Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English
» নাসিরপুরের আস্তানায় ৭-৮ জঙ্গির ছিন্নভিন্ন মরদেহ **** ইমার্জিং কাপে গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ       

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০২-১৮-২০১৬

এশিয়া কাপে টাইগারদের দুশ্চিন্তার নাম ব্যাটিং

এশিয়া কাপে টাইগারদের দুশ্চিন্তার নাম ব্যাটিং

ঢাকা, ১৮ ফেব্রুয়ারী- বিসিবির এক বড় কর্তা সংবাদ মাধ্যমের সঙ্গে আলাপচারিতায় ব্যস্ত ছিলেন। তার আলোচনার মূল বিষয় এশিয়া কাপে বাংলাদেশের অবস্থান নিয়ে। তার কথায় ব্যাটিং নিয়ে স্পষ্ট দুশ্চিন্তার ছাপ। বলেই ফেললেন- ‘সাকিব ফর্মে নেই, মুশফিক খেলারই সুযোগ পাচ্ছে না পিএসএল-এ।

তামিম ইকবাল দারুণ ফর্মে থাকলেও ওতো এশিয়া কাপে খেলতে পারবে না। তাই ব্যাটিং নিয়ে একটু চিন্তা লাগছে!’ চিন্তা আড়ালে-আবডালে অনেকের মাঝেই দেখা গেল। তবুও ভরসা রাখতে হবে সবার উপর। সেই আত্মবিশ্বাসের কথা শোনালেন নির্বাচক প্যানেলের অন্যতম সদস্য মিনহাজুল আবেদীন নান্নু।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ শেষে খুলনায় টানা অনুশীলন করে মাশরাফি বাহিনী। সেখান থেকে ঢাকায় ফিরে চলে যায় চট্টগ্রামে। সাত দিনের নিবিড় অনুশীলন শেষে মঙ্গলবার রাতে ঢাকায় ফিরেছে জাতীয় দল। ২০শে তারিখ থেকে ঢাকায় শুরু হবে এশিয়া কাপ সামনে রেখে অনুশীলন।

চট্টগ্রামে অনুশীলন চলাকালে দলের সঙ্গে সর্বক্ষণ উপস্থিত থাকা মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, ‘দল বেশ ভালো অনুশীলন করেছে চট্টগ্রামে। অনুশীলনের ধরনটি ছিল পরিস্থিতি অনুসারে। যেমন প্রথম পাঁচ ওভারে কেমন হবে? দ্বিতীয় পাঁচ ওভারে কেমন হবে। আমি মনে করি এ পদ্ধতিতে অনুশীলনটা দলের জন্য বেশ কার্যকর হবে।’

পিসিএল-এ খেলছেন বাংলাদেশের তিন তারকা তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান ও মুশফিকুর রহীম। তামিম দারুণ ফর্মে থাকলেও সাকিব ৭ ম্যাচে করেছেন মাত্র ১১৫, এর মধ্যে সর্বোচ্চ ৫১ রান এসেছে তার ব্যাট থেকে। বল হাতে উইকেট পেয়েছেন মাত্র ৩টি। অন্যদিকে মুশফিকুর রহীম ৩ ম্যাচে  করেছেন ৪৯ রান। এতে ব্যাট হাতে সর্বোচ্চ সংগ্রহ ৩৩ রান।

ক্যাচ নিয়েছেন একটি ও স্টাম্পিং করেছেন ২টি। সব মিলিয়ে দুবাইতে পাকিস্তানের ঘরোয়া এই টি-টোয়েন্টির আসরে তামিম ছাড়া টাইগারদের দুই তারকা একেবারে ম্লান। তাই আসন্ন এশিয়া কাপে তামিম না থাকায় দলের ব্যাটিং নিয়ে দুশ্চিন্তা বাড়ছেই।

এ বিষয়ে মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, ‘তামিম নেই, দুশ্চিন্তা কিছুটাতো থাকবেই। ও ফর্মে ছিল, ভালো খেলছিল। আর সাকিব ফর্মে নেই, মুশফিকের খেলার সুযোগ কম, কারণ পারফরম্যান্স  তেমন না। তাই চিন্তাটা আসাই স্বাভাবিক। কিন্তু আমি মনে করি তারা অত্যন্ত অভিজ্ঞ ক্রিকেটার। কিভাবে ফর্মে ফিরতে হবে সেটি তাদের জানা আছে। আমি বিশ্বাস করি সাকিব ও মুশফিক দেশে ফিরে এশিয়া কাপে নিজেদের সেরাটাই দিবে।’

তামিম ইকবালের পরিবর্তে দলে এসেছেন ইমরুল কায়েস। নির্বাচক অবশ্য ইমরুলসহ গোটা দলের ব্যাটিংয়ের উপরই আস্থা রাখতে চান। তিনি বলেন, ‘কিছুটা চিন্তা থাকলেও ইমরুলের উপর আমাদের আস্থা আছে। এছাড়াও দলের যে ব্যাটিং ক্ষমতা তা নিয়েও আমাদের আস্থা আছে। আশা করি ভালো কিছুই করবে দল।’

অন্যদিকে এশিয়া কাপ শেষ হতেই দল ছুটবে ভারতে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলতে। সূচি অনুসারে এশিয়া কাপ শেষ হবে ৬ই মার্চ। আর বাংলাদেশ দল ভারতের ধর্মশালাতে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচ খেলবে ৯ই মার্চ। যদি বাংলাদেশ দল এশিয়া কাপের ফাইনাল খেলে তাহলে কোনো প্রস্তুতি নিতে পারবে না ধর্মশালার কন্ডিশনে।

বাংলাদেশ দলের এশিয়া কাপের গ্রুপ পর্বের শেষ ম্যাচ ২রা মার্চ। যদি বাংলাদেশ ফাইনালে নাও যেতে পারে তাহলে ভারতে গিয়ে ৫ই মার্চ হংকংয়ের বিপক্ষে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলতে পারবে। তবে ক্রিকেট বোদ্ধারা মনে করেন তাতেও থেকে যাচ্ছে প্রস্তুতির ঘাটতি।

এ প্রসঙ্গে মিনহাজুল আবেদীন বলেন, ‘ঘাটতি বলতে আমরা ধর্মশালার কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নিতে সময় কম পাব। যেহেতু সেখানে তাপমাত্রা ১০ থেকে ১৬ ডিগ্রির মধ্যে থাকবে। তাই রাতে আগে ব্যাট করে বিপদে পড়তে হতে পারে। মূলত কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেয়াই হবে আমাদের চ্যালেঞ্জ। কারণ এখানে আমরা সেরা সেরা দলের সঙ্গে এশিয়া কাপে খেলেই যাব। তাই ব্যাটিং-বোলিংয়ের প্রস্তুতি নিয়ে চিন্তা নেই। তবে আমি বিশ্বাস করি দলে অনেক সদস্য একশ’র বেশি ম্যাচ খেলা। তাদের দ্রুতই কন্ডিশনের সঙ্গে মানিয়ে নেয়ার যোগ্যতা আছে।’

ক্রিকেট

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে