Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০২-২৩-২০১৬

মধ্যপ্রাচ্যে অস্ত্র আমদানির শীর্ষে সৌদি

মধ্যপ্রাচ্যে অস্ত্র আমদানির শীর্ষে সৌদি

রিয়াদ, ২৩ ফেব্রুয়ারী- মধ্যপ্রাচ্যে গত পাঁচ বছরে অস্ত্র আমদানি নাটকীয়ভাবে বেড়ে গেছে। বলা বাহুল্য ওই অঞ্চলে অস্ত্র আমদানির শীর্ষে রয়েছে সৌদি আরব। তবে অস্ত্র আমদানিতে বিশ্বের সেরা দেশ হচ্ছে ভারত। সুইডেনের ‘দ্যা স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্চ ইনস্টিটিউট সোমবার এ তথ্য জানিয়েছে।

২০১১ থেকে ২০১৫ সালের মধ্যে বিশ্বে অস্ত্র আমদানিতে সেরা পাঁচটি দেশ হচ্ছে যথাক্রমে ভারত, সৌদি আরব, চীন, সংযুক্ত আরব আমিরাত ও অস্ট্রেলিয়া। এ সময়ে ভারতের ১৪, সৌদি আরবের ৮.৫, চীনের ৪.৭৭, আরব আমিরাতে ৪.৬ ও অস্টেলিয়ার অস্ত্র কেনার প্রবণতা শতকরা ৩.৬ ভাগ বেড়েছে।

গত পাঁচ বছরে (২০১১-১৫ সাল) সৌদির অস্ত্র আমদানির পরিমাণ এর আগের পাঁচ বছরের (২০০৬-১০ সাল) তুলনায় ২৭৫ ভাগ বেড়েছে। গত পাঁচ বছরে গোটা মধ্যপ্রাচ্যেই অস্ত্র আমদানি ৬১ ভাগ বেড়েছে। ওই একই সময়ে ইউরোপের দেশগুলোতে অস্ত্র আমদানির পরিমাণ হ্রাস পেয়েছে ৪১ ভাগ। রিয়াদ সবচেয়ে বেশি অস্ত্র কিনেছে যুক্তরাজ্যের কাছ থেকে। 


সে দেশের অস্ত্র প্রস্তুতকারক কোম্পানিগুলো ২০১০ সালের পর  থেকে সৌদি আরবের কাছে ৫ দশমিক ৬ বিলিয়ন ইউরো মূল্যের অস্ত্র বিক্রি করেছে। এছাড়া গত এক বছর আগে ইয়েমেনে সৌদি নেতৃত্বাধীন জোটের বিমান হামলা শুরু হওয়ার পর শতাধিক নতুন রপ্তানি লাইসেন্স অনুমোদন করেছে ব্রিটিশ সরকার।

স্টকহোম ইন্টারন্যাশনাল পিস রিসার্স ইনস্টিটিউটের (এসআইপিআরআই) অস্ত্র ও সামরিক সরঞ্জামাদি কর্মসূচির উর্ধ্বতন গবেষক পিটার উয়েজম্যান এ সম্পর্কে বলেছেন,‘ইয়েমেনে সৌদি আরব যেসব অস্ত্র ব্যবহার করছে তার বেশিরভাগই যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট ও ইউরোপের দেশগুলো থেকে। তেলের দাম কমে যাওয়ার পরও মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে অস্ত্র আমদানির প্রবাহ বহাল রয়েছে।’ গত পাঁচ মেয়াদের চুক্তির আওতায় তারা এসব অস্ত্র ক্রয় করছে বলেও তিনি জানিয়েছেন।

মধ্যপ্রাচ্যে অস্ত্র আমদানিতে সৌদি আরবের পরই রয়েছে কাতার। গত পাঁচ বছরে তাদের অস্ত্র আমদানির পরিমাণ বেড়েছে শতকরা ২৭৯ ভাগ। তৃতীয় স্থানে রয়েছে সংযুক্ত আরব আমিরাত, তাদের আমদানি বেড়েছে শতকরা ৩৫ ভাগ। আর মিশরের অস্ত্র আমদানি বেড়েছে ৩৭ ভাগ।

এদের সঙ্গে তুলনা করলে ইরানের অস্ত্র আমদানির পরিমাণ ‘খুবই অল্প পরিমাণে’ বেড়েছে। অস্ত্র আমদানির ওপর নিষেধাজ্ঞা থাকার কারণেই যে তারা পিছিয়ে পড়েছে তা বলাই বাহুল্য। তবে সম্প্রতি বিশ্বের পাঁচ শক্তিধর দেশের সঙ্গে পরমাণ চুক্তি স্বাক্ষরের পর তারাও নতুন অস্ত্র কেনায় আগ্রহী হয়ে ওঠেছে।


অস্ত্র আমদানি বেড়েছে এশিয়া দেশগুলোতেও। গত পাঁচ বছরে ভিয়েতনামের অস্ত্র আমদানি বেড়েছে শতকরা ৬৯৯ ভাগ। তারা মূলত রাশিয়ার কাছ থেকেই অস্ত্র কিনে থাকে। চীনের সঙ্গে দক্ষিণ চীন সাগরের অধিকার নিয়ে বিতর্কের কারণেই দেশটির অস্ত্র আমদানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়া চীনের অস্ত্র আমদানি বেড়েছে ৮৮ ভাগ। একই হারে বেড়েছে পাকিস্তানের অস্ত্র আমদানির প্রবণতাও। আর বিশ্বের সেরা পাঁচটি অস্ত্র রপ্তানিকারক দেশ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র, রাশিয়া, চীন, ফ্রান্স ও জার্মানির নাম উল্লেখ করেছে এসআইপিআরআই।

মধ্যপ্রাচ্য

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে