Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০২-০৪-২০১৬

এ মাসেই মোদী ও মমতা এক মঞ্চে

এ মাসেই মোদী ও মমতা এক মঞ্চে

কলকাতা, ০৪ ফেব্রুয়ারি- সব ঠিক থাকলে চলতি মাসেই এক মঞ্চে দেখা যাবে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। কয়েকটি সরকারি প্রকল্প উদ্বোধন করতে ফেব্রুয়ারির ১৫ থেকে ২২ তারিখের মধ্যে রাজ্যে আসার কথা মোদীর। ইন্ডিয়া মেরিটাইম সামিটের প্রস্তুতি বৈঠকে বুধবার কলকাতায় এ খবর জানিয়েছেন জাহাজ মন্ত্রকের অফিসারেরা।

মন্ত্রকের কর্তারা জানান, এ রাজ্য এসে প্রধানমন্ত্রী সাগর বন্দর এবং হলদিয়ায় মাল্টি মোডাল হাবের শিলান্যাস এবং পেট্রাপোল আন্তর্জাতিক কাস্টমস স্টেশনের সূচনা করবেন। সাগরে গিয়ে ইতিমধ্যেই বন্দরের অফিসাররা প্রধানমন্ত্রীর অনুষ্ঠানের জায়গা ঠিক করে এসেছেন। এক কর্তা জানান, ‘‘কপিল মুনির আশ্রমের ঠিক পাশেই সাগর বন্দরের শিলান্যাস অনুষ্ঠানটি হবে। প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে তিনটি দিনের কথা জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রীর সময় চাওয়া হয়েছে। যে দিন তিনি রাজি হবেন, প্রধানমন্ত্রী সে দিনই কলকাতায় আসবেন। মমতা ও মোদী একই হেলিকপ্টারে সাগরে যাবেন।’’

মুখ্যমন্ত্রীর দফতরের এক কর্তা জানান, সাগর বন্দরটি কেবল কেন্দ্রের প্রকল্প নয়। এর ২৬% অংশীদারি রাজ্যের হাতে রয়েছে। রাজ্য জমির ব্যবস্থা করবে। সুতরাং এই প্রকল্পে মুখ্যমন্ত্রীর থাকতে আপত্তি নেই। তবে দিনক্ষণ চূড়ান্ত হয়নি।

জাহাজ মন্ত্রকের কর্তারা জানান, সাগর বন্দর নির্মাণ নিয়ে সমীক্ষার কাজ শেষ হয়েছে। এই প্রকল্পে সব চেয়ে বড় বাধা ছিল মুড়িগঙ্গা নদীর উপর ‘রেল কাম রোড’ সেতুটি নির্মাণ নিয়ে জটিলতা। শেষ পর্যন্ত ঠিক হয়েছে, জাতীয় সড়ক উন্নয়ন কর্তৃপক্ষই ২৫০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করবে সেতুটি। বন্দর নির্মাণের জন্য আলাদা করে জমি নেওয়া হবে না। সমুদ্র থেকে মাটি তুলে গঙ্গাসাগরের পশ্চিমাংশের জলে ফেলে প্রায় ৩০০০ একর জমি তৈরি করা হবে। কেবল মাত্র রেলপথ এবং রাস্তা নির্মাণের জমিটুকু অধিগ্রহণ করা বা কেনা হবে।

জাহাজ মন্ত্রক যে সাগর প্রকল্পটিকে গুরুত্ব দিচ্ছে, এ দিন মেরিটাইম সম্মেলনের প্রচারে এসে তা তুলে ধরেন জাহাজ মন্ত্রকের উপসচিব অভিষেক চন্দ্র। তিনি বলেন, ‘‘দেশে তিনটি নতুন বড় বন্দর নির্মাণ হচ্ছে। মহারাষ্ট্রের ভাদাবন, পশ্চিমবঙ্গের সাগর এবং অন্ধ্রপ্রদেশের দুর্গরাজপত্তনম। মেরিটাইম সামিটে এই প্রকল্প তিনটি তুলে ধরে বিশ্বের ৩০টি দেশের কাছ থেকে বিনিয়োগ চাওয়া হবে।’’ তিনি জানান, জাহাজ চলাচল, বন্দর নির্মাণ, জাহাজ নির্মাণ ও ভাঙার কারখানা, বার্জ তৈরি, অন্তর্দেশীয় জলপথ বিকাশের অন্তত ২০০টি প্রকল্প বিদেশি বিনিয়োগকারীদের জন্য তুলে ধরা হবে। সব মিলিয়ে প্রস্তাবিত লগ্নির পরিমাণ প্রায় ৪ লক্ষ টাকা। ১৪-১৫ এপ্রিল মুম্বইয়ে এই সম্মেলনের সূচনাও করবেন প্রধানমন্ত্রী।

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে