Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.5/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০২-০৭-২০১৬

ইতিহাস গড়লো সিলেট বিএনপি

খলিলুর রহমান


ইতিহাস গড়লো সিলেট বিএনপি

সিলেট, ০৭ ফেব্রুয়ারী- ইতিহাস গড়ে সিলেট জেলা ও মহানগর বিএনপির সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্মেলনে গোপন ব্যালেটের মাধ্যমে নিজের পছন্দের প্রার্থী বিজয়ী করেছেন ভোটারা। সিলেট বিএনপির ইতিহাসে প্রথমবারের মতোই শান্তিপূর্ণভাবে সম্মেলন হয়েছে বলে জানিয়েছেন দলের শীর্ষ নেতারা। 

রোববার সিলেট কেন্দ্রীয় মুসলিম সাহিত্য সংসদে সুলেমান হলে ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিপনার মধ্য দিয়ে সম্মেলন সম্পন্ন হয়। 

সম্মেলনে প্রথম অধিবেশনে সভাপতিত্ব করেন সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট নুরুল হক। বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক শাখাওয়াত হোসেন জীবনের পরিচালনায় সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেন- বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ইনাম আহমদ চৌধুরী, যুগ্ম-মহাসচিব মোহাম্মদ শাহজাহান প্রমুখ।

সম্মেলনের প্রথম অধিবেশনেই প্রধান অতিথির বক্তব্যে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগী বলেন, ‘সিলেট বিএনপির সম্মেলনই দল ও দেশের জন্য মাইলফলক। এভাবে তৃণমূল বিএনপিকে গুছিয়ে সাধারণ জনতাকে সম্পৃক্ত করে সরকার বিরোধী আন্দোলনে যাওয়া হবে।’ তৃণমূল থেকে আন্দোলনের মাধ্যমে সরকার হটানো সম্ভব বলেও মনে করেন বিএনপির এই শীর্ষ নেতা। 

মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের বক্তব্যের পরই শুরু হয় সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশন। অধিবেশনে কাউন্সিলরা গোপন ব্যালেটের মাধ্যমে নিজের পছন্দের প্রার্থীকে বিজয়ী করেন। ভোটগ্রহণ শেষে বেলা ১টার দিকে বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। 

সিলেট জেলা বিএনপিতে সভাপতি পদে বিজয়ী হয়েছেন নাসিম হোসাইন। তিনি ৪৪ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ডা. শাহরিয়ার হোসেন চৌধুরী পেয়েছেন ২৮ ভোট।  এছাড়াও অপর প্রার্থী আব্দুল কাইয়ুম জালালি পংকী পেয়েছেন মাত্র ৬ ভোট।

সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী বদরুজ্জামান সেলিম পেয়েছেন ৫৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী ফরহাম চৌধুরী শামীম পেয়েছেন ২১ ভোট। এছাড়ও রেজাউল হাসান কয়েস লোদী পেয়েছেন মাত্র ৪ ভোট।

মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক পদে ১৮ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন মিফতাহ সিদ্দিকী। ওই পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী এমদাদ হোসেন চৌধুরী ১৬, আজমল বখত সাদেক ১৩, সৈয়দ তৌফিকুল হাদী ১৩, হুমায়ুন কবীর শাহীন ১০ ও অ্যাডভোকেট রোকসানা বেগম শাহনাজ ৮ ভোট পেয়েছেন। তবে দুই প্রার্থী কোন ভোট পাননি। বিএনপি নেতা মাহবুব চৌধুরী ও মো. আফজাল উদ্দিন কোনো ভোটই পাননি। 

এদিকে, একই সময় সিলেট জেলা বিএনপিতে সভাপতি পদে বিজয়ী হয়েছেন আবুল কাহের শামীম। তিনি ২৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ২২ ভোট পেয়েছেন। 

সাধারণ সম্পাদক পদে আলী আহমদ ২৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বিপ্রার্থী সামসুজ্জামান জামান পেয়েছেন ২২ ভোট।

সাংগঠনিক সম্পাদক পদে এমরান আহমদ চৌধুরী ও রিপন পাটোয়ারী সমানসংখ্যক ভোট পেয়েছেন। তারা দু’জনই ১২টি করে ভোট পান। এছাড়া এ পদে লড়াই করা আব্দুল আহাদ খান জামাল ১১, সিদ্দিকুর রহমান পাপলু ১০, অ্যাডভোকেট মুজিবুর রহমান পেয়েছে ৪ ভোট। এ পদে কোনো ভোটই পাননি ময়নুল হক ও জিল্লুর রহমান সুয়েব।

এদিকে, বিজয়ীরা আজকের সম্মেলনকে গণতান্ত্রিক চর্চার আরেকটি মাইলফলক বলে মনে করছেন। সিলেট বিএনপির সফল হওয়াকে তারা বিএনপির পূনজাগরণ বলেও মন্তব্য করেছেন তারা। 

সিলেট জেলা বিএনপির নব নির্বাচিত সভাপতি আবুল কাহের শামীম বলেন, ‘সিলেট বিএনপির পুনর্জাগরণ হয়েছে। এর মধ্য দিয়ে সিলেট থেকে সরকার বিরোধী আন্দোলনে আরো গতি আসবে।’

একইরকম প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদও। তিনি তাকে নির্বাচিত করায় ভোটারদের ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।

এদিকে মহানগর শাখার সভাপতি নাসিম হোসাইন এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, আজকের সম্মেলনে প্রমাণিত হয়েছে মাঠের নেতাকর্মীরা ভুল করেন না। আরেকবার তারা সঠিক সিদ্ধান্ত দিয়েছেন। তাদেরকে ধন্যবাদ। 

মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক বদরুজ্জামান সেলিম তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, ‘গণতান্ত্রিক চর্চার আরেকটি মাইলফলক আজ স্থাপন করলো সিলেট বিএনপি। স্বল্প সময়ের মধ্যে নির্বাচন কমিশন গঠন করে সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে নেতৃত্ব নির্বাচিত হয়েছে। এবার আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে গণতন্ত্র ফেরানোর লড়াইয়ে নামবো।’

প্রসঙ্গত, ২০০৯ সালের ২৫ নভেম্বর সিলেট জেলা বিএনপির সম্মেলন হয়েছিল। এর প্রায় ৪ বছর পর ২০১৪ সালের ১৫ এপ্রিল ওই কমিটি ভেঙে দিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করেন। 

ওই আহ্বায়ক কমিটিকে ৪৫ দিনের মধ্যে জেলা সম্মেলন শেষ করতে নির্দেশ দিয়েছিল কেন্দ্র। কিন্তু দেড় বছরের বেশি সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরও সম্মেলন শেষ করতে পারেনি জেলা বিএনপি। 

অন্যদিকে ৩ মাসের আহ্বায়ক কমিটি দিয়ে এক বছরেরও বেশি সময় পার করেছে সিলেট মহানগর বিএনপি। বিভিন্ন কারণে কমিটি পূর্ণাঙ্গ করতে পারেনি আহ্বায়ক কমিটি।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে