Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০১-২১-২০১৬

এ দেশের মানুষ আমাকে ভোলেনি

জাহীদ রেজা নূর


এ দেশের মানুষ আমাকে ভোলেনি

ঢাকা, ২১ জানুয়ারি- নায়ক রাজ্জাক পঁচাত্তরে পা রাখছেন ২৩ জানুয়ারি। তাঁর কথা ভাবতে গিয়ে দেখি, এই ভূখণ্ডে আর কেউই তো তাঁর মতো এত দীর্ঘ বর্ণাঢ্য শিল্পজীবন পাননি! এখনো দাপটের সঙ্গে অভিনয় করে চলেছেন এই নন্দিত শিল্পী। এখনো বলিষ্ঠ সব চরিত্রে!

বলে রাখা ভালো, গত বছর হঠাৎ করেই খুব অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন এই শিল্পী। সর্দিকাশি থেকে ইনফেকশন। সে কথা মনে করে বললেন তিনি, ‘চলেই গিয়েছিলাম প্রায়, ভাবিনি বেঁচে ফিরব। এখন তো সুস্থ আছি। আবার অভিনয় করছি।’

আমরা যখন কথা বলছি বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের খ্যাতিমান এই তারকার সঙ্গে, তখন ঘুরেফিরে সব কথাই এসে পৌঁছে যাচ্ছে চলচ্চিত্রের ভালো-মন্দের প্রসঙ্গে। রাজ্জাক যে আপাদমস্তক একজন চলচ্চিত্রের মানুষ, সেটাই বোঝা যাচ্ছে পরিষ্কার।

কেমন লাগে এই বয়সে, কী ভাবেন এ সময়টাতে?—এমন একটা প্রশ্ন দিয়েই শুরু করি আলাপ।

‘ইচ্ছে ছিল আমরণ চলচ্চিত্রে কাজ করে যাব।’ বললেন রাজ্জাক। ‘আমার খুব চাওয়া, চলচ্চিত্রে কাজ করতে করতেই কোনো এক সময় আমার মৃত্যু হবে। কিন্তু আমি খুব কষ্ট পাই, বুঝলে! আমাদের কী জমজমাট ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিটা ছিল! এই ইন্ডাস্ট্রিতে আছি বলে গর্ব করতাম। আর আজ কী অবস্থা!’

ধরুন, আপনাকে যদি চলচ্চিত্র জগতের একজন মানুষের নাম বলতে বলা হয়, যাঁর উজ্জ্বল উপস্থিতি আপনাকে এ জগতের জন্য তৈরি করেছে, তবে কার নাম করবেন?

বিন্দুমাত্র না ভেবে রাজ্জাক বললেন, ‘জহির রায়হান। তিনি আমাকে আশ্বাস দিয়েছিলেন। আমি তখন চলচ্চিত্র জগতে বারবার রিফিউজড হচ্ছি। কেউ আমাকে নিয়ে ভাবছে না। তখন তিনিই একমাত্র মানুষ, যিনি আমাকে বলেছিলেন, “আমি আপনাকে ব্রেক দেব।” তখন তিনি বাহানা ছবিটি করছিলেন। সেটা শেষ হলে হাজার বছর ধরে করবেন ভেবেছিলেন। কিন্তু তা আর করা হয়নি। তবে আমাকে স্নেহ দিয়ে, উপদেশ দিয়ে এই জগতের উপযোগী করে তুলেছিলেন তিনি।’

ঘর থেকে তো আপনাকে কোনো সমস্যায় পড়তে হয়নি কখনো...

হাসলেন রাজ্জাক। বললেন, ‘এ কথাটাও আমি বলতে চাইছিলাম। যখন একটু নাম হলো, যখন মন খুলে কাজ করার কথা, তখন পাশে পেয়েছি স্ত্রী লক্ষ্মীকে। তিনি আমাকে একটা নির্ঝঞ্ঝাট জীবন দিয়েছেন। তখন তো, বুঝতেই পারছ, নাম হলে নারীমহলে সাড়া পড়ে যায়। সেগুলো সামলে নিতে পারতাম না, যদি না লক্ষ্মী থাকতেন পাশে। আমার এত দূর আসার পেছনে জহির রায়হান আর লক্ষ্মীর সাহায্য রয়েছে অনেকখানি।’

আপনি জনপ্রিয় মানুষ, রাজনীতির সঙ্গে নিজেকে জড়ানোর কথা ভাবেননি কখনো?

‘আমার জগৎ, ধ্যানজ্ঞান সবই ছিল চলচ্চিত্র ও নাটকে অভিনয়কে কেন্দ্র করে। অভিনয়টাই ছিল রক্তের ভেতর। হ্যাঁ, হয়তো রাজনীতি করতে পারতাম, এমপি-মিনিস্টার হতে পারতাম। কিন্তু ওটা তো আমার স্বপ্ন বা পেশা নয়। আমি স্বপ্ন দেখেছি নায়ক হব, ভালো অভিনেতা হব। নিজের অন্তরে যা বসাতে পারব না, সেটা পেশা হিসেবে গ্রহণ করব কেন? আমার তো পারিবারিক রাজনৈতিক ব্যাকগ্রাউন্ড নেই। আমি কেন রাজনীতি করব?’

চলচ্চিত্রের তো এখন দৈন্যদশা। বাঁচার উপায় কিছু দেখছেন?

‘যখন আমরা চলচ্চিত্রে অভিনয় করা শুরু করেছি, তখন কেউ টাকার দিকে তাকাইনি। ছবি হিট করলেও পয়সা চাইনি। দুবেলা ডাল-ভাত খেতে পারলেই মনে হতো শান্তিতে আছি। একসময় বাঙালি পরিচালকেরা বাংলা ছবি ফ্লপ হয় বলে উর্দু ছবি বানাতে শুরু করলেন। আমরা প্রতিজ্ঞা করলাম, বাংলা চলচ্চিত্র শিল্পটাকে বাঁচাব। পরিচালক-অভিনয়শিল্পী-গায়ক-সংগীত পরিচালক সবাই মিলে আমরা সেই চেষ্টা চালিয়ে গেছি। তখন প্রযোজকের সঙ্গে প্রযোজকের ছিল ভালো সম্পর্ক। এখন তো প্রযোজক-প্রযোজক দূরের কথা, শিল্পীর সঙ্গে শিল্পীরই সুসম্পর্ক নেই। সে সময় কী অসাধারণ সব ছবি তৈরি হয়েছে! আগুন নিয়ে খেলার পর অনেকেই বাংলা ছবির দিকে ঝুঁকলেন। নির্মাণ করা হলো নীল আকাশের নিচে। বাংলা চলচ্চিত্রকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য সে কী সংঘবদ্ধ প্রচেষ্টা!’

এখন তা নেই কেন?

‘কী করে থাকবে? কারও সঙ্গে কারও সুসম্পর্ক নেই। সবাই টাকার পেছনে দৌড়াচ্ছে। শিল্প নির্মাণ করার সময় কোথায়? অবস্থা কোথায় এসে দাঁড়িয়েছে, জানো? সিনেমা হলের মেশিনের ভাড়াটাও এখন দিতে হচ্ছে প্রযোজককে। অবস্থা এমন হলে চলচ্চিত্রশিল্প বাঁচবে কী করে? এফডিসির কী দৈন্যদশা! সমিতি তৈরি হচ্ছে বিভিন্ন, তারা চা খাচ্ছে, পিকনিক করছে। কিন্তু চলচ্চিত্রটা কোথায় গিয়ে দাঁড়াচ্ছে, সে খোঁজ রাখছে না কেউ!’

পঁচাত্তরের দিকে হাঁটা শুরু করার আগমুহূর্তে নিজের ভাবনার কথা বলুন।

‘এত সব কষ্টের মধ্যেও আনন্দে আছি। আমি যখন “রাজ্জাক” হিসেবে দর্শকের মনে জন্মগ্রহণ করলাম, তখন এ দেশের মানুষ ছিল সাড়ে সাত কোটি। এখন প্রায় ১৭ কোটি। এখন আমি ১৭ কোটি মানুষের দোয়া-আশীর্বাদ পাচ্ছি। আমার সবচেয়ে ভালো লাগছে এই ভেবে যে এ দেশের মানুষ আমাকে ভোলেনি।’

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে