Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (25 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০৬-২৬-২০১৮

জামালপুরে হচ্ছে শেখ হাসিনা স্পেশালাইজড জুট টেক্সটাইল মিল

জামালপুরে হচ্ছে শেখ হাসিনা স্পেশালাইজড জুট টেক্সটাইল মিল

জামালপুর, ২৬ জুন- শেখ হাসিনা স্পেশালাইজড জুট টেক্সটাইল মিল নির্মাণের উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার। জামালপুরের মাদারগঞ্জ উপজেলায় এটি স্থাপন করা হবে। প্রকল্পটি বাস্তবায়নে খরচ ধরা হয়েছে ৫১৮ কোটি ৮৫ লাখ টাকা। এরই মধ্যে প্রকল্পটির অনুমোদনের প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করা হয়েছে। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) আগামী সভায় এটি উপস্থাপন করা হতে পারে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এটি নির্মাণ করা হলে পোশাক শিল্পের জন্য তিন স্তরের জিএসপি সুবিধা আদায় করার জন্য পরিবেশবান্ধব সংমিশ্রিত সুতা ও কাপড় উৎপাদন করা যাবে। এছাড়া প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে চাকরির সুযোগ তৈরি এবং বহুমুখী পণ্য উৎপাদন ও রফতানিতে প্রকল্পটি সহায়ক হবে। অনুমোদন পেলে চলতি বছর থেকে ২০২০ সালের জুনের মধ্যে এই প্রকল্প বাস্তবায়ন করবে বাংলাদেশ পাটকল করপোরেশন (বিজেএমসি)। পরিকল্পনা কমিশন সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

পরিকল্পনা কমিশনের একাধিক কর্মকর্তা বলেন, প্রকল্পটি প্রথমে ঢাকা জেলার ডেমরায় বিজেএমসির লতিফ বাওয়ানী জুট মিলসের অব্যবহৃত জায়গায় বাস্তবায়নের জন্য প্রস্তাব করে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়। এ প্রকল্পটির ওপর ২০১৬ সালের ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত প্রথম প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটি (পিইসি) সভায় অনুমোদনের জন্য সুপারিশ করা হয়। পরে স্থান পরিবর্তন করে জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জে প্রকল্পটি বাস্তবায়নের জন্য প্রস্তাব করে মন্ত্রণালয়। ২০১৮ সালের ২২ এপ্রিল দ্বিতীয় পিইসি সভায় কিছু শর্তসাপেক্ষে অনুমোদনের জন্য সুপারিশ করা হয় এই প্রকল্প।

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, বিশ্বে সবচেয়ে বেশি সহজলভ্য প্রাকৃতিক তন্তু হলো পাট। উষ্মমণ্ডলীয় দেশ হিসেবে প্রকৃতির আশীর্বাদপুষ্ট বাংলাদেশে প্রচুর পাট উৎপাদনের সুযোগ রয়েছে। পাট মূলত বহুমুখী ও পুনঃব্যবহার উপযোগী, টেকসই, দূষণমুক্ত, পচনশীল, নিরাপদ ও স্বাস্থ্য ঝুঁকিমুক্ত এবং পরিবেশবান্ধব তন্তু। এসব কারণে অভ্যন্তরীণ ও বৈদেশিক বাজারে বহুমুখী পাটপণ্যের চাহিদা দিন দিন সম্প্রসারিত হচ্ছে। ফলে বহুমুখী পাটজাত পণ্য রফতানি করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনের সুযোগ তৈরি হয়েছে।

এদিকে, ২০১৪ সালের ১২ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয় পরিদর্শনের সময় বিজেএমসিকে ফের উৎপাদনশীল করে তোলার নির্দেশ দেন। পরবর্তী সময়ে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রীর সভাপতিত্বে ২০১৬ সালের ২১ আগস্ট অনুষ্ঠিত সভায় বিজেএমসির নিয়ন্ত্রণাধীন জুট মিলে বহুমুখী পাট পণ্য উৎপাদনের জন্য পৃথক ইউনিট স্থাপনের জন্য প্রকল্প প্রণয়নের নির্দেশনা দেওয়া হয়। প্রকল্পের অন্যতম উদ্দেশ্য হচ্ছে পাট ও তুলার মিশ্রণে সাশ্রয়ী মূল্যে সুতা, কাপড় ও তৈরি পোশাক (বিশেষভাবে ডেনিম প্যান্ট, জ্যাকেট, শার্ট) ইত্যাদি তৈরি ও বিক্রি করে অতিরিক্ত রফতানি আয় বাড়ানো।

আরও পড়ুন: রেল সেবার মান বাড়াতে বড় উদ্যোগ নিচ্ছে সরকার

প্রকল্পের প্রধান কার্যক্রমের মধ্যে রয়েছে— ভূমি উন্নয়ন কারখানা ভবন নির্মাণ, অফিস ভবন, অন্যান্য ভবন ও অবকাঠামো, অভ্যন্তরীণ রাস্তা নির্মাণ, প্রি-শিপমেন্ট ইনস্পেকশন, প্রশিক্ষণ, পরামর্শক, যানবাহন সংগ্রহ, যন্ত্রপাতি ও অফিস সরঞ্জামাদি সংগ্রহ করা।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পরিকল্পনা কমিশনের শিল্প ও শক্তি বিভাগের সদস্য শামীমা নার্গিস পরিকল্পনা কমিশনের মতামত দিতে গিয়ে বলেন, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে পাট ও তুলার সংমিশ্রণে সাশ্রয়ী মূল্যে সুতা উৎপাদন করে সুতা থেকে কাপড় ও পোশাক তৈরি করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন সম্ভব। পাশাপাশি দেশীয় তৈরি পোশাক শিল্পকে সাশ্রয়ী মূল্যে সুতা ও কাপড় সরবরাহ করে তিন স্তরের জিএসপি সুবিধা অর্জনের সহায়তা করা সম্ভব হবে।

তথ্যসূত্র: সারাবাংলা
আরএস/০৯:০০/ ২৬ জুন

জামালপুর

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে