Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-০৯-২০১৬

ই-মেল দেখিনি, জানতাম না ওষুধটা নিষিদ্ধ হয়ে গিয়েছে

ই-মেল দেখিনি, জানতাম না ওষুধটা নিষিদ্ধ হয়ে গিয়েছে

স্ক্যারামেন্ট, ০৯ মার্চ- টেনিস সুন্দরী কলঙ্কিত! কোনও মিডিয়ার শিরোনাম— চ্যাম্পিয়ন টু চিট! জন ম্যাকেনরো এক বার বলেছিলেন, অন্য সব খেলার চেয়ে টেনিসে ডোপ পরীক্ষার চল বেশি বলে খেলাটা এত বিশুদ্ধ।

অনেকটাই তাই। মার্টিনা হিঙ্গিস বাদে তেমন কোনও সুপারস্টারের ডোপিং কেলেঙ্কারিতে জড়ানোর নজির মঙ্গলবার ভোররাত পর্যন্ত ছিল কই? টেনিস ট্যুরে পরিচিত নাম বলতে মারিন চিলিচ, রিচার্ড গাস্কে আর ভিক্টর ট্রইকির মতো দু’-তিন জন, যাঁরা ডোপিং-উত্তর নির্বাসন কাটিয়ে আবার সার্কিটে ফিরেও এসেছেন। আর সানিয়া মির্জার বিখ্যাত ডাবলস পার্টনার তো ডোপিংয়ের পর অবসর নিয়েও সেটা ভেঙে কোর্টে ফিরে আবার এক নম্বর বর্তমানে। মহাতারকা বলতে আন্দ্রে আগাসি— তবে সেটা তো অবসরের বহু বছর পর আত্মজীবনীতে এক বার ডোপিংয়ের কথা স্বীকার করেন তিনি! কিন্তু মারিয়া শারাপোভা যেন গোটা টেনিসদুনিয়াকে এক স্বীকারোক্তিতে নড়িয়ে দিয়েছেন!

লস অ্যাঞ্জেলিসে স্থানীয় সময় সোমবার সন্ধেয় রুশ টেনিস সুন্দরী সাংবাদিক সম্মেলন ডাকায় মিডিয়ার সিংহভাগের ধারণা ছিল, টানা চোটআঘাতের ধাক্কায় আঠাশেই হয়তো অকাল অবসরের ঘোষণা করতে চলেছেন তিনি। কিন্তু বিশাল হলে সম্পূর্ণ কালো আউটফিট-এ শারাপোভা যখন লিখিত বিবৃতি কাঁপা গলায় পড়ছেন, উপস্থিত মিডিয়া যেন বিদ্যুৎপৃষ্ঠ! টেনিস গ্ল্যামার, টেনিস রোম্যান্টিসিজমের মাথায় বাজ পড়ার উপক্রম তখন। শারাপোভার স্বীকারোক্তির পর বাজ পড়েছে তাঁর স্পনসরদের মাথায়ও। এরই মধ্যে তিনটে বিখ্যাত বহুজাতিক সংস্থা সরে দাঁড়িয়েছে শারাপোভার পাশ থেকে। যার জেরে বলা হচ্ছে, দশ কোটি ডলারের উপর ক্ষতি হয়ে গিয়েছে টেনিসের গ্ল্যামার গার্লের।

মাত্র সতেরোয় উইম্বলডন চ্যাম্পিয়ন হওয়া, পাঁচ গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়ী, ছাব্বিশেই কেরিয়ার গ্র্যান্ড স্ল্যাম পূর্ণ করে ফেলা শারাপোভার তখন ঐতিহাসিক স্বীকারোক্তি চলেছে, ‘‘আমি এ বছর অস্ট্রেলীয় ওপেনে ডোপ পরীক্ষায় উতরোতে পারিনি। ঘটনাটা মেলবোর্নে কোয়ার্টার ফাইনাল ম্যাচের ঠিক পরেই। সে দিন আমি ডোপ পরীক্ষায় মেল়়ডোনিয়াম, যার আর একটা নাম মাইলড্রোনেট, সেই ড্রাগ ব্যবহারে অভিযুক্ত হই। আমার ডোপ পরীক্ষায় উতরোতে না পারার জন্য সম্পূর্ণ দায়ী আমিই। এটা স্বীকার করেও আমার অবশ্য একটা কথা আছে। এই ড্রাগ আমি গত দশ বছর ধরে নিয়ে চলেছি। নিজের নানা শারীরিক সমস্যার কারণে। ডাক্তারের পরামর্শে। তাঁরা আমাকে বলেছিলেন, ওষুধটা আমার স্বাস্থ্য ভাল রাখবে। কিন্তু গত ২৬ জানুয়ারি মেলবোর্নে ডোপ পরীক্ষায় আমার যে মুত্র নমুনা নেওয়া হয়, তাতে ওই ওষুধ ‘নিষিদ্ধ’ আর ‘বেআইনি’ হিসেবে ধরা পড়েছে বলে ওয়াডা আর আন্তর্জাতিক টেনিস সংস্থা আমাকে গত ২ মার্চ এক চিঠিতে জানিয়েছে। আর তাতে ওয়াডার ৮.১.১ ডোপিং রুল ভাঙার অপরাধে আমাকে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত টেনিস সার্কিট থেকে সাময়িক সাসপেন্ড থাকতে হচ্ছে। সম্ভবত ১২ মার্চ থেকে সেটা চালু হবে আমার কেরিয়ারে। এটা সম্পূর্ণ আমারই ভুল, তবে সম্পূর্ণ অনিচ্ছাকৃত ভুল। আমি জানতাম না, এ বছরই জানুয়ারি থেকে ওয়াডার নিষিদ্ধ ড্রাগ লিস্টে এই ওযুধটাও ঢুকে গিয়েছে। ওয়াডা নাকি সমস্ত প্লেয়ারকে ই-মেলে সেটা জানিয়েছিল গত ২২ ডিসেম্বর। কিন্তু সত্যি বলতে, আমার ইনবক্স চেক করতে আমি ভুলে গিয়েছিলাম। এটাও আমার একটা অনিচ্ছাকৃত ভুল।’’

প্রশ্ন হচ্ছে, এই গ্রহে মেয়ে ক্রীড়াবিদদের মধ্যে সর্বোচ্চ ধনী শারাপোভার পেশাদার টেনিস জীবনের খুঁটিনাঁটি দেখার জন্য স্বভাবতই বিরাট টিম ম্যানেজমেন্ট আছে। তারাও জরুরি ই-মেল কেন দেখল না, সেই প্রশ্ন কিন্তু টেনিসমহলে উঠছে। শারাপোভা যতই দাবি করুন, তাঁকে স্বাস্থ্য ভাল থাকার জন্য চিকিৎসকেরা দশ বছর ধরে মেলডোনিয়াম খেয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিয়ে চলেছেন, কিন্তু এ দিনই ওই ড্রাগ যে সংস্থা বানায়, তাদের তরফে বলা হয়েছে, এর কোর্স হচ্ছে চার থেকে ছয় সপ্তাহ। তার বেশি নয়। পাশাপাশি ওয়াডার মতে, মেলডোনিয়াম প্লেয়ারের রক্ত চলাচল অস্বাভাবিক বাড়িয়ে তুলে অনৈতিক ভাবে তার পারফরম্যান্সের উন্নতিতে প্রভাব ফেলে। এমনও তথ্য পাওয়া গিয়েছে, ১৯৮০-তে আফগানিস্তান যুদ্ধে রুশ সেনাদের স্ট্যামিনা বাড়াতে দেদার মেলডোনিয়াম খাওয়ানো হত নিয়মিত।

স্বভাবতই শারাপোভা-কেলেঙ্কারি নিয়ে দু’রকমের প্রতিক্রিয়া পাওয়া যাচ্ছে টেনিসজগতে। মার্টিনা নাভ্রাতিল‌োভা যদি টুইট করে থাকেন, ‘মারিয়ার এটা অনিচ্ছাকৃত ভুল’, তা হলে জেনিফার কাপ্রিয়েতি আবার বলেছেন, ‘‘সব কিছু সত্যি প্রমাণিত হলে শারাপোভার সমস্ত খেতাব কেড়ে নেওয়া হোক।’’ বরিস বেকার আবার অবাক— ‘এখনও বিশ্বাস করতে পারছি না!’ টুইটার পোস্ট জকোভিচের কোচের।

শারাপোভা ডব্লিউটিএর গত আট টুর্নামেন্টে মাত্র তিনটে খেলেছেন। লাগাতার হাতের চোটের কারণ দেখিয়ে। স্বভাবতই প্রশ্ন, নির্বাসিত হলে কত দিনের জন্য হবেন তিনি? সম্ভবত এক বা দু’বছরের জন্য। যেমনটা মার্টিনা হিঙ্গিসের হয়েছিল। দেখার, নির্বাসনোত্তর হিঙ্গিস হয়ে উঠতে পারেন কি না শারাপোভা? না কি ‘সুগারপোভা’ নিঃশব্দে টেনিস থেকে মিলিয়ে যাবেন। জলে চিনি মিলিয়ে যাওয়ার মতোই! 

এফ/১০:৪৭/০৯ মার্চ

অন্যান্য

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে