Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০২-২৪-২০১৬

উদ্ভট স্থাপনা নিষিদ্ধ করলো চীন

আরাফাত পারভেজ


উদ্ভট স্থাপনা নিষিদ্ধ করলো চীন

ঢাকা, ২৪ ফেব্রুয়ারী- স্থাপত্যকলা ব্যবহার করে বিচিত্র ভবন নির্মাণ করা আধুনিক বিশ্বের একটা অভ্যাসে দাঁড়িয়ে গেছে। তবে এই অতি আধুনিক বা অনেক ক্ষেত্রে উদ্ভট স্থাপত্যগুলো আধুনিক সভ্যতার নিদর্শন হিসেবেও পরিচিত। এ ধরনের নকশা শিল্পের অগ্রগতিতে মানুষের কলাকৌশলের পারদর্শিতা নিয়ে একধরনের চমক ধরিয়ে দেয়। নতুন নতুন নকশায় মুগ্ধতা যেমন আছে, তেমনি আবার বিরক্ত হন অনেকে। চীনা সরকারও এই জাতীয় উদ্ভট সুন্দর স্থাপত্য ভবনের উপর বিরক্ত। 

এই বিরক্তির কারণ শুধু এই না যে, প্রকৌশলীরা কিম্ভূতকিমাকার ভবন তৈরি করছেন। বরং অনেক ক্ষেত্রে চীনা প্রকৌশলীরা যে পাশ্চাত্য সংস্কৃতি ও দর্শন অনুসরণ সেই মত নকশা করছেন এবং চীনের সাথে খাপ খাওয়ানোর চেষ্টা করছেন সেটাও চীন সরকারের বিরক্তির আরেকটা বড় কারণ। ঠিক এই কারণেই তারা এরকম অনেক অদ্ভুত ভবনের কড়া সমালোচনা করেছেন। শুধু সমালোচনা করেই ছাড়েননি, এবার তারা আইন করে নিষিদ্ধ করেছেন এই জাতীয় ভবন। 

ব্যাপক শিল্পায়নের সাথে সাথে বিগত এক দশকে চীনে গড়ে উঠেছে অত্যাধুনিক সব ভবন। প্রকৌশলীদের কল্পনার দৌড়ের বিচিত্রতা ফুটে উঠেছে ‘চায়ের পেয়ালা’ কিংবা ‘প্যান্ট’ আকৃতির ভবনের নকশায়। 

এই জাতীয় নকশার ভবন চীন সরকার আর অনুমতি দেবেনা। নতুন আইন অনুসারে এখনকার ভবনগুলো হতে হবে দৃষ্টি নান্দনিক, পরিবেশ বান্ধব এবং অর্থ সাশ্রয়ী। অন্যকথায় বলতে গেলে এখনকার ভবন হতে হবে সরকারের মন মত। চীনে ঠিক কি ধরনের ভবন ইতিমধ্যে নির্মিত হয়েছে তার কিছু নমুনা নিচে তুলে ধরা হলো : 


দ্যা গুয়াঞ্জু সার্কেল নামের এই ভবনটি নকশা করেছিলেন ইতালীয় স্থপতি জোসেফ ডি প্যাসকেল। ভবনটি উদ্বোধন করা হয় ২০১৩ সালে। এটা বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু বৃত্তাকৃতির ভবন, উচ্চতা ১৩৮ মিটার।

চায়ের পেয়ালা আকৃতির এই ভবনটি চীনের জিয়াংজু প্রদেশে অবস্থিত। এটা প্রথমে একটা ব্যবসা কেন্দ্র হিসেবে ব্যবহার করার কথা থাকলেও, বর্তমানে এটি প্রদর্শনী কেন্দ্র।

চীনের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন চ্যানেল সিসিটিভির প্রধান কার্যালয় হিসেবে পরিচিত এই ভবনটিকে অনেকে ডাকেন ‘বিগ প্যান্টস’ বলে।

চীনের রাষ্ট্রীয় সংবাদপত্র পিপলস ডেইলির এই ভবনটি দেখতে অনেকটা পুরুষাঙ্গের মত। বেইজিংয়ে অবস্থিত ১৫০ মিটার লম্বা এই ভবন সিসিটিভি ভবনের খুব কাছেই অবস্থিত।

দ্যা ফনিক্স টাওয়ার হিসেবে খ্যাত এই ভবনটি সমাপ্ত হবে আর কয়েক বছরের মধ্যেই। ভবনের বাইরে লাগানো থাকবে সৌর বিদ্যুতের প্যানেল। লম্বা হবে ১ কিমি।

দ্যা গেট অব দ্যা ওরিয়েন্ট হিসেবে পরিচিত জিয়াংজু প্রদেশের এই ভবনটি নির্মিত হয়েছিল ২০১৪ সালে। সিসিটিভি ভবনের মত এটাও প্যান্ট আকৃতির।

দ্যা সানরাইজ ইস্ট কেমপিনস্কি হোটেল বেইজিংয়ের ইয়াঙ্কি লেকের পাড়ে অবস্থিত।

নাটকীয় এবং উপবৃত্তাকার দেখতে আরেকটি হোটেল হচ্ছে শেরাটন হট স্প্রিং রিসোর্ট। এটি তাইহু লেকের পাড়ে অবস্থিত।

দ্যা সিটি লাইব্রেরী এবং দ্যা ওরডস মিউজিয়াম অবস্থিত মঙ্গলীয় শহরে। এই শহরের জনসংখ্যা কম, কিন্তু স্থাপত্যে আধুনিক।

এশিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে