Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 5.0/5 (1 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০১-৩১-২০১৬

উদ্বোধনের অপেক্ষায় একুশে গ্রন্থমেলা, বাড়ছে পরিসর

উদ্বোধনের অপেক্ষায় একুশে গ্রন্থমেলা, বাড়ছে পরিসর

ঢাকা, ৩১ জানুয়ারি- লেখক-পাঠক-প্রকাশকের আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে থাকা অপেক্ষার একুশে বইমেলা শুরু হতে আর একদিন বাকি। এবার পরিসর বাড়ার পাশাপাশি বাড়ছে স্টলের সংখ্যা। সাজ-সজ্জায়ও নতুনত্ব খুঁজে পাবেন বইপ্রেমীরা।

শনিবার বিকালে বাংলা একাডেমির আবদুল করিম সাহিত্য বিশারদ মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এমনই আশার কথা শোনালেন আয়োজক বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক শামসুজ্জামান খান।তিনি বলেন, এবার বড় পরিসরে মেলা আয়োজনের কারণ হলো বাংলা একাডেমির হীরক জয়ন্তী উদযাপন।

৩ ডিসেম্বর ঐতিহ্য ও গৌরবের হীরক জয়ন্তী পূর্ণ করেছে বাংলা একাডেমি। মহান ভাষা আন্দোলনের চেতনায় ১৯৫৫ সালের ৩ ডিসেম্বর প্রতিষ্ঠিত হয় বাঙালি জাতিসত্তা ও বুদ্ধিবৃত্তিক উৎকর্ষের প্রতীক প্রতিষ্ঠান বাংলা একাডেমি।

অমর একুশে গ্রন্থমেলার সদস্য সচিব জালার আহমেদ লিখিত বক্তব্যে বলেন, “এবার গ্রন্থমেলার আয়োজক প্রতিষ্ঠান বাংলা একাডেমি’র ষাট বছরপূর্তির হীরক জয়ন্তী যুক্ত হয়ে মেলায় সৃষ্টি হয়েছে নতুনতর মাত্রা।”

শামসুজ্জামান জানান, গত বছর আড়াই লাখ বর্গফুটের সামান্য কিছু বেশি আয়তনের মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এই বছরে চার লাখ ৭৮ হাজার বর্গফুটের পরিসরে মেলা আয়োজন করা হয়েছে। তিনি বলেন, পরিসর বাড়ার পাশাপাশি মেলার সজা-সজ্জার পরিবর্তন আনা হয়েছে এবার। গত কয়েক বছর ধরে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে শিশুকর্নার থাকলেও এবার তা মেলার সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশ নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

গত বছর ৩৫১টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছিল মেলায়, তবে এবার সাড়ে চারশ প্রকাশনা প্রতিষ্ঠা অংশ নিচ্ছে। এর মধ্যে একাডেমি প্রাঙ্গণে ৮২টি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে ৩২০টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানকে এবং বাংলা একাডেমিসহ ১৪টি প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানের থাকছে ১৫টি প্যাভিলিয়ন।


৯২টি লিটল ম্যাগাজিনকে স্টল বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে বলেও আয়োজকরা জানিয়েছেন। এবারও একাডেমির নজরুল মঞ্চে এবং সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা থাকবে। মেলার দুই অংশেই ওয়াই-ফাই সুবিধা থাকবে বলে জানানো হয়েছে।

গ্রন্থমেলায় বাংলা একাডেমি প্রকাশিত বই ৩০ শতাংশ কমিশনে এবং মেলায় অংশগ্রহণকারী অন্যান্য প্রতিষ্ঠান ২৫ শতাংশ কমিশনে বই বিক্রি করার নির্দেশনা দিয়েছেন আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব জালাল আহমেদ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠান
পহেলা ফেব্রুয়ারি সোমবার বিকাল সাড়ে ৩টায় মাসব্যাপীএই গ্রন্থামেলার উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রবীন্দ্র সংগীত পরিবেশন করবেন রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা এবং নজরুল সংগীত পরিবেশন করবেন জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের পৌত্রী অনিন্দিতা কাজী। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানেই দেওয়া হবে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার ২০১৫।

মেলার সময়সূচি
ফেব্রুয়ারি মাসজুড়ে ছুটির ছাড়া প্রতিদিন বিকেল ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত চলবে মেলা। তবে ছুটির দিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা এবং ২১শে ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে