Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (49 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ১১-১৯-২০১৮

উদীচীর সুবর্ণ জয়ন্তী ও কানাডা শাখার ৬ষ্ঠ সম্মেলনে নতুন কমিটি গঠিত

অখিল সাহা


উদীচীর সুবর্ণ জয়ন্তী ও কানাডা শাখার ৬ষ্ঠ সম্মেলনে নতুন কমিটি গঠিত

টরন্টো, ১৯ নভেম্বর- ”আঁধার বৃন্তে আগুন জ্বালো, আমরা যুদ্ধ আমরা আলো” শ্লোগান বুকে ধরে ১০ই নভেম্বর শনিবার ও ১১ই নভেম্বর রবিবার দুই দিনব্যাপী বাংলাদেশ উদীচী শিল্পীগোষ্ঠীর গৌরবের সুবর্ণ জয়ন্তী ও উদীচী কানাডা শাখার ৬ষ্ঠ দ্বিবার্ষিক সম্মেলন উপলক্ষ্যে টরন্টোতে শেষ হলো জমজমাট সাংস্কৃতিক উৎসব, শিশু-কিশোরদের নাচ, গান, আবৃত্তি ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণ, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের প্রথিতযশা লোকসংগীত শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায়ের সম্মাননা ও তাঁর একক পরিবেশনা এবং বিপুলসংখ্যক কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে প্রানবন্ত কাউন্সিল অধিবেশনে নতুন কমিটি নির্বাচন। কাউন্সিলররা সম্মেলনে উদীচীকে কমিউনিটির সাংস্কৃতিক কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তোলার আহ্বান জানিয়েছেন।

কাউন্সিল অধিবেশনে কানাডা শাখার দীর্ঘদিনের নিবেদিত প্রান উদীচী কর্মী এবং সম্মেলন ও উৎসব উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক শিল্পী সুভাষ দাশকে সভাপতি এবং ছাত্র সংগ্রাম পরিষদ ও বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়ন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক নেতা পরিশ্রমী উদীচী সংগঠক মিনারা বেগমকে সাধারণ সম্পাদক হিসাবে নির্বাচিত করে উদীচী কানাডা শাখার ৬ষ্ঠ সম্মেলনে হল ভর্তি কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে ৩৩ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটি নির্বাচন সম্পন্ন হয়। এছাড়াও নতুন কমিটিতে আছেন ৮ জন সহ: সভাপতি যথাক্রমে সৌমেন সাহা, স্বপন বিশ্বাস, চিত্ত ভৌমিক, হাসমত আরা চৌধুরী জুঁই, বাবলা দেব (মন্ট্রিয়ল), অনুপ সেনগুপ্ত, ডঃ মমতাজ মমতা, সুব্রত পুরু। নির্বাচিত ২ জন সহ: সাধারণ সম্পাদক আছেন যথাক্রমে সোলায়মান তালুত রবীন এবং শাহাবুদ্দিন ভুঁইয়া স্বপন। কোষাধ্যক্ষ পদে কোন পরিবর্তন হয়নি।


সেখানে রয়ে গেছেন দুলাল পাল। ৭ সদস্য বিশিষ্ট সম্পাদকমন্ডলীতে আছেন সজীব চৌধুরী, অখিল সাহা, জয় দাশ, রিনি শাখাওয়াত, ওমর হায়াৎ, দেবযানী রায় চৌধুরী লোপা ও তাপস দেব। নির্বাহী কমিটিতে ১৩ জন সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন যথাক্রমে আজিজুল মালিক, সৈয়দ আজফার ফেরদৌস, মুক্তি প্রসাদ, সুনীতি সরদার, রোকেয়া পারভীন, স্নিগ্ধা চৌধুরী, আরিফ হোসেন বনি, রেজা অনিরুদ্ধ, অনিরুদ্ধ অমি, পারভেজ চৌধুরী, অদিতি জহির, সূচনা দাশ বাঁধন এবং জাওয়াদ তালুত। কানাডা শাখার পক্ষ থেকে জাতীয় পরিষদ সদস্য হিসাবে মনোনিত হয়েছেন সৌমেন সাহা।

”আঁধার বৃন্তে আগুন জ্বালো, আমরা যুদ্ধ আমরা আলো” শ্লোগান বুকে ধরে ১০ই নভেম্বর শনিবার গ্রান্ড প্যালেস কনভেনশন সেন্টারের টরন্টো শহর ও টরন্টো সংলগ্ন আশেপাশের শহর মাতিয়ে বিপুল সংখ্যক দর্শকশ্রোতার উপস্থিতিতে উজ্জ্বল হয়ে উঠা সুবৃহৎ হলে উদীচীর নিজস্ব শিল্পীদের সাংস্কৃতিক উৎসব ও উদীচী নিয়ে সুব্রত পুরুর রচিত মনমাতানো জারিগান, উদীচীর কিশোর-কিশোরী প্রজন্ম পরিবেশিত মনমুগ্ধকর নাটিকা ”প্রজন্মের অন্তর্দ্বন্দ্ব”(ঞযব এবহবৎধঃরড়হ এধঢ়), নাচ, গান, আবৃত্তি ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনকারী ও বিজয়ী শিশু-কিশোরদের মধ্যে সনদ ও পুরস্কার বিতরণ এবং সবশেষে স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের প্রথিতযশা লোকসংগীত শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায়ের সম্মাননা ও তাঁর একক পরিবেশনা। শিল্পীকে উদীচীর উত্তরীয় পরিয়ে দেন কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আজিজুল মালিক এবং তাঁকে ক্রেস্ট প্রদান করেন শাখার সভাপতি সৈয়দ আজফার চৌধুরী।

সাংস্কৃতিক উৎসবের পুর্ববর্তী সপ্তাহান্তের বন্ধের ২ দিনে সমাপ্ত হয়ে শিশু-কিশোরদের নাচ, গান, আবৃত্তি ও চিত্রাংকন প্রতিযোগিতা পর্ব। প্রতিযোগিতার প্রথম দিন ৩রা নভেম্বর শনিবার মিজান অডিটরিয়াম কমপ্লেক্সে সকাল ১০.৩০টায় শুরু হয় ক (৪-৮ বছর), খ(৯-১৩ বছর) ও গ(১৪-১৮ বছর) গ্রুপের গান ও নাচের দিনব্যাপী প্রতিযোগিতা এবং পরবর্তী দিন ৪ঠা অক্টোবর রবিবার সকাল ১০.৩০টায় ক ও খ গ্রুপের চিত্রাংকন ও আবৃত্তি প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয় উদীচীর নিজস্ব কার্যালয়ে। প্রতিযোগিতার চারটি বিভাগে বিপুল উৎসাহ-উদ্দীপনাসহকারে প্রায় একশত শিশু-কিশোর অংশগ্রহন করে।


সুবর্ণ জয়ন্তী উপলক্ষ্যে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায়, আজিজুল মালিক ও সুভাষ দাশ। এ পর্বে সভা পরিচালনায় ছিলেন সৌমেন সাহা এবং সভাপতিত্ত্ব করেন সৈয়দ আজফর ফেরদৌস। আলোচনা সভা শেষে সম্মাননা প্রাপ্ত শিল্পী পুরস্কারপ্রাপ্ত শিশু-কিশোরদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন। এ অনুষ্ঠানে মন্ট্রিয়ল শাখার পক্ষ থেকে উপস্থিত ছিলেন বাবলা দেব। উৎসবে স্থানীয় স্কারবরো সাউথ থেকে নির্বাচিত অন্টারিও এমপিপি ডলি বেগম উদীচীর সুবর্ণ জয়ন্তীকে গৌরবময় অধ্যায় হিসাবে আখ্যায়িত করেন এবং শুভেচ্ছা জ্ঞাপন করেন। উৎসবের জারিগান ও গণসংগীতে উদীচীর শিল্পীদের মধ্যে অংশগ্রহন করেছেন সুভাষ দাশ, হাসমত আরা চৌধুরী জুঁই, সজীব চৌধুরী, সোলায়মান তালুত রবীন, শাহাবুদ্দিন ভুঁইয়া স্বপন, সুনীতি সরদার, স্নিগ্ধা চৌধুরী, দেবযানী রায় চৌধুরী লোপা, রিনি শাখাওয়াত, রোকেয়া পারভীন, ওমর হায়াত চৌধুরী ও মাধবী চৌধুরী। নোঙ্গর তোল তোল গণসংগীতের সাথে দলীয় নৃত্যে অংশ নিয়েছেন নৃত্যশিল্পী চিত্রা দাশ ও তাঁর দলবল নুরেন, সুলগ্না, ভুমি ও নিশু। আরশীর সামনে একা একা দাড়িয়ে গানটিতে নাচে অংশ নিয়েছেন চিত্রা দাশ।

দাদা বন্দুকরে, একবার তোরা আমায় গানটির সাথে কোরিওগ্রাফিতে অংশ নিয়েছেন অনুপ সেনগুপ্ত, জাওয়াদ তালুত, সুবর্ণ দাশ সৃজন, সাম্য সাহা, হাসিব করিম ও আফতাব জহির। প্রজন্মের অন্তন্দ্বন্দ্ব নাটিকাটিতে  অংশ নিয়েছেন অদিতি জহির, জাওয়াদ তালুত, সূচনা দাশ বাঁধন, আফতাব জহির ও সুকন্যা চৌধুরী। সাংস্কৃতিক উৎসবে ও শিল্পী রথীন্দ্রনাথ রায়ের সাথে তবলা শিল্পী হিসাবে ছিলেন সজীব চৌধুরী, কি বোর্ডে মেহেদী ফারুক, পারকুশনে স্নিগ্ধা চৌধুরী, সামগ্রিক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন দেবযানী রায় চৌধুরী লোপা এবং নাটিকার ধারা বর্ণনায় ছিলেন সূচনা দাশ বাঁধন।

কাউন্সিলে শোক প্রস্তাব ও কানাডার রিমেমব্রেন্স দিবস উপলক্ষ্যে প্রস্তাব পাঠ করেন উদযাপন কমিটির পক্ষ থেকে মিনারা বেগম। কাউন্সিলের সবচেয়ে গুরুত্ত্বপুর্ণ অংশ ছিল শাখা কমিটির পক্ষ থেকে বিগত দুই বছরের সম্পাদকীয় প্রতিবেদন এবং আর্থিক প্রতিবেদন, যা উপস্থাপন করেন পুর্ববর্তী সাধারণ সম্পাদক সৌমেন সাহা এবং কোষাধ্যক্ষ দুলাল পাল।


সম্পাদকীয় প্রতিবেদনে সংগঠনের পরিকল্পনার বিভিন্নদিকের পাশাপাশি ভবিষ্যত পরিকল্পনা উঠে আসে। অন্যান্য বারের মতই সম্মেলন  উপলক্ষ্যে প্রকাশিত হয়েছে ’সংহতি’ নামের স্মরণিকা। বিজ্ঞাপন দিয়ে, সরাসরি অর্থ সহায়তা ও অন্যভাবে সহযোগিতার জন্য সকল ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের পাশাপাশি বিভিন্ন প্রচার মাধ্যমকে উদীচীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করা হয়েছে। প্রবাসী বাঙালীর নতুন প্রজন্মকে বাঙালীর আবহমান সংস্কৃতি, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা, উদীচীর সাংস্কৃতিক আন্দোলন, দেশপ্রেম ও আগামী পৃথিবীর নতুন জ্ঞান-বিজ্ঞানের অগ্রগতির সাথে সম্পৃক্ত করার অংশ হিসাবে উদীচী কানাডা শাখার নতুন ও সক্রিয় নেতৃত্ত্ব গড়ে তোলার লক্ষ্যে আয়োজিত এই সম্মেলনের অনুষ্ঠানমালা নতুন প্রজন্ম ও প্রবাসীদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে।

সুবর্ণ জয়ন্তী ও ৬ষ্ঠ সম্মেলনকে সফল করে তোলায় সহযোগিতার জন্য সংশ্লিষ্ট সকল ব্যক্তি, প্রতিষ্ঠান ও প্রচার মাধ্যমকে সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রাক্তন সভাপতি সৈয়দ আজফার ফেরদৌস ও প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক সৌমেন সাহা সকলকে ধন্যবাদ ও শুভেচ্ছা জানিয়ে নতুন কমিটির সাফল্য কামনা করেছেন।

আর/১২:১৪/১৯ নভেম্বর

কানাডা

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে