Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 1.0/5 (1 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০১-০৫-২০১৬

আসানসোলে কেক কেটে আজ পালন মমতার জন্মদিন

ফিরোজ ইসলাম


মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্মদিন কবে? ইন্টারনেট-তথ্য বলছে, ১৯৫৫ সালের ৫ জানুয়ারি। সেইদিনটি আজ, মঙ্গলবার। তবে সেভাবে তাঁর জন্মদিন কখনও পালন করেন না মমতা। কিন্তু তাতে কি আর তাঁর ভক্তদের ঠেকিয়ে রাখা যায়!

আসানসোলে কেক কেটে আজ পালন মমতার জন্মদিন
সন্তোষপুরে সেলিব্রিটিদের ক্রিকেট খেলা দেখতে মাঠে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

কলকাতা, ০৫ জানুয়ারি- আসানসোলের তৃণমূল নেতা-কর্মীরা মঙ্গলবার শহর জুড়ে একাধিক কর্মসূচির মাধ্যমে নেত্রীর জন্মদিন পালন করছেন। রাজনৈতিক-প্রশাসনিক দুই স্তরেই জাঁকজমক সহকারে পালন হচ্ছে সেই জন্মদিন। তৃণমূলের আসানসোল জেলা সভাপতি ভি শিবদাসন সোমবার বলেছেন ‘‘দলের নির্দেশ মেনেই জানুয়ারির প্রথম সপ্তাহে কর্মসূচি হচ্ছে। আমরা ৫ জানুয়ারিকে বেছে নিয়েছি বিভিন্ন কর্মসূচির জন্য।’’ দল এবং পুরসভার তরফে ইতিমধ্যেই একাধিক জায়গায় মমতার জন্মদিন উল্লেখ করে হোর্ডিং এবং ব্যানার দেওয়া হয়েছে।

কীভাবে তাঁরা নিশ্চিত হলেন যে, ৫ জানুয়ারি মুখ্যমন্ত্রীর জন্মদিন, তার কোনও ব্যাখ্যা পাওয়া যায়নি। পুরসভার মেয়র জিতেন্দ্র তিওয়ারিও নির্দিষ্টভাবে জানাতে পারেননি মুখ্যমন্ত্রীর জন্মদিন কবে। তবে নামপ্রকাশে অনিচ্ছুক এক নেতা ইন্টারনেট তথ্যের কথা বলেছেন।

বছর দেড়েক আগে লোকসভা নির্বাচনে আসানসোলে হেরেছিলেন তৃণমূলের দোলা সেন। বিজেপি’র কাছে দলীয় প্রার্থীর ওই পরাজয় মমতা মেনে নিতে পারেননি। ভোটপ্রক্রিয়ার সঙ্গে জড়িত দলীয় নেতৃত্বকে তাঁর কোপে প়ড়তে হয়েছিল। পরাজয়ের সেই ক্ষত খানিকটা ভরাট হয়েছে মমতার অন্যতম ‘আস্থাভাজন’ মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাসের ‘দক্ষতা’য় আসানসোল পুরভোটে জয়ে। তবে তাতেও সন্তুষ্ট নন মুখ্যমন্ত্রীর অনুগত সৈনিক আসানসোল পুরসভার মেয়র জিতেন্দ্র। তাঁরা একধাপ এগিয়ে প্রশাসনিক ও রাজনৈতিক স্তরে মুখ্যমন্ত্রীর জন্মদিন পালন করছেন। কারণ, তস্মিন তুষ্টে জগৎ তুষ্ট! নেত্রী তুষ্ট থাকলে তৃণমূলের ভুবনও তুষ্ট থাকবে।

তৃণমূল এবং পুরসভার যৌথ উদ্যোগে মমতার জন্মদিন পালনে একগুচ্ছ কর্মসূচি নেওয়া হয়েছে। আসানসোল পুরসভার মূল প্রবেশদ্বারে এলইডি আলো দিয়ে লেখা হয়েছে, ‘হ্যাপি বার্থডে মমতা’। শহরের উপকণ্ঠে কালিপাহাড়িতে পুরসভার উদ্যোগে একটি তোরণও নির্মাণ করা হয়েছে। ওই তোরণের দু’দিকে মুখ্যমন্ত্রীর কাট-আউট লাগানো হয়েছে। সেখানে আসানসোলকে ‘ভ্রাতৃত্বের শহর’ (সিটি অফ ব্রাদারহু়ড) বলে বর্ণনা করা হয়েছে।

তোরণে এমন ভাবনা কেন?  
মেয়র জিতেন্দ্র বলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রী যখনই আসানসোল এসেছেন, তখন তাঁর কথায় এমন ভাবনার প্রকাশ দেখেছি। তাই তাঁর ভাবনাকে মর্যাদা দিতেই পুরসভার এই উদ্যোগ।’’

সদ্য পলিথিন ব্যবহার নিয়ে কুরুক্ষেত্রের চেহারা নেওয়া আসানসোলে পরিবেশবান্ধব নতুন প্রকল্প শুরুর জন্য মুখ্যমন্ত্রীর জন্মদিনকেই বেছে নিতে চেয়েছেন জিতেন্দ্র। ‘ক্লিন আসানসোল গ্রিন আসানসোল’ নাম দিয়ে প্রকল্পের আওতায় ৫০ হাজার গাছ লাগানো ছাড়াও বিলি করা হবে ১০ হাজার চটের ব্যাগ। রাজনৈতিক স্তরে দলীয় কর্মীদের আরও উদ্বুদ্ধ করতে শহরজুড়ে রক্তদান কর্মসূচিরও উদ্যোগী হয়েছে আসানসোল পুরসভা। অন্তত ১০টি জায়গায় রক্তদান শিবিরের আয়োজন হচ্ছে। মুখ্যমন্ত্রীর লোকসংস্কৃতির প্রতি উৎসাহের কথা মাথায় রেখে সন্ধ্যাবেলা লোকসংস্কৃতি উৎসবও হবে। কাটা হবে মুখ্যমন্ত্রীর নামাঙ্কিত কেক।
মুখ্যমন্ত্রী নিজে কি জানেন তাঁর জন্মদিন এমন ঘটা করে পালনের কথা?

তাঁর ঘনিষ্ঠ সূত্র বলছে, জানেন না।

জানলে অনুমতি দিতেন?

খুব নিশ্চিত নন দলের শীর্ষনেতৃত্ব।  

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে