Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (5 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-০৫-২০১৬

১৪ দলীয় জোট এখন থাকা না থাকা সমান

১৪ দলীয় জোট এখন থাকা না থাকা সমান

ঢাকা, ০৫ মার্চ- জাতীয় নির্বাচনের মতো দলীয় প্রতীক ও পরিচয়ে স্থানীয় সরকার নির্বাচন হলেও জোটগতভাবে অংশগ্রহণ না করায় আওয়ামী লীগের নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোটে ক্ষোভ বাড়ছে। শরিক রাজনৈতিক দলের কয়েকজন নেতা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেছেন, ১৪ দলীয় জোট এখন থাকা না থাকা সমান।

তবে পৃথকভাবে স্থানীয় সরকার নির্বাচনে অংশগ্রহণের পক্ষে যুক্তি তুলে ধরে আওয়ামী লীগ বলেছে, এতে স্ব স্ব দলগুলো তৃণমূলে শক্তিশালী হওয়ার সুযোগ পাবে। অপরদিকে শরিক রাজনৈতিক দলগুলোর দাবি, জোটগতভাবে স্থানীয় নির্বাচন না হওয়ায় তৃণমূলে ১৪ দলের ঐক্য মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। এক্ষেত্রে এখনই কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করা না হলে ভবিষ্যতে জাতীয় নির্বাচনে এর প্রভাব পড়বে।

এদিকে ১৪ দলীয় জোটের শরিক অন্তত দুটি রাজনৈতিক দল অভিযোগ করেছে, আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীর মনোনয়ন প্রত্যাহারে আওয়ামী লীগ চাপ সৃষ্টি করছে এবং তা অব্যাহত রয়েছে। নির্বাচনে অংশগ্রহণ পৃথক হলেও যাতে নির্বাচন সুষ্ঠু হয়, চাপ সৃষ্টি, প্রভাব বিস্তার ও বাধা দেয়া বন্ধ হয় সেই দাবিই করেছে তারা।

ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি জানান, জোটগতভাবে স্থানীয় সরকার নির্বাচন না হওয়ায় ১৪ দলীয় জোটের তৃণমূলে যে ঐক্য ছিল, তা চরমভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির এই ঐক্য ক্ষতিগ্রস্ত হওয়া কখনোই শুভ লক্ষণ নয়। ভবিষ্যতে জাতীয় নির্বাচনে যাতে এর প্রভাব না পড়ে সেজন্য এখনই কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে।

জাসদের সাধারণ সম্পাদক শরীফ নূরুল আম্বিয়া জানান, জাসদ পৃথকভাবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। তবে আমরা চাই নির্বাচনে গণতান্ত্রিক পরিবেশ বজায় থাকুক। আওয়ামী লীগের নেতাদের বিরুদ্ধে জাসদের প্রার্থীদের ওপর চাপ সৃষ্টি করার অভিযোগ করে তিনি বলেন, বিরোধী দল দুর্বল থাকায় ভারসাম্যহীন পরিবেশে প্রভাব বিস্তারের সন্দেহ থেকেই যাচ্ছে। শরিফ নূরুল আম্বিয়া আরো বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচন নিয়ে জোটের তৃণমূল ক্ষতিগ্রস্ত হলেও বৃহত্তর স্বার্থে বিশেষ করে যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ মোকাবিলার ক্ষেত্রে ১৪ দলীয় জোটের ঐক্য অটুট থাকবে।

ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরো সদস্য আনিসুর রহমান মল্লিক ইত্তেফাককে জানান, গত দুই মার্চ বাগেরহাটের এক ইউপিতে ওয়ার্কার্স পার্টির প্রার্থীকে চাপ সৃষ্টি করে প্রার্থিতা প্রত্যাহার করাতে বাধ্য করা হয়েছে। এই হলো ইউপি নির্বাচনের পরিবেশ। এ সময় তিনি প্রশ্ন তুলে বলেন, শরিকদের ওপর চাপ সৃষ্টি, এ কোন ধরনের ঐক্য?

এ প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল-আলম হানিফ জানান, স্থানীয় সরকার নির্বাচন প্রত্যেক দলের পৃথকভাবেই অংশগ্রহণ করা উচিত। এতে দলগুলো তৃণমূল শক্তিশালী করতে পারবে। এ কারণেই আওয়ামী লীগ পৌরসভা ও ইউপিতে এককভাবে অংশ নিচ্ছে।

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, বাধা দেয়া কিংবা চাপ সৃষ্টির রাজনীতি আওয়ামী লীগ করে না। স্থানীয়ভাবে কোথাও প্রভাব বিস্তারের ঘটনা ঘটলে সেটা স্পষ্টভাবে উপস্থাপন করলে তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে