Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৩-০৫-২০১৬

ফেসবুকে প্রতারণার অভিযোগে ১২ বিদেশী আটক

মিজানুর রহমান সোহেল


ফেসবুকে প্রতারণার অভিযোগে ১২ বিদেশী আটক

ঢাকা, ০৫ মার্চ- ফেসবুকসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে প্রতারণা করার অভিযোগে শুক্রবার ঢাকায় ১২ জন বিদেশী নাগরিকসহ ১৪ জনকে আটক করেছে র্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র্যাব)। র্যাবের কর্মকর্তারা বলছেন, এই গোষ্ঠীটি একটি আন্তর্জাতিক সাইবার প্রতারক চক্র হিসেবে কাজ করতো এবং ফেসবুকসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে মানুষের অর্থ হাতিয়ে নিত। খবর বিবিসির। 

গ্রেফতারকৃত আন্তর্জাতিক প্রতারকচক্রের সক্রিয় এ ১২ জন বিদেশী নাগরিক হলেন- নাইজিরিয়ার আইব্যা (৩০), কেসি (৩০), অ্যাডউইন (৩৫), ইমনোয়ার (৩৩), কসমডস আলকুজমুজিন ওকিউলিজি (৫১), জোসোয়া (২৭), ইব্রাহিম (২৭), বিসেন্স (২৯), কঙ্গোর জাসোনামা (৪১), ক্যামেরুনের ওসমান (২৯), সানজো (৩৬) ও আনট প্রিজো (৪২)। তাদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ মোবাইল, ল্যাপটপ, ট্যাব, ওয়াইফাই (রাউটার), ডিভিডি, পাওয়ার ব্যাংক, পাসপোর্ট এবং ডলারসহ বাংলাদেশী টাকা উদ্ধার করা হয়। এসব দ্রব্যাদি, ডলার এবং বাংলাদেশী টাকা তারা বিভিন্ন প্রতারণামূলক কাজে ব্যবহার করত। তাদের এখন জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। 

শুক্রবার বিকেলে র্যাব-১ অফিসে তাদের সাংবাদিকদের সামনে হাজির করা হয়। এ সময় এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় এই চক্রের সব অজানা কাহিনী। এদের সম্পর্কে অনুসন্ধানে জানা যায়, আর্থিকভাবে সচ্ছল তরণ-তরণীদের অভিনব পন্থায় বন্ধুত্ব বা প্রেমের ফাঁদে ফেলে টাকা পয়সা আত্মসাত করাই ছিল চক্রের টার্গেট। এ প্রক্রিয়ায় অনায়াসে বিভিন্ন কৌশলের পরিবর্তন করা হয় যাতে করে বিশ্বাসযোগ্য করা যায়।

র্যাব জানায়, কঙ্গো, নাইজিরিয়া, ক্যামেরন এবং বাংলাদেশী দ্ইু নাগরিকসহ প্রতারক চক্র (বাড়ি নং-৯, রোড নং-১৫, সেক্টর নং-১৪ ) উত্তরায় বসে তাদের প্রতারণা কার্যক্রম যৌথভাবে পরিচালনা করত। বাংলাদেশী দুজনের মাধ্যমে এ চক্রটি টার্গেট খুঁজতে থাকে। পরে যাচাই-বাছাইয়ের মাধ্যমে তাদের ফেসবুক আইডি বের করে তাদের সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে তোলে। এসব ক্ষেত্রে তারা নিজেদের খুবই সুদর্শন এবং আমেরিকা অথবা ইউরোপের নাগরিক হিসেবে পরিচয় দেন। বন্ধুত্ব গাঢ় হওয়ার পর প্রেমের অভিনয় এবং বিভিন্ন উপহার প্রেরণের মাধ্যমে সম্পর্কটাকে বিশ্বাসযোগ্য করে তোলার পর এক পর্যায়ে বিপুল পরিমাণ অর্থ প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেয়।

খুলনার একটি বেসরকারী প্রতিষ্ঠানের এক কর্মকর্তার সঙ্গে ফেসবুকের মাধ্যমে পরিচয় ঘটে ব্রিটিশ নাগরিক স্কট মুরের। ফেসবুকেই তাদের ঘনিষ্ঠতা ও বিশ্বস্ততা গড়ে ওঠে। হঠাৎ সাইফুল নামের একজন সালেহাকে মোবাইল ফোনে জানান- লন্ডন থেকে স্কট মুর বেশ কিছু উপহার সামগ্রীর একটি পার্সেল পাঠিয়েছেন। সেটা হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে খালাস করতে ৬০ হাজার টাকা লাগবে। সালেহা কিছুটা সন্দেহ সংশয়ের মাঝেও টাকা পাঠিয়ে দেন সিটি ব্যাংকের একটি এ্যাকাউন্টে। তারপর তিনি শাহজালাল বিমানবন্দরে গিয়ে দেখেন কোন পার্সেল আসেনি। সবই প্রতারণা। বাধ্য হয়েই ছুটে যান পাশের র্যাব-১ অফিসে। রহস্যটা উন্মোচন হয় তখনই। সালেহার মতো এমন অনেক নিরীহ নারী-পুরুষ ফেসবুক প্রতারণার শিকার হওয়ার কাহিনী বেরিয়ে আসে। এ ঘটনার সূত্র ধরে বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর উত্তরাসহ বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে র্যাব একের পর এক ১৪ জন দেশী-বিদেশী প্রতারককে আটক করে।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে