Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 4.5/5 (2 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০১-২৬-২০১৬

বিএনপির মহাসচিব পদের দৌড়ে তাঁরা তিনজন

মাহমুদ আজহার


বিএনপির মহাসচিব পদের দৌড়ে তাঁরা তিনজন

ঢাকা, ২৬ জানুয়ারী- দলের ষষ্ঠ জাতীয় কাউন্সিলের আগেই বেগম খালেদা জিয়া ‘চেয়ারপারসন’ নির্বাচিত হবেন—এটা বিএনপির নেতা-কর্মীদের সবারই জানা। কিন্তু মহাসচিব কে হচ্ছেন—তা নিয়েই কৌতূহল দলের ভিতরে-বাইরে। অন্য রাজনৈতিক দলেও এ নিয়ে উৎসাহের শেষ নেই। অবশ্য বিএনপিসহ সবত্রই জনপ্রিয়তার দৌড়ে এগিয়ে রয়েছেন ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

দলের মহাসচিব হওয়ার দীর্ঘদিনের স্বপ্ন সদ্য কারামুক্ত বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনেরও। দলের একটি অংশ চায় স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলামকে মহাসচিবের দায়িত্ব দেওয়া হোক। আবার স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়কে ঘিরেও তৈরি হয়েছে আরেকটি বলয়। তবে লন্ডন ও ঢাকার হিসাব-নিকাশে যার পাল্লা ভারী হবে—আগামীতে তিনিই হবেন বিএনপির ‘সেকেন্ড ইন কমান্ড’। দলীয় সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা যায়, আগামী মার্চে কাউন্সিলের আগেই চেয়ারপারসন নির্বাচিত হবেন বেগম খালেদা জিয়া। গত শনিবার স্থায়ী কমিটির বৈঠকের পর চেয়ারপারসন নির্বাচনের প্রক্রিয়াও শুরু হয়েছে। ফেব্রুয়ারির মধ্যেই চেয়ারপারসন নির্বাচিত হতে পারেন বেগম জিয়া। এরপর তিনি ক্ষমতাবলে মহাসচিব নিয়োগ দিতে পারেন। পরে তা পরবর্তী কাউন্সিলে পাস করিয়ে নেওয়া হবে।

দলের আরেকটি সূত্র জানায়, কাউন্সিলেই মহাসচিব নির্বাচিত করা হবে। দুই প্রক্রিয়ায় মহাসচিবের দৌড়ে এগিয়ে আছেন মির্জা ফখরুল। লন্ডনও ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবের পক্ষে বলে সূত্র জানায়।

বিএনপির সিনিয়র এক নেতা জানান, লন্ডন সফরে বড় ছেলে তারেক রহমানের সঙ্গে শলাপরামর্শ করে মির্জা ফখরুলকে মহাসচিব করার সিদ্ধান্ত নেন খালেদা জিয়া। দেশে ফিরেই মির্জা ফখরুলকে চিঠি দেওয়ার কথাও ছিল। কোনো এক অজ্ঞাতকারণে এখনো তার ভারমুক্ত হয়নি। চলতি মাসের মাঝামাঝিতেও মির্জা ফখরুলকে পূর্ণাঙ্গ মহাসচিবের চিঠি দেওয়ার কথা ছিল। এখন হয়তো চেয়ারপারসন নির্বাচিত হওয়ার পরই মির্জা ফখরুলকে মহাসচিব ঘোষণা করা হতে পারে।

সূত্রমতে, ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবের দায়িত্ব নেওয়ার পর সাতবার জেল খেটেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বর্তমানে তার বিরুদ্ধে রয়েছে ৮৪ মামলার খড়গ। ৩৫টি মামলায় তার বিরুদ্ধে চার্জশিটও গ্রহণ করা হয়েছে। দফায় দফায় কারাগারে যাওয়ার পর বেশ কয়েকটি জটিল রোগেও আক্রান্ত বিএনপির এই নেতা। এরপরও ‘ভারপ্রাপ্ত’ মহাসচিবের দায়িত্বপালন করে যাচ্ছেন।

জানা যায়, বিএনপিতে খালেদা জিয়া ও তারেক রহমানের পরই জনপ্রিয়তার শীর্ষে ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব। দলের নেতা-কর্মীদের বাইরেও দেশি-বিদেশি কূটনীতিক, গণমাধ্যম, সুশীল সমাজ, অন্যান্য রাজনৈতিক দলসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছেও মির্জা ফখরুলের গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। তার কথাবার্তা, চাল চলনও পছন্দ সাধারণ মানুষের।

সামগ্রিক বিবেচনায় দলের ভিতরে-বাইরের দক্ষতার বিচারে ভারপ্রাপ্ত মহাসচিবই এগিয়ে। সর্বশেষ ৫ জানুয়ারি নয়াপল্টনে বিএনপির জনসভায় বেগম জিয়ার পরে সবচেয়ে বেশি করতালি পান মির্জা ফখরুল— নেতা-কর্মীদের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্যই জানা গেছে। সারা দেশেও নেতা-কর্মীদের কাছে ক্লিন ইমেজের নেতা হিসেবেই পরিচিত রয়েছে মির্জা ফখরুলের।

গুলশান কার্যালয় সূত্র জানায়, সদ্য কারামুক্ত বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেনেরও দীর্ঘদিনের স্বপ্ন—তিনি দলের মহাসচিব হবেন। ঘনিষ্ঠজনদের কাছে তিনি এ কথা একাধিকবার বলেছেনও। সম্প্রতি কারামুক্ত হওয়ার পর দলের একটি অংশ চান ড. মোশাররফ মহাসচিব হোন। এ নিয়ে একটি গ্রুপ চেষ্টাও চালিয়ে যাচ্ছে।

তবে কারামুক্ত হওয়ার পর এক অনুষ্ঠানে ড. মোশাররফ তার বক্তৃতায় মির্জা ফখরুলকেই দলের মহাসচিব বলে সম্বোধন করেন। স্থায়ী কমিটির সদস্য তরিকুল ইসলাম। দলের ভিতরে-বাইরে তারও জনপ্রিয়তা রয়েছে। কিন্তু কাল হয়েছে তার শারীরিক অসুস্থতা। অসুখে-বিসুখে এখনো ভালো নেই তিনি। তার বিরুদ্ধেও রয়েছে বেশ কয়েকটি মামলা। উচ্চ আদালত থেকে জামিন নিয়ে এখন কিছুটা প্রকাশ্যে। তরিকুল ইসলামের ঘনিষ্ঠজনদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, নিজে থেকে মহাসচিব হওয়ার ইচ্ছা পোষণ করবেন না তিনি। বিএনপি প্রধান যদি চান, তাহলেই দায়িত্ব পালন করতে পারেন দলের জন্য অন্তপ্রাণ প্রবীণ এই রাজনীতিবিদ।

স্থায়ী কমিটির আরেক সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়ও ঘনিষ্ঠদের কাছে মহাসচিব হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। তবে সম্প্রতি তিনি বলছেন, নিজে থেকে খালেদা জিয়ার কাছে এ দাবি তিনি করবেন না। তবে বিএনপি প্রধান চাইলে তিনি মহাসচিবের দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত। অবশ্য বাংলাদেশ প্রতিদিনকে তিনি বলেছেন, মহাসচিব হওয়ার ইচ্ছা নিয়ে তিনি কারও সঙ্গে কথা বলেননি। চেয়ারপারসন যাকে এই দায়িত্ব দেবেন, তাকেই মহাসচিব হিসেবে মানবেন তিনি।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে