Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০২-০৮-২০১৬

টুইটার কাঁপানো বলিউড তারকারা

মিঠু হালদার


টুইটার কাঁপানো বলিউড তারকারা

রঙিন দুনিয়ার তারকা তারা। তাদের সবকিছুতেই ভক্তদের একটু বেশিই আগ্রহ থাকে। সেটা অভিনয় থেকে ব্যক্তিজীবন। এছাড়া তারা সু-অভিনয় করে জয় করে নিয়েছেন কোটি ভক্তের হৃদয়। আর সাধারণ ভক্তদের সঙ্গে সরাসরি দেখা হওয়ার সুযোগ থাকে না রুপালী জগতের তারকাদের। এজন্য ভক্তরা বেছে নেন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম।

আর এর মধ্য দিয়ে সারাক্ষনই অধরা স্বপ্নের নায়ক নায়িকাদের নিয়মিত খোঁজ-খবর ভক্তরা রাখতে পারেন। আর আপনাকে যদি প্রশ্ন করা হয়, বলিউডের সবচেয়ে জনপ্রিয় তারকা কে, আপনি হয়তো চোখ বন্ধ করেই বলে দিতে পারবেন একজনের নাম। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যম টুইটারে বলিউডের কোন তারকা কতটা জনপ্রিয়, সেটি কি জানেন? সেটি জানানোর জন্যই আজকের এই প্রতিবেদন।

অমিতাভ বচ্চন

তিনি বলিউড শাহেনশাহ অমিতাভ বচ্চন। তিনি বিগ বি নামেও পরিচিত। গত কয়েক দশক ধরে হিন্দি সিনেমার দুনিয়া দখল করে আছেন। ১৯৭০ সালের এর প্রথম দিকে তিনি বলিউড সিনেমা জগতে ‘অ্যাংরি ইয়াং ম্যান’ হিসেবে জনপ্রিয়তা লাভ করেন। সেই সাথে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে ভারতীয় চলচ্চিত্রের ইতিহাসে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হয়ে ওঠেন। মি. বচ্চন নিজের কর্মজীবনে তিনটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং বারটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কারসহ অজস্র গুরুত্বপূর্ণ পুরস্কার পেয়েছেন।

ফিল্মফেয়ারের শ্রেষ্ঠ অভিনেতা বিভাগে তিনি সর্বাধিক মনোনয়ন পাওয়ার রেকর্ড করেছেন। অভিনয় ছাড়াও তাঁকে নেপথ্য গায়ক,  চলচ্চিত্র প্রযোজক, টেলিভিশন সঞ্চালক এবং ১৯৮৪ থেকে ১৯৮৭ পর্যন্ত ভারতীয় সংসদে নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি হিসেবেও দেখা গেছে। ভারতের এই অভিনেতাকে এই মাইক্রো ব্লগ সাইটে অনুসরণ করেন প্রায় দুই কোটি মানুষ। তাঁর সহ অভিনেতা-অভিনেত্রীদের মধ্যে এত অনুসারী অন্য কোন তারকার নেই৷

শাহরুখ খান

শাহরুখ খানকে শুধু বলিউডেই নয়, পুরো দুনিয়াতেই ‘কিং অফ রোমান্স’ হিসাবে মানা হয়। ১৯৮০ সালের শেষের দিকে বেশ কিছু টেলিভিশন সিরিয়ালে অভিনয়ের মাধ্যমে তিনি তাঁর অভিনয় জীবন শুরু করেন। ১৯৯২ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত ‘দিওয়ানা’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্র জগতে প্রবেশ করেন। এরপর তিনি অসংখ্য সফল বাণিজ্যিক চলচ্চিত্রে অভিনয় করে খ্যাতি অর্জন করেন।শাহরুখ খান চৌদ্দবার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার লাভ করেন।এর মধ্যে আটটিই সেরা অভিনেতার পুরস্কার।

২০০৫ সালে ভারত সরকার শাহরুখ খানকে ভারতের সবচেয়ে সম্মানিত পদ্মশ্রী পুরস্কারে ভূষিত করে। তাঁর প্রায় ৩.২ বিলিয়ন ভক্ত রয়েছে। অভিনেতা হিসেবে বৈশ্বিক অবদানের জন্য শাহরুখ খানকে সম্মানসূচক ডক্টরেট উপাধিতে ভূষিত করেছে স্কটল্যান্ডের প্রাচীন বিশ্ববিদ্যালয় এডিনবরা বিশ্ববিদ্যালয়। কিং খান নামে পরিচিত শাহরুখ খানের অবস্থান অমিতাভের পরেই। টুইটারে তাঁর অনুসারী প্রায় এক কোটি আশি লাখ।

আমির খান

আমির খান অভিনেতার পাশাপাশি চিত্রনাট্য লেখক এবং টেলিভিশন উপস্থাপক। হিন্দি চলচ্চিত্রে সফল কর্মজীবনের মাধ্যমে ভারতীয় চলচ্চিত্রের সবচেয়ে জনপ্রিয় এবং প্রভাবশালী অভিনেতা হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। তিনি চারটি জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার এবং সাতটি ফিল্মফেয়ার পুরস্কারসহ অসংখ্য পুরস্কার এবং মনোনয়ন অর্জন করেছেন, এবং ভারত সরকার কর্তৃক ২০০৩ সালে পদ্মশ্রী এবং ২০১০ সালে পদ্মভূষণ পদকে সম্মানিত হয়েছেন। চাচা নাসির হুসেনের 'ইয়াদোঁ কি বারাত' (১৯৭৩) ছবিতে একজন শিশুশিল্পী হিসাবে তাঁর অভিনয় জীবন শুরু হয়।

১৯৮০ থেকে ১৯৯০ সাল পর্যন্ত মোট সাতবার মনোনয়ন পেলেও তিনি তখন পর্যন্ত ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিততে পারেন নি। অবশেষে ১৯৯৬ সালে ‘রাজা হিন্দুস্তানি’ ছবির জন্য তিনি ফিল্মফেয়ার শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার পান। ভারত সরকার তাকে শিল্পকলার প্রতি তার অবদানের জন্য ২০০৩ সালে পদ্মশ্রী পদক এবং ২০১০ সালে পদ্মভূষণ পদকে ভূষিত করেন। ২০১৩ সালের এপ্রিলে টাইম ম্যাগাজিনের তালিকার তিনি বিশ্বের ১০০ সবচেয়ে প্রভাবশালী ব্যক্তিদের মধ্যে ছিলেন। শাহরুখের চেয়ে কয়েক মাসের বড় আমির খান, তবে ভক্তের বিবেচনায় কয়েক লাখ কম অনুসারী তাঁর। বলিউডের অন্যতম আলোচিত অভিনেতা আমির খানের অনুসারী এক কোটি সত্তর লাখ।

সালমান খান

সালমান খান বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেন ‘বিবি হো তো অ্যায়সি’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। ১৯৮৮ সালে খ্যাতনামা অভিনেত্রী রেখার সঙ্গে একটি গৌণ ভূমিকায় অভিনয়ের মধ্যে ক্যারিয়ার শুরু করেন তিনি। ১৯৮৯ সালে তাঁর অভিনীত প্রথম ব্যবসা সফল চলচ্চিত্র ‘ম্যায়নে পেয়ার কিয়া’ মুক্তি পায়। এজন্যে তিনি ফিল্মফেয়ারে শ্রেষ্ঠ নবাগতার পুরস্কার লাভ করেন। এরপর থেকে নব্বইয়ের দশকে তিনি বলিউডে বেশ কিছু ব্যবসা সফল হিন্দি চলচ্চিত্র উপহার দেন। বলিউডের তিন খান জনপ্রিয়তার বিচারে বরাবরই কাছাকাছি অবস্থান করেন। টুইটারেও তার ব্যতিক্রম নেই। এক কোটি ষাট লাখ অনুসারী নিয়ে সালমান খান আছেন তালিকার চার নম্বরে।

দীপিকা পাডুকোন

এবারের ফিল্মফেয়ার পুরস্কারের আসরে সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জিতেছেন মেধাবী অভিনেত্রী দীপিকা পাডুকোন। ‘পিকু’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য তাঁর এই সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার জয়। অভিনেত্রী হিসেবে বলিউডের সেরার আসনটি এখন নিশ্চিতভাবেই দীপিকা পাডুকোনের।হলিউডের তারকা অভিনেতা ভিন ডিজেলের সঙ্গে ‘ট্রিপল এক্স: রিটার্ন অব জেন্ডার কেজ’ ছবিতে অভিনয় করবেন বলিউডের এই তারকা অভিনেত্রী।এ ছবির মাধ্যমেই হলিউডের ছবিতে অভিষেক হতে যাচ্ছে দীপিকার। টুইটারের বিচারে বলিউডের সবচেয়ে জনপ্রিয় অভিনেত্রী হচ্ছেন দীপিকা পাডুকো। একসময়কার টেনিস খেলোয়াড় এই তারকার অনুসারীর সংখ্যা এক কোটি ত্রিশ লাখের কিছু বেশি।

হৃত্বিক রোশন

ভারতীয় চলচ্চিত্র অভিনেতা যিনি বহুমুখি ধারার অভিনয় জন্যেও পরিচিত। রোশন ছয়বার ফিল্মফেয়ার পুরস্কার জিতেছেন। এছাড়া তিনি বলিউডের সর্বোচ্চ আয়ের ও সর্বাধিক সম্মানিত অভিনেতা হিসাবে নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। ১৯৮০ সালে শিশু শিল্পী হিসেবে চলচ্চিত্রে পদার্পনের পর, হৃত্বিক রোশন ২০০০ সালে ব্লক বাস্টার ‘কহো না পেয়ার হ্যায়’ চলচ্চিত্রের মূল চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে বলিউডে সূচনা করেন।

তিনি তার ‘কোয়ি... মিল গ্যায়া’ (২০০৩), কৃষ (২০০৬), এবং ধুম ২ (২০০৬) এর মত বাণিজ্যিক ভাবে সফল চলচ্চিত্রে অভিনয়ের জন্য বেশি পরিচিত এবং যার জন্য তিনি বেশ কয়েকটি শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরস্কার লাভ করেন। সম্প্রতি বিবাহিত জীবনের ইতিটানা হৃত্বিক রোশন ভক্তদের হৃদয়ে এখনো জনপ্রিয় তালিকায় আছেন। টুইটারে তাঁকে অনুসরণ করেন প্রায় এক কোটি ত্রিশ লাখ মানুষ।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে