Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 5.0/5 (1 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-১৪-২০১৬

বায়োমেট্রিক কেন অবৈধ নয় জানতে চান হাইকোর্ট

বায়োমেট্রিক কেন অবৈধ নয় জানতে চান হাইকোর্ট

ঢাকা, ১৪ মার্চ- বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন কেন অবৈধ নয় জানতে চেয়ে একটি রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। এ বিষয়ে দায়ের করা এ রিট আবেদনের শুনানি করে সোমবার বিচারপতি সৈয়দ মোহাম্মাদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি একেএম সাহিদুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন। গত ৯ মার্চ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী এসএম এনামুল হক এ রিট আবেদনটি দায়ের করেন। রুলের পরবর্তী শুনানি হবে আগামী ২৪ মার্চ। স্বরাষ্ট্রসচিব, আইন সচিব, টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ সংশ্লিষ্টদের এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

আজ আদালতে রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার মুক্তাদির হোসেন। আদালত থেকে বেরিয়ে তিনি বলেন, ‘গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর বিটিআরসি সার্কুলার জারি করে যে, বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন করতে হবে। এ পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন করলে আমাদের সকল তথ্য অপরের হাতে চলে যাবে। কারণ টেলিটক বাদে সকল মোবাইল কোম্পানির ৯৭ ভাগ শেয়ার হোল্ডার বিদেশি। আমাদের ফিংগার প্রিন্ট ৩য় পক্ষকে দেয়ার কোনো সুযোগ নেই।’

আমাদের দেশে ডাটা সংরক্ষণ আইন এখনো করা হয়নি। এ বিষয়ে ইংল্যান্ডের ১৭ জন বিচারপতি রুল জারি করেছেন। তিনি বলেন, ‘আমরা কেন বিদেশিদের কাছে আমাদের ফিংগার প্রিন্ট দেবো, দিচ্ছি। যেহেতু ডাটা সংরক্ষণের ব্যাপারে আমাদের দেশে কোনো ল’ নেই, তাই আগে ল’ হওয়া উচিৎ। তারপর ডাটা সংরক্ষণ করা দরকার।’

এ ব্যাপারে এর আগে গত ২ মার্চ সারাদেশে সিম নিবন্ধনের ক্ষেত্রে বায়োমেট্রিক পদ্ধতি বা মোবাইল কোম্পানিগুলোর আঙুলের ছাপ নেয়া থেকে বিরত করতে আইন সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব, বিটিআরসির চেয়ারম্যান, পুলিশের মহাপরিদর্শক, গ্রামীণফোন, রবি, বাংলালিংক, এয়ারটেল, সিটিসেল, টেলিটক কোম্পানিকে একটি উকিল নোটিশও পাঠান এক আইনজীবী।

নোটিশে বলা হয়, বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম রেজিস্ট্রশন সরকার করলে কোনো আপত্তি নেই। কিন্তু যেহেতু প্রাইভেট কোম্পানিগুলো এ কাজ করছে, তাই এসব তথ্য সংরক্ষণ নিয়ে শংকা রয়েছে। যদি এসব প্রাইভেট কোম্পানিগুলো থেকে তথ্য চুরি হয়ে দেশি-বিদেশি সন্ত্রাসীদের  হাতে যায় তাহলে এর অপব্যবহারের আশংকা করা হয়েছে নোটিশে।

পরে ওই উকিল নোটিশ প্রেরণকারী ব্যারিস্টার হুমায়ুন কবির পল্লব সাংবাদিকদের জানান, ‘বায়োমেট্রিক ডাটা সরকার নিতে পারে। কিন্তু এখানে প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানিকে ক্ষমতা দেয়া বেআইনি। কেননা বিদ্যমান আইন এটাকে অনুমোদন দেয় না। এ ছাড়া কোন আইন আদেশের ভিত্তিতে বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে ফিঙ্গার প্রিন্ট নিচ্ছে তা আমরা জানি না।’

তিনি আরও বলেন, ‘উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে বায়োমেট্রিক ডাটা আমার ব্যক্তি অধিকার ক্ষুণ্ন করছে। আমার ব্যক্তিগত তথ্য পাবলিক ডোমিনে দিলে এটা আমার বিরুদ্ধে অপরাধীরা ব্যবহার করতে পারে। এসব তথ্য লিমিটেড কোম্পানি থেকে চুরি হয়ে যেতে পরে।’

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে আঙ্গুলের ছাপ নিয়ে সিম নিবন্ধন হলে মোবাইল ফোন ব্যবহারের মাধ্যমে সংঘটিত অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড বন্ধ হবে। পাশাপাশি দেশের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির উন্নতি হবে এবং জননিরাপত্তাও নিশ্চিত হবে এমন দাবি করা হলেও অনেকেই মনে করছেন, এতে মানুষের ব্যক্তিগত তথ্যের নিরাপত্তা ঘাটতি হবে।

এফ/১৬:৩৭/১৪মার্চ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে