Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০২-০৬-২০১৬

আবেদনময়ী মিশরীয় রানীদের সৌন্দর্য সচেতনতা

আবেদনময়ী মিশরীয় রানীদের সৌন্দর্য সচেতনতা

প্রাচীন মিশরীয়দের শিল্পকর্ম নিয়ে যুক্তরাজ্যের দাতব্য প্রতিষ্ঠান ‘চ্যারিটেবল ট্রাস্ট’ দেশটিতে আয়োজন করেছে ‘বেয়ন্ড বিউটি’ নামের একটি প্রদর্শনী অনুষ্ঠানের। সেন্ট্রাল লন্ডনে অবস্থিত ‘টু টেম্পল পেলেস’র ‘নিউ-গোথিক ম্যানশনে’ আয়োজিত এ প্রদর্শনীটি শুরু হয়েছে ৩০ জানুয়ারি। চলবে ২৪ এপ্রিল পর্যন্ত।

যুক্তরাজ্যের বিভিন্ন আঞ্চলিক জাদুঘর থেকে আনা ৩৫০টিরও বেশি প্রাচীন মিশরীয় শিল্পকর্ম প্রদর্শন করা হচ্ছে এখানে। তবে এখানে প্রদর্শিত শিল্পকর্মগুলো অন্যান্য শিল্পকর্ম থেকে একটু আলাদা ধরনের। প্রাচীন মিশরীয়দের সাজসজ্জার কাজে ব্যবহৃত বিভিন্ন জিনিসকে প্রদর্শন করা হচ্ছে এখানে। আজকের দিনে এগুলোকে আমরা বলতে পারি ‘বিউটি প্রোডাক্ট’ বা সৌন্দর্য পণ্য।


নান্দনিক সাজে সজ্জিত এক মিশরীয় নারী  

প্রদর্শনীতে থাকছে প্রাচীন মিশরীয়দের ব্যবহৃত চিরুনি, তামা বা রুপার তৈরি আয়না, পাললিক শিলা থেকে তৈরি চিত্র অঙ্কনের কাজে ব্যবহৃত প্যালেট, যেখানে শিল্পীরা আঁকার জন্য বিভিন্ন রঙের মিশ্রণ ঘটিয়ে থাকে। এছাড়া মিশরীয়দের ব্যবহৃত ফ্যাকাশে পাত্র, নৌকার মতো করে তৈরি করা এক ধরনের বাক্স, যাতে সাজসজ্জার বিভিন্ন বস্তু, বিভিন্ন ধরনের মলম এবং সুগন্ধি সংরক্ষণ করে রাখা হতো। এখানে প্রদর্শিত মানুষের চুলের কিছু বিচ্ছিন্ন অংশ থেকে বোঝা যায়, পরচুলা ব্যবহার করতো প্রাচীন মিশরীয়রা। এক কথায় বলা যায়, প্রাচীন মিশরীয়দের নারী এবং পুরুষ উভয়েই নিজেদের সৌন্দর্যের ব্যাপারে খুব সচেতন ছিলেন।

এমনকি মৃত্যুর পরেও মৃতদেহের সৌন্দর্যের ব্যাপারে সচেতন থাকতেন মিশরের প্রাচীন বাসিন্দারা। মৃতদেহগুলোর ত্বকের স্নিগ্ধতা, শান্ত চেহারা, তাদের চোখে লাগানো সুরমা, তাদের মমি করা লাশের ওপরে লাগানো মুখোশ এবং কাঠের কফিন থেকে বোঝা যায় তাদের সৌন্দর্য সচেতনতা। আধুনিক নৃবিজ্ঞানীদের মতে, প্রাচীন মিশরীয়দের সৌন্দর্য সামগ্রী ব্যবহারের সর্বব্যাপীতা দেখলে চোখে ধাঁধা লেগে যায়।


প্রাচীন মিশরীয়দের ব্যবহৃত বিভিন্ন সৌন্দর্য পণ্য

সৌন্দর্যের ব্যাপারে প্রাচীন ‍মিশরীয়দের সচেতনতা দেখলে একদিকে মনে হবে, তারা তাদের বাহ্যিক সৌন্দর্য বর্ধনে আজকের দিনের মানুষের চেয়েও অনেক বেশি বুঁদ হয়ে থাকতেন। এমনকি সৌন্দর্য পরিমাপের জন্য তাদের ছিল বিশেষ মানদণ্ড। অপরদিকে সেগুলো দেখলে আমাদের আত্মভোলা হয়ে যাওয়ার ঝুঁকি আছে। আমাদের আজকের দিনের যেকোনো ধরনের প্রসাধনীর চেয়ে উন্নত প্রসাধনী ব্যবহার করতো তারা।   

নিজেদের আবেদনময়ী করার ব্যাপারে খুবই সচেতন ছিল মিশরের প্রাচীন নারীরা। আজকের দিনের নারীরা নিজেদের চোখকে আকর্ষণীয় (স্মোকি আই) করার জন্য যে রকম সাজসজ্জা করে, প্রাচীন মিশরীয় নারীরাও একইভাবে তাদের চোখ সাজাতে সুরমা ব্যবহার করতো। সম্প্রতি এক বৈজ্ঞানিক গবেষণায় বেরিয়ে এসেছে এসব তথ্য। চোখের চারপাশে ব্যবহৃত ভারী সুরমা তাদের চোখকে সূর্যের তীব্রতা থেকে রক্ষা করতো। অর্থাৎ, সৌন্দর্য-বর্ধন ছাড়াও ব্যবহারিক কারণেও তারা চোখে সুরমা ব্যবহার করতো।


রানী ক্লিওপেট্রা

তারা পরচুলা ব্যবহার করতো উকুন থেকে নিজেদের রক্ষা করা জন্য। তাদের ব্যবহৃত মণিমুক্তাগুলোও ছিল শক্তি ও ধর্মীয় তাৎপর্যের প্রতীক। আবেদনময়ী ভঙ্গিতে থাকা মাটির একটি নারীমূর্তি থেকে বোঝা যায় গায়ে উল্কি আঁকতো প্রাচীন মিশরের নারীরা। নিজের সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্যই এ ধরনের উল্কি আঁকতো তারা।

প্রাচীন মিশরীয় সুন্দরীদের সবচেয়ে ভালো উদাহরণ তখনকার সময়ের দুই বিখ্যাত রানী ক্লিওপেট্রা এবং নেফারতিতি। এদেরকে বলা হয় ‘কুইন অব নীল’ বা নীল নদের রানী। আদিকাল থেকে আজ পর্যন্ত রানী ক্লিওপেট্রাকে বলা হয় ‘সুন্দরীদের আদর্শ’। ১৯১২ সালে রানী নেফারতিতির একটি চিত্রকর্ম আবিষ্কার হওয়ার পর সৌন্দর্যের দিক থেকে এটিও ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করে। বর্তমানে জার্মানির রাজধানী বার্লিনের একটি জাদুঘরে এটি সংরক্ষিত আছে। ধারণা করা হয়, ফারাও আখেনাতেনের স্ত্রী ছিল নেফারতিতি।


রানী নেফারতিতি

ক্লিওপেট্রার জীবনীকার এবং নেফারতিতির ওপর একটি গবেষণামূলক বইয়ের লেখক জয়সি টিলডেলস্লে জানান, প্রাচীন মিশরের ওই দুই রানীকেই বর্তমানে যৌন আবেদনের প্রতীক হিসেবে বিবেচনা করা হয়। ক্লিওপেট্রার চিত্র প্রমাণ করে, প্রাচীন মিশরের সব নারীই ছিল অনন্য সুন্দরী। তবে ক্লিওপেট্রা ছিলেন এদের চেয়ে ব্যতিক্রম।   

নেফারতিতি সম্পর্কে টিলডেলস্লে মনে করেন, তার বক্ষটি আর পাঁচটি মিশরীয় শিল্পকর্মের মতো নয়। এটা সম্পূর্ণ আলাদা। আর এ কারণে ১৯২৩ সালে যখন নেফারতিতির মূর্তিটি জার্মানিতে উন্মুক্ত করা হয়, তখন এটি হৈ চৈ ফেলে দেয়। নেফারতিতির বক্ষের সৌন্দর্যের কারণে বিশ শতকে গণমাধ্যমগুলোতে তিনি একজন তারকায় পরিণত হন। 

জানা-অজানা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে