Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (40 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০১-২৮-২০১৮

মাটির সাথে কথোপকথন

দীপংকর বৈরাগী


মাটির সাথে কথোপকথন

ইমেজের বিভিন্ন প্রকল্পই মানুষের চেতনা প্রকাশের অন্যতম উপাদান। প্রতিচ্ছবি ও আকৃতি- এ দুটি উপাদান দৃশ্যকলার জগতে মুখ্য ভূমিকা রাখে। শিল্পী প্রকৃতিকে উপলব্ধি করেন প্রতিমাকল্পের মাধ্যমে, যা শিল্পীর সৃজনশীল প্রক্রিয়ার ভেতর দিয়ে দৃশ্যকলায় রূপান্তরিত হয়। প্রতিচ্ছবির ম্যানিপুলেশনের ক্রম-প্রক্রিয়ায় মূর্ত রূপ ক্রমান্বয়ে বিমূর্ততায় বাঁক বদল করে। গত ৬ থেকে ১৬ জানুয়ারি ধানমণ্ডির চিত্রক গ্যালারিতে শেষ হওয়া প্রদর্শনীটি চিরকালীন চিত্রকলার লোকায়ত মননেরই বহিঃপ্রকাশ। 

শিল্পী মনসুর উল করিম 'কনভেশন উইথ সয়েল', 'ইভস', 'জননী' শিরোনামে শিল্পকর্ম উপস্থাপন করেছেন এ প্রদর্শনীতে। গ্রামীণ পরিবেশে বেড়ে উঠলেও পড়াশোনার পাট চুকিয়ে দীর্ঘ সময় ধরে তিনি শিল্প-শিক্ষা দিয়েছেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে। অবসর জীবনে এসে ফিরেছেন জন্মভিটা রাজবাড়ীর গ্রামীণ আবহে। যেখানে তিনি গড়েছেন স্বপ্নের শিল্পচর্চার ভূমি 'বুনন' আর্ট স্পেস। 

'জননী' শিরোনামে ব্যতিক্রমী উপস্থাপনে ক্যানভাসে ভিন্ন ভিন্ন আঙ্গিকে যে চিত্রকর্ম রচনা করেছেন, সেখানে দেখা যায় রঙ ও রেখার স্বতন্ত্র ও ভিন্ন প্রয়োগ। চিত্রে ফুটে উঠেছে প্রশান্তির আখ্যান, যা নমনীয়তাকে আলতোভাবে স্পর্শ করে দর্শকের আবেগের অনুগামী হয়ে ওঠে। ক্যানভাসের ভিন্ন ভিন্ন রঙ ও রেখায় শিল্পী প্রতিকৃতিকে বিভিন্ন ভঙ্গিমায় উপস্থাপন করেছেন। 'কনভারসেশন উইথ সয়েল' শিরোনামে শিল্পী ভিন্ন আঙ্গিকে উপস্থাপন করেছেন গ্রামীণ জীবনাচরণ।

চিরায়ত বাংলার চালচিত্র ও অবয়ব-নির্ভরতায় অ্যাক্রিলিক রঙে গড়া সাম্প্রতিক সময়ে আঁকা স্বতন্ত্র ফর্মে নিজস্ব ঢঙে আঁকা চিত্রকর্মগুলো প্রদর্শনীতে নতুন মাত্রা এনে দিয়েছে, যা দর্শক, বোদ্ধা ও শিল্পী-মননে বা প্রদর্শিত চিত্রাবলিতে বিমূর্ততার আভাস থাকলেও সামগ্রিকভাবে মূর্তমান। স্বাভাবিকতাকে শিল্পী ভাঙার চেষ্টা করেছেন দ্বিমাত্রিক স্বভাবের এ ত্রিমাত্রিক চিত্রকর্মে। যেখানে চিত্রবিন্যাসে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে শিল্পীর ব্যক্তিগত দৃষ্টিভঙ্গি। তিনি নিজ মাটির প্রতি ভালোবাসা ও অঙ্গীকারকে ক্যানভাসে স্বতঃস্ম্ফূর্ত, বলিষ্ঠ ও সাবলীলভাবে উপস্থাপন করেছেন। গ্রামীণ শিশুর জন্মগ্রহণের পর আচার-অনুষ্ঠান ও খুশির বন্যাকে রঙ-রেখায় ছন্দায়িত করেছেন। রাখাল ও গরুর আনন্দকে রূপায়িত করেছেন রঙ-রেখার প্রক্ষেপণে। ফর্মের নানামুখিতায় চিত্রে এক ধরনের ইলুয়েশন তৈরি হয়। গাঢ় রঙের পরিমিত ব্যবহারে তিনি কখনও গ্রামীণ আবহে নববধূসহ বর্তমান সময়ের গ্রামীণ পোশাকি ভঙ্গিকেও তুলে ধরতে ভোলেননি।

রেখার বেড়াজালের মধ্যে বিন্যস্ত প্রকৃতি ও মানব প্রকৃতির প্রক্ষেপণে গৃহপালিত প্রাণীকে আশ্রয় করে সরল কম্পোজিশনে চিত্রপটে তুলে এনেছেন আমাদের পরিবেশের সামগ্রিকতাকে। 'ইভস' শিরোনামে স্বতন্ত্রভাবে ভিন্ন আঙ্গিকে চিত্রপটকে গতিশীল করে তোলার চেষ্টায় মগ্ন থেকেছেন রঙ ও রেখার সুর-তরঙ্গে। উজ্জ্বল রঙের বুনটের মাঝে অসংখ্য দাগ ও চটের বুনন ও টেক্সচারের সমন্বয়ে অর্ধভগ্ন প্রতিকৃতি নির্মাণে শিল্পী যেন ভিন্ন বার্তা দিতে চেয়েছেন। যেখানে বহুজ্যামিতিক ফর্মের সমন্বয়ে মানব অবয়বের উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেলেও সেটি মূর্তমানভাবে প্রকাশিত নয়। শিল্পীর কাছে মানুষ মুখ্য বিষয় নয়; তিনি প্রাকৃতিক সৌন্দর্যকে প্রাধান্য দিয়েছেন তার এ চিত্রমালায়। সময়ের সাথে সাথে সমকালীন চিত্রকলায় পরিবর্তন লক্ষ্য করা গেলেও বাংলার চিত্রকলা পশ্চিমা দৃষ্টিভঙ্গি থেকে মুক্ত হওয়ার পথ খুঁজে পাচ্ছে না বোধ হয়। অধিকাংশ শিল্পী তাদের নিজস্ব শিল্পরীতিকে অস্বীকার করে পশ্চিমা ধারার উৎসবে মত্ত থেকেই নিজের অস্তিত্বকে বিলিয়ে দিচ্ছেন অথবা অস্বীকার করছেন জ্ঞাত বা অজ্ঞাতসারে। 'কনভেনশন উইথ সয়েল' শিরোনামে শিল্পী মনসুর উল করিমের ২৫তম একক চিত্রকলা প্রদর্শনীর মাধ্যমে নতুন ভাবনায় আগামীর বাংলা নিজস্ব চিত্ররীতির সঞ্জীবনী সুধায় সমৃদ্ধ হবে- এমন আশা করা অবান্তর নয়। ভাবনা আদান-প্রদানের মাধ্যমে সমকালীন চিত্ররীতির প্রসার ঘটিয়ে নতুন নতুন বৈশিষ্ট্যের আত্তীকরণের ভেতরেই লুকিয়ে আছে ভবিষ্যৎ সম্ভাবনার বীজ। 

এমএ/১১:৫০/২৮ জানুয়ারি

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে