Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০১-০৭-২০১৬

দেশকে দরিদ্র দেখিয়ে ভিক্ষা করে খেতে চাই না

দেশকে দরিদ্র দেখিয়ে ভিক্ষা করে খেতে চাই না

ঢাকা, ০৭ জানুয়ারি- বাংলাদেশকে দরিদ্র দেখিয়ে ভিক্ষা করে খেতে চাই না। নিজের পায়ে মাথা উঁচু করে দাঁড়াবো। কারো কাছে হাত পাতবো না। কারণ, আমাদের তিক্ত অভিজ্ঞতা রয়েছে। আমরা অন্যের ওপর নির্ভরশীল হতে চাই না।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পুরস্কার ১৪২০ উপলক্ষে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘কৃষককে কৃষিতে সহজ শর্তে ঋণ দেয়ায় কারণে আজ বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন হয়েছে। বাংলাদেশে এখন আর অন্যের ওপর নির্ভরশীল হতে চাই না।’

তার সরকারের আমলে কৃষিতে উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে শেখ হাসিনা বলেন, ‘ধান-মাছসহ কৃষিতে আমরা একটা সম্মানজনক অবস্থান দাঁড় করাতে পেরেছি। শুধু যে ধান উৎপাদন বাড়িয়েছি তা নয়, সব কিছুর উৎপাদন বাড়িয়েছি।’

পুরস্কারের জন্য নির্বাচিতদের অভিনন্দন জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, ‘জাতির পিতা জানতেন কৃষি উন্নয়নের মাঝেই এ দেশের সার্বিক উন্নয়নের বীজ নিহিত রয়েছে। তিনি উপলব্ধি করেছিলেন, কৃষিকে বাদ দিয়ে দেশের উন্নয়ন সম্ভব নয়। এজন্য বঙ্গবন্ধু সবুজ বিপ্লবের ডাক দিয়েছিলেন।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘১৯৯৬ সালে প্রথম সরকার গঠনের পর আমরা কৃষি উৎপাদন ব্যবস্থাকে আধুনিক এবং সুসংগঠিত করার ওপর বিশেষ গুরুত্বারোপ করি। ফলে মাত্র ৪ বছরের মধ্যে বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করে। এজন্য জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) আমাদের সেরেস পদকে ভূষিত করে। 

তিনি বলেন, ‘গত সাত বছরে কৃষিতে ভর্তুকি বাবদ মোট ৫১ হাজার ৮৪ কোটি টাকা উন্নয়ন সহায়তা প্রদান করা হয়েছে। কৃষকের মাঝে বিনামূল্যে বা স্বল্পমূল্যে কৃষি উপকরণ বিতরণের জন্য বিগত সাত বছরে প্রণোদনা ও কৃষি পুনর্বাসন কর্মসূচি হিসেবে ৪৭৯ কোটি ২৮ লাখ টাকা উন্নয়ন সহায়তা প্রদান করা হয়। কৃষকদের কৃষি উপকরণ সহায়তা কার্ড চালু করি। ১০ টাকায় কৃষকের ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খুলে সরকারি প্রণোদনাসহ অন্যান্য সহায়তা প্রদানে ব্যাপক সাফল্য অর্জন করি।’

সরকারের পাশাপাশি কৃষিখাতে বিনিয়োগে বেসরকারি খাতকেও উৎসাহিত করা হচ্ছে। কৃষি উন্নয়নে বাংলাদেশ আজ একটি রোল মডেলে পরিণত হয়েছে। সম্প্রতি জাতিসংঘের খাদ্য ও কৃষি সংস্থা (এফএও) আমাদের প্রচলিত ‘ভাসমান সবজি চাষ পদ্ধতি’কে বিশ্বের ঐতিহ্যবাহী চাষপদ্ধতির স্বীকৃতি দিয়েছে বলে উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে