Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.7/5 (15 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৫-১৫-২০১৮

গাজায় ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞ: নিহতের সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়েছে, ৩ দিনের শোক

গাজায় ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞ: নিহতের সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়েছে, ৩ দিনের শোক

গাজা, ১৫ মে- সোমবার জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থাপনের দিন ইসরায়েলি হত্যাযজ্ঞের শিকার হওয়া ফিলিস্তিনির সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়েছে। সুদূর লক্ষ্যভেদী অত্যাধুনিক ইসরায়েলি স্নাইপারে (বিশেষ ধারার বন্দুক, যা দিয়ে অনেক দূরের লক্ষ্যবস্তুকে নির্ভুল নিশানা বানানো যায়) অন্তত ৫৮ জন ফিলিস্তিনিকে হত্যা করা হয়েছে। জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থাপনকে কেন্দ্র করে এদিন আরও জোরালো হয় ভূমি দিবসের চলমান বিক্ষোভ কর্মসূচি। জাতিগত মুক্তির লড়াইয়ে অর্ধশতাধিক ফিলিস্তিনির আত্মাহুতির পাশাপাশি কর্মসূচি সফল করতে গিয়ে আহত হন অন্তত ২ হাজার ৪শ মানুষ। হতাহতদের স্মরণে মঙ্গলবার থেকে তিন দিনের শোক পালনের ঘোষণা দিয়েছে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ।

১৯৪৮ সালের ১৫ মে দখলীকৃত ফিলিস্তিনি ভূমিতে প্রতিষ্ঠিত হয় ইসরায়েল রাষ্ট্র। ১৯৭৬ সালের ৩০ মার্চ অবৈধ বসতি নির্মাণের প্রতিবাদ করায় ছয় ফিলিস্তিনিকে হত্যা করা হয়। পরের বছর থেকে ৩০ মার্চ থেকে ১৫ মে পর্যন্ত পরবর্তী ছয় সপ্তাহকে ভূমি দিবস হিসেবে পালন করে আসছে ফিলিস্তিনিরা। সোমবার দূতাবাস স্থানান্তরের প্রতিবাদে জোরালো হওয়া বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে ইসরায়েলি বাহিনীর গুলিতে নিহত হয়েছেন ৫৫ জন। গাজার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় সূত্রে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমগুলো জানিয়েছে, এদিনের কর্মসূচিতে নিহতদের মধ্যে ছয় শিশু এবং একজন প্যারামেডিক রয়েছেন। ২০১৪ সালে গাজায় ইসরায়েলি ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর একদিনে এত সংখ্যক ফিলিস্তিনি নিহতের ঘটনা এটাই প্রথম।

ভূমি দিবসের কর্মসূচির শেষ দিনটিকে ফিলিস্তিনিরা‘নাকবা’ বা বিপর্যয় দিবস হিসেবে পালন করে থাকে। গ্রেট রিটার্ন মার্চ খ্যাত এবারের কর্মসূচিতে সোমবারের আগ পর্যন্ত প্রাণ হারিয়েছেন অন্তত ৫৪ ফিলিস্তিনি। জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাস স্থানান্তরের প্রতিবাদে সোমবার সীমান্ত এলাকার ওই বিক্ষোভে অংশ নেন লাখো মুক্তিকামী ফিলিস্তিনি। এদিন নিহত ৫৮ ফিলিস্তিনিকে নিয়ে মৃতের সংখ্যা ১০০ ছাড়িয়েছে। বিক্ষোভে হানাদার বাহিনীর নির্বিচার গুলিবর্ষণে সাম্প্রতিক ইতিহাসের এ ভয়াবহ হত্যাযজ্ঞ সংঘটিত হয়। ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র আশরাফ আল কিদরা জানিয়েছেন, এদিনের কর্মসূচি পালন করতে গিয়ে আহত হয়েছেন ২৪০০ ফিলিস্তিনি।

গত বছরের ৬ ডিসেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের একক রাজধানীর স্বীকৃতি দেন। ইসরায়েলের মার্কিন দূতাবাস তেল আবিব থেকে সরিয়ে জেরুজালেমে নিয়ে যাওয়ার প্রস্তুতির কথাও জানান তিনি। সোমবার বাইরে তখন রক্তগঙ্গা বইছে, সেই সময়ে জেরুজালেমে মার্কিন দূতাবাসের উদ্বোধনের মধ্য দিয়ে ট্রাম্পের ঘোষণা বাস্তবায়ন করলো যুক্তরাষ্ট্র।

হোয়াইট হাউসের দুই গুরুত্বপূর্ণ উপদেষ্টা ট্রাম্পের জামাতা জ্যারেড কুশনার ও মেয়ে ইভাঙ্কা ট্রাম্প যখন সঙ্গীত পরিবেশনার মধ্য দিয়ে উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষ করছিলেন, ফিলিস্তিনিরা তখন হতাহতদের নিয়ে ব্যস্ত। বিক্ষোভরত ফিলিস্তিনিদের ওপর ইসরায়েলি হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে একে ম্যাসাকার আখ্যা দিয়েছেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস। হতাহতদের স্মরণে তিন দিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করেছেন তিনি।

সূত্র: বাংলা ট্রিবিউন

আর/০৭:১৪/১৫ মে

মধ্যপ্রাচ্য

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে