Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 4.0/5 (3 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-১৪-২০১৬

জিন্সকে বিদায় দিয়ে সামারে নতুন ট্রেন্ড পালাজ্জো

জিন্সকে বিদায় দিয়ে সামারে নতুন ট্রেন্ড পালাজ্জো

আমাদের জীবনযাত্রা ঋতুর সাথে অনেকটা সম্পর্কিত। সবসময়ের মতই নতুন ঋতুতে আমরা কী পোশাক পরব তার জন্য আমাদের মধ্যে এক প্রকার উৎসাহ কাজ করে। সামার যেহেতু প্রায় শুরু হতে যাচ্ছে, সেহেতু আমরা সামারের নতুন ফ্যাশনের দিকে একটু নজর দেয়া প্রয়োজন।

অনেকেই শরীরের সাথে মানানসই পোশাক পছন্দ করে। তারা কেবল ফরমাল পোশাকেই তৃপ্ত নন বরং ফিগারের সাথেও পোশাকটি মানানসই হওয়া চাই। ডিজাইনার শ্রীজিত জীভানের মতে, ন্যাচারাল ফেব্রিক্স যেমন সূতি ও লিনেন কাপড়ের অন্যরকম চাহিদা আছে। তিনি বলেন, ‘ঐতিহ্যগত ফেব্রিক্স যেমন খাদি এবং হ্যান্ডলুম এই সামারে আবারও আসতে যাচ্ছে।’ এই অভিমত অনুযায়ী সমাজের একটি বড় সংখ্যক গোষ্ঠী পরিবেশ-বান্ধব পোশাক পছন্দ করে। তারা ব্লীচের সময় ব্যবহৃত রাসায়নিক দ্রব্য থেকে মুক্তির জন্য ব্লীচবিহীন পোশাক পছন্দ করে।

সামারের পোশাক কেমন হবে, সেটি স্বস্তি এবং ফ্যাশন এই দু’টি ব্যাপারের উপর নির্ভর করে। এই সময় নারীরা হ্যাংগিং টপস ও ট্রাউজারসকে বিদায় বলে দেয়। নারীরা এসময় জিন্সকে ভুলে যায় এবং নিম্নাংশে ঢিলাঢালা পালাজ্জো পছন্দ করে।

‘পালাজ্জো এখন অনেক সাধারণ হয়ে গেছে। কুর্তি পরার স্টাইলেও কিছু পরিবর্তন এসেছে। মেয়েরা ধীরে ধীরে থ্রী-পিস থেকে দূরে সরে যাচ্ছে যা সামারের জন্য বেশ আরামদায়ক। সাধারণভাবে, মানুষ তাদের স্বচ্ছন্দ মতো পোশাকের স্টাইল বেছে নিচ্ছে যা তাকে সারা দিন আরাম দিবে। পুরুষদের পোশাক থেকে অনুপ্রাণিত কিছু পোশাকও নারীদের পোষাকে চলে আসছে। যেমন শার্ট। এমন পোশাকের আরামদায়ক লেভেল হবে শার্টের মতো।’ বলেন শ্রীজিত।

‘ঢিলা পোশাক ব্যবহার তাপের মাত্রাকে কমিয়ে দিতে পারে। বাতাসের চলাচল আমাদের শরীরকে ভাল রাখে। আমরা যদি সামারে টাইট পোশাক পরি, তাহলে ত্বকে অ্যালার্জি হওয়ার সম্ভাবনা আছে। সামারের জন্য স্কার্ট একটি ভাল অপশন।’ বলেন রিথিকা। তিনি একজন কলেজ ছাত্রী। তিনি বিশ্বাস করেন, সামারের জন্য ট্রেগিংস একটি ভাল অপশন। তিনি আরও বলেন, ‘এটা লেগিংস ও ট্রাউজারের একটি সমন্বয়ক। এটা লেগিংস ও ট্রাউজেরের মতো আরাম দিতে পারে।’

সামারের জন্য ফুলের প্রিন্ট একটি অনিবার্য ফ্যাশন। ‘প্রিন্টে ফুলের উপস্থিতি পোশাককে আরও অনেক ফ্রেশ ও স্টাইলিশ করে তোলে’, বলেন অ্যানা বেন, যিনি একজন ফ্যাশন টেকনোলজির ছাত্রী। শ্রীজিত বলেন, ‘পোশাকে কেউ গাঢ় ফুলের প্রিন্ট বেছে নেয়, আবার কেউ ছোট কিংবা ব্যতিক্রম ফুলের প্রিন্ট। যাই হোক, ফুল প্রিন্ট ছাড়া সামারের ফ্যাশন অসম্পূর্ণ।’

অ্যানার কথা অনুযায়ী তার অনেক বন্ধুরা এই সিজনে জিপসি স্টাইল অনুসরণ করছে। তিনি বলেন, ‘এর কারণ, এটা পরে আপনি সামারে সহজেই বের হতে পারবেন।’ অন্যান্য সকলের জন্যও সামার হল সৃজনশীল নতুন সমন্বয় তৈরির সিজন। এছাড়া স্কার্ফ হচ্ছে এমন একটি পোশাক যা অন্যরকম এক সৌন্দর্য যোগ করবে ফ্যাশনে। এটিকে আনুষঙ্গিক হিসেবে ধরা হয়। শ্রীজিত এটা নিয়ে বলেন, ‘এটা ওড়নার পরিবর্তে পরা যায়। এটি যে কাউকে অনেক স্মার্ট দেখাতে সাহায্য করে। এটা যে কোন পোশাকের সাথে পরা যায়।’

অ্যানা বলেন, ‘আমাদের সার্কেলে একসময় সূতি এবং সিল্কের স্কার্ফ নতুন ট্রেন্ড হয়ে ওঠে। এটা অনেকক্ষেত্রে কাজে দেয়। এটা হয়তো শুধু একটি কাপড়ের টুকরা হতে পারে কিন্তু এটা অনেকভাবে পরা যায়। আমরা এটা গলায় পরতে পরি, চুলের হেয়ারব্যান্ডকে ঢেকে রাখতে পারি এবং কিছু সময় শুধু ব্যাগের সাথে পেচিয়ে রাখি।’

আর/১৮:৫৪/১৪ মার্চ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে