Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.3/5 (3 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-১৫-২০১৬

মাহফুজা নিখোঁজ: স্বামীকে সন্দেহ করছে নিউ ইয়র্কের পুলিশ

মাহফুজা নিখোঁজ: স্বামীকে সন্দেহ করছে নিউ ইয়র্কের পুলিশ

নিউ ইয়র্ক, ১৫ মার্চ- যুক্তরাষ্ট্রের বেলভিউ হাসপাতালের বাংলাদেশি নার্স মাহফুজা রহমানের তিন মাস ধরে নিখোঁজ থাকার ঘটনায় তার স্বামী মোহাম্মদ চৌধুরী জড়িত থাকতে পারে বলে সন্দেহ করছে নিউ ইয়র্কের পুলিশ।

নিখোঁজ হওয়ার পর পর মাহফুজা ঢাকায় গেছেন বলে তার স্বামী যে তথ্য দিয়েছিলেন তাও সঠিক নয় বলে দাবি করছে তারা।

ব্রঙ্কস গোয়েন্দা পুলিশের উপ-প্রধান জ্যাসন উইলকক্স বলেন, “মাহফুজা যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে গেছেন এমন কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি।”

মাহফুজার সহকর্মীরা জানান, ৯ ডিসেম্বর তিনি কর্মস্থলে না যাওয়ায় ব্রঙ্কস বেডফোর্ড পার্ক এলাকার ইস্ট ১৯৮ স্ট্রিটে তার বাসায় ফোন করলে তার স্বামী দুর্ঘটনায় আহত বাবা-মাকে দেখতে মাহফুজা ঢাকায় গেছেন এবং মার্চের প্রথম সপ্তাহে ফিরবেন বলে জানান।

তবে ওই দিনই নিউ ইয়র্ক সিটির হান্টার কলেজের নার্সিং কোর্সের ছাত্রী মাহফুজার পরিচয়পত্র ব্যবহার করা হয়েছে বলে ব্রঙ্কস পুলিশের কর্মকর্তা উইলকক্স জানান।

এরপর ৪ মার্চ হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মাহফুজার নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি পুলিশকে জানানোর পর তারা ব্রঙ্কসের ইস্ট স্ট্রিটে মাহফুজার বাসায় যান। মাহফুজার প্রতিবেশীরা পুলিশকে জানায়, ১৫ ডিসেম্বর নয় বছর বয়সী একমাত্র মেয়েকে নিয়ে ঢাকার কথা বলে বাসা ছেড়ে যান মোহাম্মদ (৩৮)। তখন থেকে তাদের বাড়িটি তালাবদ্ধ রয়েছে।

মাহফুজার সন্ধানে তার স্বামীসহ বাংলাদেশে থাকা স্বজনদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে বলেও জানিয়েছে পুলিশ।

নিউ ইয়র্ক গোয়েন্দা পুলিশের প্রধান রবার্ট বয়েস বলেন, “পুলিশের পক্ষ থেকে বাংলাদেশে মাহফুজার স্বামীকে ফোন করা হলেও তিনি ধরেননি।”

এরপর বাংলাদেশে মাহফুজার বাবা মতিউর রহমানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয় বলে জানান বয়েস।

“তিনি (মাহফুজার বাবা) আমাদের জানান, মাহফুজার মা-বাবা কেউই দুর্ঘটনায় আহত হননি; আর মাহফুজাও বাংলাদেশে যায়নি।”

এই বিষয়ে নিউ ইয়র্কের বাংলাদেশ কনস্যুলেট থেকে সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখা হচ্ছে বলে ভাইস কন্সাল সাহেদ আহমেদ জানিয়েছেন।

“মার্কিন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিষয়ক দপ্তরের সঙ্গে আমাদের সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রয়েছে। আমরা বাংলাদেশেও যোগাযোগ রাখছি, মাহফুজার স্বামীর হদিস জানার জন্যে।”

বাংলাদেশি ওই নার্সকে ‘হত্যা করে লাশ গুম করা হতে পারে’ এমন আশঙ্কায় ৭ মার্চ তাদের বাড়ির সামনের অংশে খোঁড়াখুড়ি করা হয়; কুকুর দিয়ে চালানো হয় তল্লাশি।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে রোববার এক তদন্ত কর্মকর্তা বলেন, “১৪ ডিসেম্বর নিউ ইয়র্ক ছাড়ার আগে মোহাম্মদ রহমান এমন কিছু জিনিস কিনেছেন, যা দিয়ে একটি লাশ গুম করা সম্ভব।”
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়নে স্নাতকোত্তর শেষে নিউ ইয়র্কের হান্টার কলেজ থেকে নার্সিংয়ে ডিপ্লোমা নেন মাহফুজা রহমান।পরে তিনি লাগোর্ডিয়া কলেজ থেকে কলা ও বিজ্ঞানে অ্যাসোসিয়েট ডিগ্রি নেন।

প্রবাসীদের মানববন্ধন

মাহফুজার সন্ধানে ফেডারেল প্রশাসনের জোরালো ভূমিকা দাবি করে তার বাসার সামনে মানববন্ধন করেছে প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

স্থানীয় সময় শনিবার দুপুরে মানববন্ধনে ‘বাংলাদেশী আমেরিকান কম্যুনিটি কাউন্সিল’ এর প্রেসিডেন্ট আইনজীবী মোহাম্মদ এন মজুমদার, মঞ্জুর চৌধুরী জগলু, নাসরীন চৌধুরী, নজরুল ইসলাম খান ও রোক্সানা মজুমদারসহ অর্ধশতাধিক প্রবাসী উপস্থিত ছিলেন।

এন/১৫:১৪/১৫ মার্চ

যূক্তরাষ্ট্র

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে