Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০২-২৯-২০১৬

খালেদাসহ ৩৮ জনের চার্জশিট গ্রহণ শুনানি ৩০ মার্চ

খালেদাসহ ৩৮ জনের চার্জশিট গ্রহণ শুনানি ৩০ মার্চ

ঢাকা, ২৯৮ ফেব্রুয়ারী- বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে যাত্রাবাড়ীতে বাসে পেট্রোলবোমায় মানুষ পুড়িয়ে হত্যায় বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় চার্জশিট গ্রহণের বিষয়ে আগামী ৩০ মার্চ শুনানি হবে।

ঢাকা মহানগর দায়রা জজ মো. কামরুল হোসেন মোল্লা রোববার চার্জশিটের গ্রহণযোগ্যতার ওপর শুনানির দিন ধার্য থাকলেও আসামিপক্ষের সময়ের আবেদন গ্রহণ করে তা পিছিয়ে এই নতুন দিন ধার্য করেন। এদিকে সিএমএম আদালতে একই ঘটনায় হত্যা এবং বিস্ফোরক আইনের দুই মামলায় চার্জশিট গ্রহণের শুনানির দিন ২ মার্চ ধার্য রয়েছে।

মামলাটিতে গত ৬ মে খালেদা জিয়াসহ ৩৮ জনের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধি (হত্যা) এবং বিস্ফোরক আইনে দু’টি এবং গত ১৯ মার্চ বিশেষ ক্ষমতা আইনের মামলায় চার্জশিট দাখিল করেন ডিবি পুলিশের এসআই বশির আহমেদ। চার্জশিটের ৩৮ আসামির মধ্যে খালেদা জিয়াসহ ৩১ জনকে পলাতক দেখানো হয়েছে। তাই চার্জশিট যেদিন গৃহীত হবে সেদিনই খালেদা জিয়াসহ পলাতক ৩১ জনের বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি হবে।

চার্জশিটে খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি হিসেবে ১ নম্বর রাখা হয়েছে। উল্লেখযোগ্য অপর আসামিদের মধ্যে রয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য এমকে আনোয়ার, খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন, চেয়ারপারসনের তথ্য উপদেষ্টা শওকত মাহমুদ, যুগ্ম-মহাসচিব সালাউদ্দিন আহমেদ, যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, বরকত উল্লাহ বুলু, আমান উল্লাহ আমান, বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, খালেদা জিয়ার প্রেস সচিব মারুফ কামাল খান সোহেল, বিএনপির ঢাকা মহানগরের সদস্য সচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল, স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, ছাত্রদলের সাবেক সভাপতি ও বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আজিজুল বারী হেলাল, কাইয়্যুম কমিশনার, লতিফ কমিশনার, মীর আবু জাফর শামসুদ্দিন দিদার, যাত্রবাড়ী এলাকার সাবেক এমপি সালাউদ্দিন আহমেদ, তার ছেলে তানভির আহমেদ রবিন, নবী উল্লাহ নবী, সেলিম ভূইয়া।

উল্লেখ্য, গত ২৩ জানুয়ারি রাত ৯টায় যাত্রাবাড়ীর ডেমরা রোর্ডের মাতুয়াইল কাউন্সিলর অফিসের সামনে গ্লোরী পরিবহনের একটি যাত্রীবাহী বাসে পেট্রোলবোমা হামলায় দগ্ধ হন কমপক্ষে ৩১ জন। যাদের মধ্যে ঢাকা মেডিকেলের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসারত অবস্থায় নূর আলম নামে একজন মারা যান।

ঘটনার পর পরিককল্পনাকারী হিসেবে বিএনপির কেন্দ্রীয় ১৮ নেতাসহ যাত্রবাড়ীর ছাত্রদল শ্রমিকদলসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের ৫০ নেতাকর্মীর নাম উল্লেখ করে মামলাটি করা হয়েছিল। বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার নাম এজাহরে আসামির তালিকায় উল্লেখ করা না থাকালেও এজাহারের বক্তব্যের মধ্যে হুকুমদাতা হিসেবে তার নাম উল্লেখ করা হয়েছিল।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে