Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০২-০৪-২০১৬

লতিফের সংসদ সদস্য পদ খারিজের দাবিতে বিক্ষোভ চট্টগ্রামে

লতিফের সংসদ সদস্য পদ খারিজের দাবিতে বিক্ষোভ চট্টগ্রামে

চট্টগ্রাম, ০৪ ফেব্রুয়ারী- বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছবি ‘বিকৃত’ করার অভিযোগে সাংসদ এম এ লতিফের বিরুদ্ধে চট্টগ্রামে বিক্ষোভ মিছিল, মানববন্ধন ও সমাবেশ হয়েছে। এসব কর্মসূচি থেকে তাঁর সংসদ সদস্য পদ খারিজ করার দাবি উঠেছে। সাংসদকে ‘পাকিস্তানের প্রেতাত্মা’ হিসেবেও অভিহিত করে তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।

গতকাল বুধবার বিকেলে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে ‘জাগ্রত ছাত্র, যুব ও জনতার’ ব্যানারে প্রতিবাদী এসব কর্মসূচি পালন করা হয়। এতে আওয়ামী লীগ, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা অংশ নেন।
সমাবেশে বিভিন্ন বক্তা সাংসদ লতিফকে আওয়ামী লীগে ‘অনুপ্রবেশকারী’ হিসেবে উল্লেখ করে বলেন, ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পাওয়ার আগে লতিফ জামায়াতের রাজনীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত ছিলেন। তিনি ওই সময় চারদলীয় জোটের মনোনয়ন পেতে ঢাকায় গিয়েছিলেন। এখনো তিনি আওয়ামী লীগের বিরুদ্ধে কাজ করে যাচ্ছেন। তাঁর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানান বক্তারা।

প্রতিবাদ সভায় সভাপতিত্ব করেন খেলাঘর চট্টগ্রাম মহানগর কমিটির সাধারণ সম্পাদক জাহিদ হোসেন। বক্তব্য দেন কোতোয়ালি থানা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক হাসান মনসুর, মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান আহমেদ, সহসভাপতি রনি মির্জা, স্বেচ্ছাসেবক লীগের সদস্য পংকজ রায় প্রমুখ।

এম এ লতিফ চট্টগ্রাম-১১ আসনের (বন্দর, হালিশহর ও পতেঙ্গা) সরকারদলীয় সাংসদ। গত শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চট্টগ্রাম সফরকে ঘিরে সাংসদের উদ্যোগে নগরের আগ্রাবাদ ও বিমানবন্দর সড়কে বঙ্গবন্ধুর ছবিসহ অসংখ্য ফেস্টুন টাঙানো হয়। আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের অভিযোগ, ফেস্টুনে ব্যবহার করা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতির মুখমণ্ডল বঙ্গবন্ধুর হলেও শরীর তাঁর নয়। অন্য কারও শরীরে কম্পিউটার কারসাজির মাধ্যমে মুখমণ্ডল যুক্ত করা হয়েছে। এ ঘটনায় চট্টগ্রামে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীদের মধ্যে উত্তেজনা বিরাজ করছে।

গতকালের সমাবেশে আওয়ামী লীগের নেতা হাসান মনসুর বলেন, ‘দলের মধ্যে অনুপ্রবেশকারী লতিফ পাকিস্তানি ভাবধারায় বঙ্গবন্ধুকে পরিচিত করার চেষ্টা করে সংবিধানকে বৃদ্ধাঙ্গুলি দেখিয়েছেন। তাঁর বিরুদ্ধে সংবিধান লঙ্ঘনের জন্য কঠিন ব্যবস্থা নিতে আমরা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ চাই।’

স্বেচ্ছাসেবক লীগের নগর কমিটির সদস্য পংকজ রায় বলেন, ‘পাকিস্তানি কিছু প্রেতাত্মা রয়ে গেছে। সাংসদ লতিফ তাঁদেরই অন্যতম। তিনি আওয়ামী লীগের অনুপ্রবেশকারী সাংসদ। তিনি বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃত করে ধৃষ্টতা দেখিয়েছেন। এই অপরাধের জন্য তিনি পার পাবেন না। তাঁকে অবাঞ্ছিত ঘোষণার জন্য আমি সিনিয়র নেতাদের কাছে দাবি জানাচ্ছি। একই সঙ্গে তাঁর সংসদ সদস্য পদ বাতিল করে অবিলম্বে চট্টগ্রাম-১১ আসনে উপনির্বাচন দিতে প্রধানমন্ত্রীর কাছে আবেদন জানাচ্ছি।’
চকবাজার থানা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সরফুদ্দীন চৌধুরী বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ পরিপূরক শব্দ। অথচ দলের ভেতরে ঘাপটি মেরে থাকা জামায়াতের অনুসারী এম এ লতিফ আজ আমাদের সংগঠনের এমপি। তিনি পাকিস্তানের জাতীয় পোশাক পরিধান করেন। সেই পোশাকে বঙ্গবন্ধুকে উপস্থাপন করেছেন তিনি। নিজেদের বিবেক থেকে প্রতিবাদ জানাতে আজ (গতকাল) আমরা শহীদ মিনারে জড়ো হয়েছি। লতিফের বিরুদ্ধে রাষ্ট্রদ্রোহ মামলা করে ব্যবস্থা না নেওয়া পর্যন্ত আমাদের শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে।’

প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তাদের করা অভিযোগের বিষয়ে জানতে গতকাল সন্ধ্যায় সাংসদ এম এ লতিফের সঙ্গে যোযোগের চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তাঁর মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে