Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 5.0/5 (1 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৩-১৩-২০১৬

সামাজিক মাধ্যম চিন্তাক্ষমতার ‘বারোটা বাজায়’

ফুয়াদ তানভীর অমি


সামাজিক মাধ্যম চিন্তাক্ষমতার ‘বারোটা বাজায়’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এবং বার্তা আদান-প্রদান মানুষের চিন্তাভাবনাকে ধারণাগতভাবে এবং নৈতিকভাবে ক্ষীণ করে দেয়, সম্প্রতি এমন তথ্যই উঠে এসেছে এক গবেষণায়।
 
এই গবেষণায় দেখা যায়, যেসব মানুষ ঘনঘন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম এবং বার্তা আদান প্রদান করে থাকেন তারা কোনো বিষয়ের গভীরে গিয়ে চিন্তা করেন না। এজন্য তাদের চিন্তার কোন প্রতিফলনও ঘটে না এবং সেটি তার নৈতিক জীবনের  গুরুত্বে প্রভাব ফেলে।

প্রযুক্তিবিষয়ক লেখক নিকোলাস জি কার তার ‘দ্য শ্যালোস’ বইয়ে ইন্টারনেট কীভাবে পরিবর্তন আনছে সে বিষয়ে আলোচনা করেছেন। বইটিতে তিনি উল্লেখ করেন, “আমরা যেভাবে চিন্তা করি, তা হল পড় এবং মনে রাখো।”

নিকোলাস তার বইটিতে ইন্টারনেট কীভাবে মানুষকে প্রতিফলিত চিন্তা থেকে বিরত রাখছে সে বিষয়ে জোড়ালো আলোচনা করেছেন। এর প্রধান কারণ হলো মানুষ এখন ইন্টারনেট যোগাযোগের মাধ্যমে দ্রুত তাদের চিন্তাভাবনা প্রকাশ করে থাকে। ক্ষুদ্র বার্তা, টুইট এবং কমেন্ট করতে মানুষকে বেশি চিন্তা করতে হয় না এবং প্রক্রিয়াটি সম্পন্ন হতেও সময় নেয় না। গবেষকেরা ধারণা করছেন, “যারা সার্বক্ষনিক ইন্টারনেটে যুক্ত থাকেন, সবসময় পোর্টেবল বিনোদন মাধ্যম এবং সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে যুক্ত থাকেন তারা প্রতিনিয়ত দৈনন্দিন প্রতিফলনমূলক চিন্তাভাবনা থেকে দূরে সরে যান।”

আমরা যতবেশি ক্ষুদ্র এবং দ্রুত যোগাযোগ ব্যবস্থার সঙ্গে অভ্যস্ত হচ্ছি, একইভাবে আমরা ক্ষুদ্র এবং দ্রুত চিন্তাভাবনায়ও অভ্যস্ত হচ্ছি। আর এটিই আমদেরকে প্রতিফলনমূলক চিন্তাভাবনা থেকে দূরে নিয়ে যাচ্ছে, জানিয়েছে ব্রিটিশ দৈনিক ইন্ডিপেনডেন্ট।

২০১৩ সালে ইউনিভার্সিটি অফ উইসকনসিন-এর ২৩১৪ জন শিক্ষার্থীর উপর চালানো গবেষণায় এমন তথ্য পাওয়া যায়। এই গবেষণার ফলাফলে দেখা যায়, যারা অপেক্ষাকৃত কম বার্তা ব্যবহার করে থাকে, তাদের মধ্যে ইতিবাচক চিন্তাভাবনা বেশি প্রতিফলিত হয়।

এস/০২:৩০/১৩ মার্চ

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে