Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০২-০৩-২০১৬

বছরের প্রথম মাসেই আহত ও নিহত ২৫৯২

বছরের প্রথম মাসেই আহত ও নিহত ২৫৯২

ঢাকা, ০৩ ফেব্রুয়ারী- বছরের প্রথম মাসেই দেশে মানবাধিকার লঙ্ঘনের ঘটনায় আহত ও নিহত হয়েছে ২৫৯২ জন পুরুষ, নারী ও শিশু। দেশের সামগ্রিক মানবাধিকার পরিস্থিতি সন্তোষজনক নয় উল্লেখ করে এমন একটি সমীক্ষা প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা।

সমীক্ষায় বলা হয়, মাসজুড়েই ছিল পারিবারিক কোন্দলে আহত ও নিহতের নানা ন্যক্কারজনক ঘটনা। গৃহকর্মী নির্যাতন ও খুন, নারী নির্যাতন, পারিবারিক, সামাজিক ও রাজনৈতিক সহিংসতা, অজ্ঞাত লাশ উদ্ধার, ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী কর্তৃক নিরীহ মানুষ হত্যা। দেশের রাজনৈতিক অবক্ষয়ের সঙ্গে মানুষের সামাজিক ও নৈতিক অবক্ষয়েরও স্খলন ঘটেছে মারাত্মকভাবে।

২০১৬ সালের জানুয়ারি মাসে দেশে প্রকাশিত বিভিন্ন দৈনিক পত্র-পত্রিকা এবং সংস্থার বিভিন্ন জেলা, উপজেলা ও পৌরসভা শাখার মাধ্যমে সংগৃহীত তথ্য। প্রতিবেদনে এও বলা হয় যে, এর বাইরেও মানবাধিকার লঙ্ঘনজনিত কিছু ঘটনা থাকতে পারে, যা আমাদের সীমাবদ্ধতার কারণে সংগ্রহ করা সম্ভব হয়নি। বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার জানুয়ারি মাসের মনিটরিং-এ পাওয়া তথ্য-উপাত্ত থেকে বিষয়ভিত্তিক কিছু তথ্য দেয়া হয়।

যৌতুক
জানুয়ারি মাসে যৌতুকের জন্য প্রাণ দিতে হয়েছে ৫ নারীকে এবং মারাত্মক আহত হন ৯ নারী । মুন্সিগঞ্জে যৌতুক না পেয়ে স্ত্রীকে বোতল দিয়ে পিটিয়ে জখম করে এক স্বামী। এর মধ্যে যৌতুকের জন্য আহত ও নিহতের সংখ্যা বেশি ঘটে ঢাকায়, মোট ৬ জন, আহত (৩) নিহত (৩)। তাছাড়া রাজশাহীতে নিহত হয় ২ জন।। যৌতুকের কারণে নারী নির্যাতন ও হত্যার ঘটনা বেড়ে যাচ্ছে দিন দিন, যা বর্তমান আধুনিক সমাজের জন্য অত্যন্ত লজ্জাজনক।

পারিবারিক কলহ
চলতি মাসে বেশ কিছু পারিবারিক সহিংসতার ঘটনা অলোচিত হয়েছে। পারিবারিক কলহে চলতি মাসে নিহত হন ২৫ জন ও আহত হন ১২ জন। পারিবারিক কলহের জের ধরে ইকবাল হোসেন নামে এক ব্যক্তি নিজের ভাই বোনের তিন সন্তানকে পুড়িয়ে মারে। তা ছাড়া নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহের কারণে একই পরিবারের পাঁচ জনকে গলা কেটে হত্যা করেন এক ব্যক্তি।

ধর্ষণ
জানুয়ারি মাসে ধর্ষণের শিকার হয়েছে ৮ নারী, গণধর্ষণের শিকার হয়েছেন আরো ৪ জন ও ধর্ষণের পর হত্যা করা হয় ১ জনকে। এই মাসে ১ শিশুও ধর্ষিত হয়। নোয়াখালীতে একই সঙ্গে ২ বোন গন ধর্ষণের শিকার হন। নান্দাইলে বাসে চালক দ্বারা ধর্ষণের শিকার হয় এক নারী।

‘ক্রসফায়ারে’ নিহত
গত মাসে ‘ক্রসফায়ার’র নামে মৃত্যু হয় ৬ জনের। এর মধ্যে পুলিশের ‘ক্রসফায়ারে’ নিহত হন ৪ জন, র‌্যাব কর্তৃক ১ জন ও অন্যান্য বাহিনী কর্তৃক ১ জন। আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর হেফাজতে মৃত্যু হয় ১ জনের।

আত্মহত্যা
চলতি মাসে আত্মহত্যা করেছে ৭ পুরুষ ও ২৬ নারী। এর মধ্যে রাজধানী ঢাকাতেই আত্মহত্যা করে ১৪ নারী। বাকী ঘটনাগুলো ঘটে বরিশাল, রাজশাহী, খুলনা ও রংপুরে। পারিবারিক দ্বন্দ্ব, প্রেমে ব্যর্থতা ও যৌন হয়রানির কারণে আত্মহত্যার ঘটনা ঘটেছে বলে রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়।

খুন
সারাদেশে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত হয়েছেন ৬৭ জন ও আহত হয়েছেন আরো ৭৩ জন। তুচ্ছ ঘটনায় খুনের ঘটনা বেড়ে গেছে অনেক। ১১ জানুয়ারি প্রাইভেটকার ভাড়া করে গ্রামের বাড়ি গিয়ে টাকা না দিয়ে চালককে হত্যা করে পালায় তিন যুবক। কেরানীগঞ্জে সনাতন ধর্মাবলম্বীদের এক মেলায় সন্ত্রাসীদের ছুরিকাঘাতে ঝন্টু দাস নামের এক যুবক নিহত হয়। ঢাকা ও চট্টগ্রামে সন্ত্রাসী কর্তৃক হতাহতের সংখ্যা বেশি।

সড়ক দুর্ঘটনা
সড়ক ও যোগাযোগ ব্যবস্থার অবনতি, অদক্ষ চালক, পরিবহন ব্যবস্থার অব্যবস্থাপনা এবং যথাযথ কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণে ১৬৪ জনের মৃত্যু ঘটেছে, অহত হয়েছে ৫৬৮ জন। ১০ জানুয়ারি ঘন কুয়াশার কারণে বঙ্গবন্ধু সেতুর ওপর পৃথক সড়ক দুর্ঘটনায় ভূমিমন্ত্রীর ছেলেসহ নিহত হয় সাত জন। আহত হন সাংবাদিকসহ ৪৬ জন।

সামাজিক অসন্তোষ
বিচার ব্যবস্থার অবনতি, সামাজিক নিরাপত্তার অভাব এই সবকিছু মিলেই দেশের আপামর জনসাধারণের মানসিক ও মানবিক চিন্তা চেতনার অবক্ষয়ের কারণে বেড়ে গেছে সামাজিক অসন্তোষ আর এই সামাজিক অসন্তোষের শিকার হয়ে নিহত হয়েছেন ১৮ জন এবং আহত হয়েছেন ৩৫৭ জন। বেশিরভাগ ঘটনাই ঘটে জমিজমা সংক্রান্ত।

রাজনৈতিক সহিংসতা
রাজনৈতিক সহিংসতায় আহত হয়েছেন ১৭৪ জন ও নিহত হয়েছে ৪ জন। বেড়ে গেছে রাজনৈতিক অন্তঃকোন্দলে আহতের সংখ্যা। বিগত পৌর নির্বাচন, আধিপত্য বিস্তার, টেন্ডার বানিজ্য, এলাকা দখল, চাঁদাবাজী নিয়নন্ত্রণ ও ক্ষমতার দাপট প্রদর্শনের জন্য আওয়ামী লীগের অন্তঃকোন্দলে আহত ১৭৫ জন বিএনপির অন্তঃকোন্দলে আহত হয়েছেন ৩০ জন।

তা ছাড়া মাদকের প্রভাবে বিভিন্ন ভাবে আহত হয়েছে ১২ জন ও নিহতের সংখ্যা ৯ জন। তাছাড়া পানিতে ডুবে, অসাবধানতাবশত, বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে  মৃত্যুবরণ করেছে ৫৪ জন। এ মাসেও ভুল চিকিৎসায় মৃত্যু হয় ২ জনের। চলতি মাসে বিরোধী রাজনৈতিক দলকে নিয়ন্ত্রণের জন্য রাজনৈতিক অজুহাতে গণগ্রেপ্তার হয়েছে ৬৩২ জনেরও বেশি।

বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থা মনে করে, বিদ্যমান মানবাধিকার লঙ্ঘন অব্যাহত থাকলে একদিকে যেমন দেশের অগ্রগতি ব্যাহত হবে, অন্যদিকে সুশাসন প্রতিষ্ঠার যে অঙ্গীকার তা মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবে এবং দেশের ভাবমূর্তি হবে। সংস্থা আরো মনে করে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দ্বারা সবচেয়ে বেশি মানবাধিকার লঙ্ঘন হয়।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে