Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০২-২২-২০১৬

৫০০ নয়, রিচার্জ সীমা বাড়ছে ১০ গুণ

হাসনাইন ইমতিয়াজ


৫০০ নয়, রিচার্জ সীমা বাড়ছে ১০ গুণ

ঢাকা, ২২ ফেব্রুয়ারী- মোবাইল ফোনে সর্বোচ্চ রিচার্জ সীমা নির্ধারণ করার পর বাস্তবায়নের আগেই সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করছে সরকার। এবার বিভিন্ন বিষয় বিবেচনায় রিচার্জ সীমা আগের নির্ধারিত সীমার চেয়ে ১০ গুণ বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিতে যাচ্ছে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ। শিগগিরই এ সংক্রান্ত চিঠি বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনকে (বিটিআরসি) পাঠানো হবে বলে মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে।

এর আগে গত ২৮ ডিসেম্বর এক নির্দেশনায় মোবাইল ফোনের প্রি-পেইড সংযোগে সর্বোচ্চ ৫০০ টাকা রিচার্জের সীমা বেঁধে দিয়েছিল কমিশন। এসময় বলা হয় অবৈধ ভিওআইপি বন্ধে এ নির্দেশনা। কিন্তু অনেকে ইন্টারনেট প্যাকেজসহ বিভিন্ন সেবা নিতে অনেক বেশি খরচের প্রয়োজন থাকায় অপরেটররা পুনর্বিবেচনার দাবি জানায়। এর পরিপ্রেক্ষিতে বিটিআরসির এক সপ্তাহে রিচার্জ সীমা সর্বোচ্চ ২ হাজার টাকা নির্ধারণের বিষয়ে নির্দেশনা চেয়ে গত মাসের প্রথম দিকে মন্ত্রণালয়ে চিঠি পাঠায়।

এতে বলা হয়, রিচার্জ সীমা ৫০০ টাকা করলেও অবৈধ ভিওআইপি বন্ধ করা হবে না। মোবাইল অপারেটরের সংগঠন অ্যামটবের বরাত দিয়ে বিটিআরসি জানায়, অনেক ইন্টারনেট প্যাকেজ ৫০০ টাকার বেশি। এছাড়া মোবাইলে গ্যস-বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ, ট্রেনের টিকিট কাটা ইত্যাদি পরিষেবায় ব্যাঘাত ঘটবে।

অথচ অবৈধ ভিওআইপির কাজে ব্যবহৃত সিমের মাত্র শূন্য দশমিক তিন শতাংশ ৫০০ টাকার বেশি রিচার্জ করা হয়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে সবকিছু বিবেচনা করে মন্ত্রণালয় একটি নতুন প্রস্তাবনা প্রস্তুত করেছে বলে জানা গেছে। সূত্র জানায়, প্রস্তাবনা অনুসারে একবারে পাঁচ হাজার টাকার বেশি রিচার্জ করা যাবে না। দ্বিতীয়ত এক বা একাধিক রিচার্জে সপ্তাহে সর্বোচ্চ দুই হাজার টাকা রিচার্জ করা যাবে। ব্যালেন্স ট্রান্সফারের একটি সীমার কথাও এখানে বলা থাকবে। আর পোস্টপেইড গ্রাহকদের জন্য বিটিআরসির পরামর্শ অনুযায়ী মাসিক বিলের হিসাব অনুসারে টাকা  রিচার্জের কথা বলা হয়েছে।

গত ২৮ ডিসেম্বরের নির্দেশনা অনুসারে, দিনে ব্যালেন্স ট্রান্সফারে সীমা নির্ধারণ করা হয় ৩০০ টাকা। যা আগে ছিল ১০০ টাকা। সর্বশেষ ২০০৮ সালের এক নির্দেশনায় একবারে সর্বোচ্চ এক হাজার টাকা রিচার্জ সীমা নির্ধারণ করা হয়েছিল। তবে তখন সময় নির্ধারণ করা ছিল না।

বিটিআরসি’র হিসাব অনুসারে, গত জানুয়ারি দেশে সক্রিয় মোবাইলফোন সিমের সংখ্যা ১৩ কোটি ১৯ লাখ ৫৬ হাজার। এর মধ্যে প্রি-পেইড গ্রাহকই ৯৮ শতাংশের বেশি বলে জানা গেছে। এদিকে জানুয়ারি পর্যন্ত দেশে মোট ইন্টারনেট গ্রাহক ৫ কোটি ৬১ লাখ ৬৭ হাজার।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে