Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 3.0/5 (10 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print
আপডেট : ০১-১৩-২০১৮

মমতাকে বয়কট মোদী সরকারের 

মমতাকে বয়কট মোদী সরকারের 

কলকাতা, ১৩ জানুয়ারি- ভারতের কেন্দ্র-রাজ্য কে ঘিরে ক্রোধ যেন থামছে না। শুক্রবার সংকল্প-যাত্রাকে কেন্দ্র করে বিজেপি-তৃণমূলের ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। শুক্রবারের এই উত্তপ্ত পরিস্থিতির পর রাজ্য বিজেপির কাছ থেকে বার্তা পেয়ে কেন্দ্রের সরকার এবার বিশ্ববাংলা বাণিজ্য সম্মেলনে না আসার সিদ্ধান্ত নিল। ইতিমধ্যে নবান্নে সেই বার্তা পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। ফলে নরেন্দ্র মোদীর সরকারের পক্ষ থেকে কোন প্রতিনিধি এবার বিশ্ববাংলা সম্মেলনে প্রতিনিধিত্ব করবে না।

১৬-১৭ জানুয়ারি নিউটাউনে অনুষ্ঠিত হতে চলা বিশ্ববঙ্গ রাজ্য সম্মেলনে এবার কেন্দ্রের সরকারের পক্ষে নীতিন গড়করির প্রতিনিধিত্ব করার কথা ছিল। কিন্তু এদিনের সংঘর্ষের দায় গিয়ে পড়ল বাণিজ্য সম্মেলনের উপর। রাজ্য তথা দেশের মান-সম্মান জড়িয়ে রয়েছে যেখানে, সেখানেই অনুপস্থিতি থেকে সম্মেলন বয়কট করে রাজ্যকে আঘাত করতে চলেছে কেন্দ্রের সরকার।

বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ বলেন, কেন্দ্রীয়মন্ত্রী নীতিন গড়করি নিজে ফোন করে তাঁকে জানান, তাঁরা রাজ্যের ডাকা বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলন বয়কট করছেন। রাজ্য সরকারকে আর কোনওভাবেই সহযোগিতা করতে চান তাঁরা। কারণ রাজ্য সরকার অরাজকতা চালাচ্ছেন বাংলায়। কেন্দ্রীয় বাণিজ্যমন্ত্রীর এই পদক্ষেপকে রাজ্য বিজেপির তরফে স্বাগতও জানানো হয়েছে। যে সরকার বিরোধী মুখকে পদদলিত করে, সেই সরকারকে তাঁরা সহযোগিতা করতে চান না।

আরও পড়ুন: মমতার রাজ্যে হবে 'অশোক লে ল্যান্ড' অটো মোবাইল কারখানা!

এদিন সকাল থেকেই বিজেপির সংকল্প-যাত্রাকে কেন্দ্র করে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল এলাকা। দফায় দফায় সংঘর্ষ, ভাঙচুর, হামলা চলেছে। এমনকী বিজেপির রাজ্য দফতরে পর্যন্ত হামলা করা হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে আন্দোলন আরও জোরদার করার বার্তা দিয়েছেন খোদ বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ। পরে বিজেপি রাজ্য সভাপতি কেন্দ্রের সহযোগিতা চেয়ে বার্তা দেন। তারপরই কেন্দ্রের তরফে রাজ্যকে বয়কটের সিদ্ধান্ত নেয় সরকার।

এই বয়কট প্রসঙ্গে রাজ্য বিজেপির পক্ষ থেকে বলা হয়, বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে শাসকদলের সঙ্গে এক মঞ্চ শেয়ার করার মতো পরিস্থিতি নেই। কারণ তিনি সরকারের প্রতিনিধি হলেও, আদলে তিনি দলেরই একজন। আর ওই মঞ্চ ব্যবহার করে তিনি রাজনৈতিক আক্রমণও করতে পারবেন না। তাই বয়কট করে রাজ্যকে বার্তা দেওয়াই সমীচিন বলে মনে করছে বিজেপি নেতৃত্ব।

এমএ/১১:৫০/১৩ জানুয়ারি

পশ্চিমবঙ্গ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে