Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 2.6/5 (38 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৮-১৯-২০১৫

কুষ্টিয়ায় সবুজ হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত

কুষ্টিয়ায় সবুজ হত্যার আসামি ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নিহত
কুষ্টিয়ায় পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত জাকির হোসেনকে (বাঁ দিক থেকে তৃতীয়) গতবছর গ্রেপ্তার করেছিল র‌্যাব, ফাইল ছবি।

কুষ্টিয়া, ১৯ আগষ্ট-  কুষ্টিয়ায় শোক দিবসের অনুষ্ঠানে যুবলীগকর্মী সবুজ হত্যা মামলার সন্দেহভাজন এক আসামি গভীর রাতে পুলিশের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার রাত দেড়টার দিকে জগতি চেচুয়া রেলবাজারের পাশে একটি বাগানের ভেতরে গোলাগুলির এ ঘটনা ঘটে বলে কুষ্টিয়া গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) ওসি সাব্বির উল আলম জানান।

নিহত জাকির হোসেনের (৩০) বাড়ি মিরপুর উপজেলার আহাম্মদপুর গ্রামে।

সবুজ হত্যা মামলা ছাড়াও জাসদ নেতা পাঞ্জের হত্যা মামলার অন্যতম আসামি ছিলেন তিনি।

পুলিশ বলছে, জাসদ নেতা পাঞ্জের হত্যার প্রধান আসামি দুলালের ‘ডান হাত’ ছিলেন জাকির। তিনি দুলালের ‘অবৈধ অস্ত্রের কারবারেও’ জড়িত ছিলেন।

ওসি সাব্বির জানান, সন্ত্রাসীরা ‘নাশকতা সৃষ্টির উদ্দেশ্যে’ বৈঠক করছে খবর পেয়ে গোয়েন্দা পুলিশের একটি দল রেলবাজার এলাকায় যায়।

“সেখানে অবস্থান নিয়ে থাকা সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি চালায়। এ সময় পুলিশও পাল্টা গুলি করে। প্রায় আধা ঘণ্টা গোলাগুলির এক পর্যায়ে সন্ত্রাসীরা পিছু হটে। পরে সেখানে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় একজনকে পাওয়া যায়।”

পুলিশ তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে জানা যায়, নিহত ব্যক্তি জাকির হোসেন।

ঘটনাস্থল থেকে একটি বন্দুক, দুটি হাসুয়া ও তিনটি গুলি উদ্ধারের কথা জানিয়েছে পুলিশ।

‘বন্দুকযুদ্ধে’ উজ্জ্বল হোসেন, কনক রেজা, সরোয়ার হোসেন, আনিসুর রহমান ও সুজন নামের পাঁচ পুলিশ সদস্যও আহত হয়েছেন; তাদের সদর হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ওসি। 

তিনি বলেন, “জাকির গত শনিবার শোক দিবসের র‌্যালিতে নিহত যুবলীগ কর্মী সবুজ হত্যা মামলার পাঁচ নম্বর আসামি।”

গত ১৫ অগাস্ট দুপুরে জাতীয় শোক দিবসের অনুষ্ঠানের মধ্যে জেলা শহরের মজমপুর গেইট এলাকায় আওয়ামী লীগের দুই পক্ষ সংঘর্ষে জড়ালে সবুজ (২৫) নামের এক যুবলীগকর্মী ছুরিকাঘাতে নিহত হন, আহত হন অন্তত পাঁচজন।

শহর আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মোমিনুর রহমান মোমিজের কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেনের সমর্থকদের ওই সংঘর্ষ হয়।

এ ঘটনায় সবুজের ভাই আরিফ কুষ্টিয়া মডেল থানায় যে হত্যা মামলা দায়ের করেছেন, তাতে সাজ্জাদ হোসেনসহ ২০ জনকে আসামি করা হয়েছে। জাকির স্বেচ্ছাসেবক লীগের নেতা সাজ্জাদের পক্ষের লোক ছিলেন বলে স্থানীয়দের তথ্য।

ওসি সাব্বির জানান, গত বছর ১৪ এপ্রিল কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার পোড়াদহ ইউনিয়নের আহমেদপুর বাজারে গুলি করে হত্যা করা হয় জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দলের (জাসদ) সাবেক সহ-সভাপতি ইসমাইল হোসেন পাঞ্জেরকে (৫৬)। এর এক মাসের মাথায় র্যা ব জাকিরকে গ্রেপ্তার করে।

গত জুলাই মাসে ওই মামলা থেকে তিনি জামিনে মুক্তি পান বলে জানান ওসি।

কুষ্টিয়া

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে