Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 2.0/5 (9 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-১২-২০১৬

৩ লাখ নতুন অভিবাসী নেয়ার উচ্চাভিলাষী ঘোষণা কানাডার

৩ লাখ নতুন অভিবাসী নেয়ার উচ্চাভিলাষী ঘোষণা কানাডার

অটোয়া, ১১ মার্চ- কানাডা চলতি বছর তিন লাখেরও বেশী নতুন অভিবাসী নেয়ার এক উচ্চাভিলাষী পরিকল্পনা ঘোষণা করেছে। নতুন এ পরিকল্পনায় পরিবারের সদস্যদের পুনর্মিলন এবং শরণার্থী শ্রেণীকে বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। অভিবাসন মন্ত্রী জন ম্যাককালাম ৮ মার্চ জাতীয় সংসদে পেশ করা বার্ষিক প্রতিবেদনে সরকারের এ লক্ষ্যমাত্রা ঘোষণা করে বলেন,‘সবার জন্য কানাডার দরজা আবারো উন্মুক্ত হচ্ছে। প্রতিবেদনে ২০১৬ সালে সর্বোচ্চ ৩০৫,০০০ নতুন অভিবাসীকে স্বাগত জানানোর কথা বলা হয়েছে। আগের বছরের তুলনায় এ সংখ্যা ২১,০০০ বেশী।’

ক্ষমতাসীন লিবারেল সরকারের অভিবাসন নীতিমালা ব্যাখ্যা করে মন্ত্রী পরে এক সংবাদ সন্মেলনে বলেন, ‘চলতি বছর আরও বেশী সংখ্যক নতুন অভিবাসী নেয়ার লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে। সাম্প্রতিক বছরগুলোর পরিসংখ্যান দেখলে বোঝা যাবে যে এটা কানাডার ইতিহাসে সর্বোচ্চ। অর্থনৈতিক উন্নয়নে অভিবাসীরা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে আসছে এবং উদার কর্মসূচীর মধ্য দিয়েই আজকের কানাডা গড়ে উঠেছে। অনেক প্রতিভাবান এবং কর্মঠ উদ্যোক্তা এদেশকে তাদের পছন্দের জায়গা হিসেবে বেছে নিয়েছেন।’

নতুনদের স্বাগত জানাতে কানাডা বরাবরই উদার একটা দেশ, একথা উল্লেখ করে মন্ত্রী প্রতিবেদনে বলেন, পরিবারের সদস্যদের দ্রুততম সময়ের মধ্যে একত্রিত হওয়ার বিষয়টিকে অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে বিবেচনা করা হয়েছে। এছাড়া মানবিক বিষয়কে গুরুত্ব দিয়ে শরণার্থীদের পুনর্বাসনের মাধ্যমে তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার চেষ্টা করা হয়েছে।

‘পরিবারের সদস্যদের পুনর্মিলন শ্রেণীতে অতিরিক্ত তহবিল বরাদ্দ দেয়া হবে। এদেশে যাদের ভাই-বোন আছে সে সব আবেদনকারীর জন্য এক্সপ্রেস এন্ট্রি কর্মসূচীতে অতিরিক্ত পয়েন্ট দেয়া হবে যেন এদেশে আসা তাদের জন্য সহজ হয়’-জন ম্যাককালাম।

কারো স্ত্রী বা স্বামীকে এ দেশে আসার সাথে সাথে স্থায়ী বাসিন্দার মর্যাদা দেয়া হবে। বর্তমানে এক্ষেত্রে ২ বছর অপেক্ষা করার বিধান রয়েছে, একথা জানিয়ে ম্যাককালাম বলেন, পরিবারের নির্ভরশীল ছেলেমেয়েদের সর্বোচ্চ বয়স সীমা ১৯ থেকে বাড়িয়ে ২২ বছর করা হবে। এর ফলে আরো বেশী কানাডিয়ান নাগরিক এবং স্থায়ী বাসিন্দা তাদের ছেলেমেয়েদের সহজে এদেশে আনতে পারবেন।

‘পরিবারের সদস্যরা একসাথে থাকলে জীবন অনেক সহজ হয়। এর ফলে তারা আরও বেশী পরিশ্রম করতে উদ্বুদ্ধ হয় এবং এতে দেশও অর্থনৈতিকভাবে লাভবান হয়। অভিবাসীরা এদেশে যেন আরও সফলতা অর্জন করতে পারে বর্তমান সরকার সে লক্ষ্যেই কাজ করছে এবং দ্রুত ব্যবস্থা নিচ্ছে’-জন ম্যাককালাম।

কানাডা ২০১৪ সালে মোট ২৬০,৪০৪ জন নতুন স্থায়ী বাসিন্দা গ্রহণ করে। এর মধ্যে দক্ষ শ্রেণীতে ছিল ১৬৫,০৮৯ জন ও পারিবারিক শ্রেণীতে ৬৬,৬৬১ জন এবং শরণার্থী ছিল ২৮ হাজারের কিছু বেশী। চলতি বছরে মোট ৫৫,৮০০ শরণার্থী গ্রহণ করা হবে। এর মধ্যে ফেব্রুয়ারির শেষ নাগাদ ২৫,০০০ সিরিয়ার শরণার্থী ইতিমধ্যে দেশে পৌঁছেছে। সিরিয়া ছাড়াও কঙ্গো, কলম্বিয়া এবং ইরিত্রিয়া থেকে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক শরণার্থী গ্রহণ করার পরিকল্পনা নিয়েছে কানাডা।

-সিবিএনএ

এন/১০:২৩/১২ মার্চ

কানাডা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে