Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English
» নাসিরপুরের আস্তানায় ৭-৮ জঙ্গির ছিন্নভিন্ন মরদেহ **** ইমার্জিং কাপে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ       

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০২-২৪-২০১৬

পিএসএলের শিরোপা ইসলামাবাদের

পিএসএলের শিরোপা ইসলামাবাদের
ফাইনাল ম্যাচের আগে বর্ণিল আতশবাজি

আবুধাবি, ২৪ ফেব্রুয়ারী- স্মিথ-হাডিনের ব্যাটিং ঝড়ে পাকিস্তান সুপার লিগের প্রথম আসরের শিরোপা জিতেছে ইসলামাবাদ ইউনাইটেড। দুবাইয়ের ইন্টারন্যাশনাল স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার রাতে অনুষ্ঠিত ফাইনালে ৬ উইকেটে হারিয়েছে তারা কোয়েটা গ্লাডিয়েটর্সকে। টসে হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে সাত উইকেটে ১৭৪ রান করে গ্লাডিয়েটর্স। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৮.৪ ওভারে মাত্র ৪ উইকেট হারিয়ে জয়ের বন্দরে পৌছায় ইসলামাবাদ। 

১৭৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরু থেকেই বোলারদের উপর চড়াও হয়ে খেলতে শুরু করেন ইসলামাবাদের ক্যারিবীয় ওপেনার ডুয়াইন স্মিথ। রানের চাকা বলতে গেলে তিনি একাই সচল রাখেন। দলীয় ৫৪ রানে পড়ে প্রথম উইকেট। ১১ বলে ১৩ রান করে নাথান ম্যাককালামের বলে বোল্ড হন ওপেনার সারজিল খান।


ডুয়াইন স্মিথ

তবে পরে ব্রাড হাডিনকে সঙ্গে নিয়ে দলের জয় ত্বরান্বিত করেন স্মিথ। দ্বিতীয় এই উইকেট জুটিতে তারা সংগ্রহ করে ৮৫ রান। ৫১ বলে ৭৩ রান করে সাজঘরে ফেরেন স্মিথ। এর মধ্যে ছিল সাতটি চার ও চারটি ছক্কা।  ইসলামাবাদের দলীয় স্কোর তখন ১৩৯। এরপর রাসেল ও লতিফ দ্রুত আউট হলেও জয়ের পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়নি তা। বরং ৩৯ বলে ৬১ রানে অপরাজিত থেকে দলের জয় নিশ্চিত করে মাঠ ছাড়েন ব্রাড হাডিন। যদিও জয়সূচক একমাত্র রানটি করেছেন ইসলামাবাদের অধিনায়ক মিসবাহ উল হক।

এর আগে টসে হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে শূন্য রানেই প্রথম উইকেট হারায় কোয়েটা গ্লাডিয়েটর্স। তিন বলে কোন রান না করেই সাজঘরে ফেরেন ওপেনার বিসমিল্লাহ খান। তবে শুরুর ধাক্কা সামলান শেহজাদ ও পিটারসেন। বেশীক্ষণ টিকতে পারেননি পিটারসেনও। ১৮ বলে ১৮ রান করে তিনি রাসেলের শিকার।


উইকেট নেয়ার আনন্দে আন্দ্রে রাসেল

তবে তৃতীয় উইকেট জুটিতেই মূলত রান আসে গ্লাডিয়েটর্সের। শেহজাদ-সাঙ্গাকারা মিলে ছোটখাট ঝড় বইয়ে দেন বোলারদের উপর। এই জুটি থেকে আসে গুরুত্বপূর্ণ ৮৭ রান। ৩২ বলে ৫৫ রানের টর্নেডো ইনিংস খেলে রাসেলের বলে আউট হন সাঙ্গাকারা। তার ইনিংসে ছিল সাতটি চার ও দুটি চারের মার। শেহজাদ করেন ইনিংস সর্বোচ্চ ৬৪ রান। ৩৯ বলে শেহজাদের এই ইনিংসে ছিল নয়টি চার ও একটি ছক্কার মার।

এই দুজনের বিদায়ের পর গ্লাডিয়েটর্সের আর কেউ বেশী রান করতে পারেনি। ইলিয়ট ৯ বলে ১২ রানে অপরাজিত ও ১০ বলে ১৩ রান করেন আনোয়ার আলী। অধিনায়ক সরফরাজ ছিলেন ব্যর্থ। করেছেন চার বলে মাত্র তিন রান। ইসলামাবাদের হয়ে আন্দ্রে রাসেল তিনটি, মোহাম্মদ ইরফান দুটি, বদ্রি ও সামি নেন একটি করে উইকেট।

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে