনখামেনের সমাধি

এই ব্যাপারটি ব্রিটিশ গবেষক নিকোলাস রিভসের নজরে আসে সর্বপ্রথম। তিনি বলেছেন, আনুমানিক তিন হাজার বছর আগে ১৯ বছর বয়সী তুতেনখামেনকে সমাধিস্ত করা হয়েছিল। সেই সময়ে হয়তো ঐ একই সমাধিতে তুতেনখামেনের মা নেফারতিতিকেও সমাধিস্ত করা হয়েছিল। সমাধির ভিতরে পাওয়া এই অদ্ভুত দর্শন বস্তুগুলোই ইঙ্গিত করে যে হয়তো সমাধিটি ভিতর থেকে প্রাসারিত করা হয়ে থাকতে পারে। যেখানে পরবর্তীতে নেফারতিতিকে সমাধিস্ত করা হয়।

তবে তার এই তত্ত্ব মিশরীয়রা খুব সতর্কতার সাথেই গ্রহণ করেছে। কারণ আর কোনোভাবেই নেফারতিতির কবর গায়েব হওয়ার ব্যাখ্যা পাওয়া যায় না। কেউ কেউ মনে করেন নেফারতিতির এই সমাধিতি ১৮৯৮ সালে প্রথম আবিষ্কৃত হয়। এখনো পর্যন্ত এই সমাধিস্থলে প্রায় ২ হাজার বস্তু অক্ষত অবস্থায় পাওয়া গেছে। বস্তুগুলো বরাবরই একটি নির্দিস্ট সমাধি থেকে পাওয়া যাওয়ায় মানুষ ধাঁধায় পড়ে গেছে।

এফ/০৮:৩৯/১৮মার্চ

আফ্রিকা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে