Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 2.5/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-১৬-২০১৬

‘যুক্তরাষ্ট্রে হামলা চলাচ্ছে চীনা হ্যাকাররা’

ইফতেখার আহমেদ


‘যুক্তরাষ্ট্রে হামলা চলাচ্ছে চীনা হ্যাকাররা’

ওয়াশিংটন, ১৬ মার্চ- জটিল র‌্যানসমওয়্যার আক্রমণের মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্রে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের যন্ত্রপাতি হাইজ্যাক এবং তা ডিক্রিপ্ট করতে মুক্তিপণ দাবি করছে চীনা হ্যাকাররা, কয়েকটি প্রতিবেদনের সূত্র ধরে এমন খবর জানিয়েছে রয়টার্স।

চারটি নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান আলাদা আলাদাভাবে কিছু সাইবার আক্রমণ শনাক্ত করেছে। এই আক্রমণগুলো সাম্প্রতিক সময়ে চীন থেকে করা হয়েছে বলেই তাদের বিশ্বাস। এই হ্যাকের আড়ালে ‘দক্ষ পরিচালকরা’ চীনের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতায় থাকতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করেন তারা। জবাবে, এ বিষয়ে কোনো নির্ভরযোগ্য তথ্য প্রমাণ থাকলে, তা নিয়ে তদন্ত চালানো হবে বলে জানিয়েছে চীনা সরকার।

সম্প্রতি নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠানগুলো র‌্যানসামওয়্যারবাহী জাংক মেইললের ব্যাপক সংখ্যাবৃদ্ধির ব্যাপারে সতর্ক করেছে। এই ঘটনায় বাজারে আসা নতুন ম্যালওয়্যারকে দায়ী করা হচ্ছে, যা অ্যান্টি-ভাইরাস সফটওয়্যারগুলোকে ফাঁকি দিতে সক্ষম।

চলতি বছর দুটি ‌র‌্যানসামওয়্যার আক্রমণ শনাক্ত করে ডেল সিকিওরওয়ার্কস। একটি যোগাযোগ প্রতিষ্ঠান আর একটি প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানে এই দুই আক্রমণ হানা হয়। আরেকটি ক্ষেত্রে দেখা যায়, অজ্ঞাতনামা এক প্রতিষ্ঠানের ৩০ শতাংশ যন্ত্রপাতি হ্যাকারদের নিয়ন্ত্রণে চলে যায়।

এ ছাড়াও অ্যাটাক রিসার্চ, ইনগার্ডিয়ানস এবং জি-সি পার্টনার্স- এ তিনটি নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠান জানিয়েছে, তারা ডিসেম্বর থেকে একই ধরনের আরও তিনটি আক্রমণের ঘটনা তদন্ত করেছে। এ বিষয়ে ডেল-এর একটি ইনসিডেন্স রেসপন্স টিমের প্রধান ফিল বার্ডেট বলেন, “নিশ্চিতভাবেই এটি দক্ষ অপারেটরদের একটি গ্রুপের কাজ যাদের এ ধরনের কাজে পূর্ব অভিজ্ঞতা রয়েছে।”

ভালো এনক্রিপশন পদ্ধতির কারণে সাইবার আক্রমণের শিকার ব্যবহারকারীদের পক্ষে হ্যাকারদের সহযোগিতা ছাড়া তাদের ফাইলে প্রবেশাধিকার পাওয়া সম্ভব হয় না। অনেক ক্ষেত্রেই বিটকয়েনের মাধ্যমে এসব হামলায় মুক্তিপণ আদায় করা হয়, এবং এ ধরনের আক্রমণের ক্ষেত্রে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানই কোনো তথ্য দিতে অনীহা প্রকাশ করে।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন মুখপাত্র রয়টার্সকে জানান, তারা শুধু ‘গুজব ও ধারণার’ ওপর ভিত্তি করে কোনো ব্যবস্থা নেবেন না, তবে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, নির্ভরযোগ্য কোনো প্রমাণ পেলেই তারা বিষয়টিকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করবেন।

২০১৫ সালেই চীনা সরকার আর্থিক গুপ্তচরবৃত্তির বিরুদ্ধে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে একটি চুক্তির আবেদন করেছে। এর পরপরই মার্কিন প্রতিষ্ঠানগুলো চীনভিত্তিক হ্যাকিং-এর সংখ্যা কমে আসার কথা জানিয়েছে। এ ছাড়াও হ্যাকিং-এর কারণে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও চীনের মধ্যে বিদ্যমান তিক্ত সম্পর্কের উন্নতি ঘটাতে চীন সরকার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ইন্টারনেট নিরাপত্তা সহযোগিতা বাড়াতে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। আর্থিক গুপ্তচরবৃত্তির ক্ষেত্রে সরকারি সহযোগিতা কমে গিয়ে থাকলে হ্যাকাররা আয়ের অন্য পথ খুঁজতে পারে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

এফ/২৩:৪২/১৬মার্চ

উত্তর আমেরিকা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে