Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.1/5 (24 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৩-১৬-২০১৬

শিয়া হোমিও চিকিৎসক খুন, আবারও আইএসের দায় স্বীকার

শিয়া হোমিও চিকিৎসক খুন, আবারও আইএসের দায় স্বীকার

ঝিনাইদহ , ১৬ মার্চ- ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলায় শিয়া মতাদর্শের হোমিও চিকিৎসক আবদুর রাজ্জাককে (৫০) হত্যার দায় স্বীকার করেছে মধ্যপ্রাচ্যভিত্তিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস)।

জঙ্গিগোষ্ঠীর ইন্টারনেটভিত্তিক তৎপরতা নজরদারিতে যুক্ত যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপের প্রধান রিটা কাৎজ বাংলাদেশ সময় গত সোমবার রাত আড়াইটায় এক টুইটার বার্তায় এ কথা জানান। এতে বলা হয়, আইএস দাবি করেছে যে তারা বাংলাদেশের একজন শিয়া ধর্মপ্রচারক আবদুর রাজ্জাককে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে।

তবে কালীগঞ্জের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আজবাহার আলী শেখ গতকাল মঙ্গলবার রাতে  বলেন, ‘আইএসের দাবি নিয়ে আমরা ভাবছি না। তেমন কোনো আলামতও পাইনি।’ তিনি বলেন, ‘রাজ্জাকের হোমিও দোকানে স্থানীয় দু-একজন পুলিশের যাতায়াত ছিল। কিছুদিন আগে দুজন মাদকসেবীকে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। ওদের ধারণা, আবদুর রাজ্জাক তাদের ধরিয়ে দিয়েছে। ওই মাদকাসক্তরা সম্প্রতি জামিনে মুক্তি পেয়েছে। তাই এ ঘটনায় ওই মাদকাসক্তদের প্রাথমিকভাবে সন্দেহ করা হচ্ছে।’

আবদুর রাজ্জাক সোমবার রাত ১০টার দিকে কালীগঞ্জের নিমতলা বাসস্ট্যান্ড এলাকায় তাঁর হোমিও চিকিৎসালয় থেকে বাসায় ফেরার পথে খুন হন। কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন বলেন, তাঁরা গতকাল পর্যন্ত এই হত্যার কোনো সূত্র খুঁজে পাননি। জোর চেষ্টা চলছে। আশা করছেন, দ্রুত হত্যাকারীদের শনাক্ত করা সম্ভব হবে।

পুলিশ ও নিহত ব্যক্তির স্বজনেরা জানান, আবদুর রাজ্জাক শিয়া মতাদর্শে বিশ্বাসী ছিলেন। তাঁর পৈতৃক বাড়ি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার খড়াশুনি গ্রামে। তিনি প্রায় এক যুগ আগে কালীগঞ্জের নিমতলা বাসস্ট্যান্ডের কাছে চাপালী এলাকায় বাড়ি করে বসবাস শুরু করেন। এখানে আসার পর থেকেই তিনি শিয়া মতাদর্শের প্রচার শুরু করেন। তাঁর কিছু অনুসারীও আছেন। সোমবার রাতে নিজের হোমিও চিকিৎসালয়ে অনুসারীদের সঙ্গে বৈঠক করে বাড়ি ফিরছিলেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একজন অনুসারী বলেন, এক মাস আগে তাঁদের জানানো হয়েছিল যে একটি জঙ্গিগোষ্ঠী তাঁদের অনুসরণ করছে। তাঁদের ওপর হামলা হতে পারে।

রাজ্জাকের ভাই সাবজাল খান বলেন, তাঁর ভাই একটি মতাদর্শে বিশ্বাসী ছিলেন, এটা ঠিক। কিন্তু তিনি কখনো অন্যায় কাজ করেননি। তাঁকে কারা হত্যা করেছে, সে সম্পর্কেও কোনো ধারণা নেই সাবজালের। তিনি ভাইয়ের হত্যার বিচার দাবি করেন।

পুলিশ জানায়, রাজ্জাককে কুপিয়ে ও ছুরিকাঘাত করে হত্যা করা হয়। গতকাল ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়। এরপর কালীগঞ্জ শহরের কলেজ মাঠে প্রথম জানাজা শেষে লাশ পৈতৃক বাড়ি খড়াশুনিতে নেওয়া হয়। পরে সেখানে কবর দেওয়া হয়। এ ঘটনায় রাজ্জাকের ভাই শওকত আলী বাদী হয়ে কালীগঞ্জ থানায় গতকাল একটি হত্যা মামলা করেছেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ৭ জানুয়ারি ঝিনাইদহ সদর উপজেলার বেলেখাল বাজারে আরেক হোমিও চিকিৎসক ছামির আলীকে (৮২) নিজ চিকিৎসালয়ে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করে দুর্বৃত্তরা। ওই ঘটনায়ও আইএস দায় স্বীকার করে। পরদিন আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স ও সাইট এ খবর প্রচার করে। তাতে বলা হয়, আইএস দাবি করেছে যে খ্রিষ্টধর্মে ধর্মান্তরিত হওয়ায় ছামির আলীমকে হত্যা করা হয়েছে। এই হত্যার ঘটনায়ও এখন পর্যন্ত পুলিশ কোনো কূলকিনারা করতে পারেনি।

এস/০৩:১৫/১৬ মার্চ

ঝিনাইদহ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে