Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০২-২৪-২০১৬

ম্যাককালামের আবেগঘন বিদায়

ম্যাককালামের আবেগঘন বিদায়

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ক্যারিয়ারটা ১৪ বছরের। নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের বোঝাটা দীর্ঘদিন নিজের কাঁধে বহন করেছেন। জীবনের সেই ঘটনাবহুল সময়ের দিকে তাকিয়ে আবেগাপ্লুত হলেন ব্রেন্ডন ম্যাককালাম। ক্রাইস্টচার্চে উপস্থিত দর্শকদের হৃদয়েও দাগ কাটলেন। ম্যাচ শেষে মাত্র দুই মিনিটের বক্তব্যে পুরো ক্রিকেট ক্যারিয়ারের সারসংক্ষেপ টানলেন। ধন্যবাদ জানালেন সংশ্লিষ্ট সবাইকে। এভাবেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ম্যাককালাম যুগের সমাপ্তি হল।

অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাককালামের বিদায়ী সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হয়েছে নিউজিল্যান্ড। এই সিরিজেই শততম টেস্ট খেলার মাইলফলক ছূঁয়েছেন ম্যাককালাম। আর ১০১তম ম্যাচে এসে ইতি টানলেন আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারেরও। বিদায়ী ম্যাচের প্রথম ইনিংসে ৫৪ বলে টেস্টে দ্রুততম সেঞ্চুরির রেকর্ডও করে গেছেন। তবে সিরিজটা হারতে হয়েছে অস্ট্রেলিয়ার কাছে। তাতেও অবশ্য খুব বেশি আঁফসোস নেই সমর্থকদের। বরং আবেগগণ পরিবেশেই তাকে বিদায় দেয়া হয়েছে ক্রাইশ্চার্চ থেকে।


বিদায় লগ্নে সপরিবারে ব্রেন্ডন ম্যাককালাম

বুধবার ম্যাচ শেষে বিদায়ী বক্তব্যে ম্যাককালাম বলেন, ‘যারা বিগত বছরগুলোতে আমাকে সমর্থন দিয়ে আসছেন তাদের ধন্যবাদ জানাই। আমরা চেষ্টা করেছি পূর্ণ আবেগ নিয়েই দেশকে প্রতিনিধিত্ব করতে। হাসিমুখে কিছু করার চেষ্টা করেছি।’

‘ধন্যবাদ জানাই নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে যারা ছিলেন তাদের সবাইকে। আমার টিমকেও বিশেষভাবে ধন্যবাদ। শেষ কয়েক বছর আমরা দারুণ কিছু অর্জন করেছি। আমরা কিছু ম্যাচ হেরেছি ঠিক। তবে আমরা আবারো ফিরেছি পূর্ণ প্রচেষ্টা দিয়েই। নিউজিল্যান্ড দলের হয়ে খেলে যে সময় কাটিয়েছি তা সাড়া জীবন স্মরণীয় হয়ে থাকবে।’-যোগ করেন কিউই অধিনায়ক।

সবশেষ পরিবারের প্রতি নিজের অনুভূতি ব্যক্ত করতে গিয়ে আবেগাপ্লুত হয়ে পড়েন ম্যাককালাম। আবেগে আপ্লুত করেন পুরো স্টেডিয়ামে উপস্থিত দর্শকদের। তিনি বলেন, ‘সবশেষ আমি আমার পরিবারকে ধন্যবাদ দিতে চাই। ক্রিকেটার হিসেবে বেশিরভাগ সময় তাদের ছেড়ে থাকতে হয়েছে। পরিবারের সমর্থন ছাড়া যা সম্ভব ছিল না। আমি বলেছিলাম আবার তোমাদের মাঝে ফিরে আসব, এবার তাই করতে যাচ্ছি। এসেছিলাম তরুণ বয়সে। এখন ফিরে যাচ্ছি ৩৪ বছর বয়সে স্ত্রী ও তিন সন্তানসহ।’


এভাবে আর কখনোই টিম মিটিংয়ে দেখা যাবে না তাকে

উল্লেখ্য, ম্যাককালাম টেস্ট ক্রিকেটে যাত্রা শুরু করেন ২০০৪ সালে। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে হ্যামিল্টনে। ১২ বছরের টেস্ট ক্যারিয়ারে ১০১ ম্যাচ থেকে সংগ্রহ করেন ৬৪৫৩ রান। ১২ সেঞ্চুরি ও ৩১ হাফসেঞ্চুরির ক্যারিয়ারে তার সর্বোচ্চ সংগ্রহ ৩০২। রান তোলার গড় প্রায় ৩৯। এছাড়া ২৬০ ওয়ানডে ম্যাচ খেলে করেন ৬০৮৩ রান। যেখানে রয়েছে ৫ সেঞ্চুরি ও ৩২টি হাফ সেঞ্চুরি। এছাড়া ৭১ টি২০ ম্যাচ খেলে ২১৪০ রান করেন। যেখানে তার দুটি সেঞ্চুরি ও ১৩টি হাফ সেঞ্চুরির ইনিংস রয়েছে।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে