Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (66 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৬-১৪-২০১৮

ফেনীতে পানিতে ভেসে গেছে ঈদ আনন্দ

ফেনীতে পানিতে ভেসে গেছে ঈদ আনন্দ

ফেনী, ১৪ জুন- টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে ফেনীর ফুলগাজী ও পরশুরামে প্লাবিত হয়েছে ২৫টি গ্রাম। নতুন করে আরও দুই জায়গায় ভাঙন দেখা দিয়েছে। এনিয়ে মুহুরী নদীর বেড়িবাঁধের ১৪ স্থানে ভাঙ্গন দেখা দিয়েছে।

মঙ্গলবার থেকে বুধবারের প্রবল বর্ষণে পরশুরাম উপজেলার মির্জানগর, চিথলিয়া ও পৌর এলাকার ১৬টি গ্রাম প্লাবিত হয়।

এতে কৃষকের ফসলের ক্ষেত, পুকুরের মাছসহ রাস্তা-ঘাটের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। 

পরশুরাম উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আহসান উদ্দিন ভাঙন কবলিত স্থান পরিদর্শন করেছেন। একইদিন বিকেলে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা করে ত্রাণ-সামগ্রী বিতরণ করেছেন জেলা প্রশাসক মনোজ কুমার রায়।

পরশুরামের মির্জানগর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ফজলুল বারী মনছুর জানান, ইউপির দক্ষিণ কাউতলী গ্রামে বুধবার সকালে আলি আশ্রাফ মজুমদারের বাড়ির পাশে নতুন বেড়িবাঁধটি ভেঙে যায়। এতে দক্ষিণ কাউতলী, কাশিনগর, চম্বকনগর, উত্তর কাউতলী গ্রাম প্লাবিত হয়।

চিথলিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান জসিম উদ্দিন জানান, ইউনিয়নের দুর্গাপুর গ্রামের আবদুর রহমানের বাড়ির পাশের মুহুরী নদীর বেড়িবাঁধ ভেঙে তিনটি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। একই ইউনিয়নের উত্তর শালধর গ্রামের মহসিন মেম্বরের বাড়ির পাশে বেড়িবাঁধ ভেঙে চারটি গ্রাম প্লাবিত হয়।

পরশুরাম উপজেলা ইউএনও মো. আহসান উদ্দিন মুরাদ জানান, উপজেলায় আটটি এলাকায় বেড়িবাঁধ ভেঙে বিস্তীর্ণ এলাকা প্লাবিত হয়। এতে কৃষকের ফসলি জমি, পুকুরের মাছসহ রাস্তা-ঘাটের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

অপরদিকে ভারী বর্ষণে ফুলগাজীতে মুহুরী নদীর ছয়টি বাঁধ ভেঙে অন্তত নয়টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। প্লাবিত গ্রামগুলোর মধ্যে রয়েছে, ঘনিয়া মোড়া, উত্তর দৌলতপুর, দক্ষিণ দৌলতপুর, উত্তর বরইয়া ও দক্ষিণ বরইয়া।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) কিসিঞ্জার চাকমা বলেন, ভাঙনের খবর পেয়ে তিনি সেসব এলাকা পরিদর্শন করেছেন ও ত্রাণের ব্যবস্থাও করেছেন।

এদিকে গেলো চার দিনের টানা বর্ষণ ও ভারতের উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে ঈদুল ফিতরের আনন্দ গোটা এলাকার মানুষের মুখের হাসি কেড়ে নিয়েছে।

কৃষকরা জানান, ঈদ উৎসব দূরের কথা, এই এলাকার হাজারো পরিবারে এখন ভিটেতে থাকতে পারছে না। অনেকেই তাদের  ছেলে-মেয়েদের পাঠিয়ে দিয়েছেন অন্য এলাকায় স্বজনদের বাড়িতে।

ক্ষতিগ্রস্তরা বলছেন, টানা বর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতি হয়েছে ফুলগাজী সদর ইউনিয়ন ও পরশুরামের চিথলিয়া ইউনিয়ন। বাড়ি-ঘরে পানি ঢুকে পড়ায় অসহনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তাদের।

এমএ/ ০১:১১/ ১৪ জুন

ফেনী

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে