Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ১২-০৭-২০১৭

নতুন সাত আন্তর্জাতিক রুট চালু করছে বিমান

রফিক মজুমদার


নতুন সাত আন্তর্জাতিক রুট চালু করছে বিমান

ঢাকা, ০৭ ডিসেম্বর- নতুন আরো সাতটি আন্তর্জাতিক রুটে ফ্লাইট চালু করতে যাচ্ছে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনস। এসব রুটে ফ্লাইট চলাচলের ব্যবসায়িক সম্ভাব্যতা যাচাই চলছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী লাভজনক রুট চিহ্নিত করে এসব রুটে ফ্লাইট চালু করার কার্যক্রম হাতে নিয়েছে বিমান। ফ্লাইট চালু করতে যাওয়া রুটগুলো হলো- ঢাকা-গুয়াংজু , মদিনা, কলম্বো, মালে, টোকিও, সিডনি ও টরেন্টো রুট। বিমান সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

এ বিষয়ে বিমানের মহাব্যবস্থাপক শাকিল মেরাজ জানান, আগামী বছরের ২৫ মার্চ চালু হচ্ছে চীনের গুয়াংজু ফ্লাইট। ঢাকা-মদিনা রুটে ফ্লাইট চলাচলের ব্যবসায়িক সম্ভাব্যতা যাচাই সম্পন্ন হয়েছে। ব্যবসায়িকভাবে লাভজনক মনে হওয়ায় এ রুট চালুর বিষয়টি মোটামুটি চূড়ান্ত। অল্প সময়ের ব্যবধানে উড়োজাহাজ সংগ্রহের প্রক্রিয়া শেষ হলেই এ রুটে ফ্লাইট চলাচলের দিন-তারিখ ঠিক করা হবে।

তিনি বলেন, নিকট ভবিষ্যতে ঢাকা-কলম্বো ও ঢাকা-মালে রুটের ফ্লাইট পরিচালনার দিন তারিখ ঘোষণা করা হবে। এছাড়া টোকিও, সিডনি ও টরেন্টো রুটে ফ্লাইট চলাচলের ব্যবসায়িক সম্ভাব্যতা যাচাই চলছে। এসব রুটে ফ্লাইট চালুর আগেই বিমান বহরে ২০১৮ সালের আগস্ট ও নভেম্বরে যুক্ত হচ্ছে বোংয়িংয়ের সর্বাধুনিক দুটি এয়ারক্রাপ্ট ৭৮৭ ড্রিমলাইনার। ২০১৯ সালের আগস্টে আরো দুটি বোয়িং ৭৮৭ ড্রিমলাইনার যোগ দেবে বিমানবহরে।

অত্যাধুনিক এসব এয়ারক্রাপ্ট আসার আগেই টোকিও, সিডনি ও টরেন্টো রুটে ফ্লাইট চলাচলের ব্যবসায়িক সম্ভাব্যতা শেষ করবে বিমান। উড়োজাহাজ সংগ্রহ ও ব্যবসায়িকভাবে লাভজনক মনে হলে ২০২০ সালের মধ্যে আরো কয়েকটি রুটে ফ্লাইট চালুর পরিকল্পনা করবে বিমান।

এ প্রসঙ্গে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) এএম মোসাদ্দিক আহমেদ বলেন, লাভজনক রুট চিহ্নিত করে ও সেসব রুটে ফ্লাইট চালু করা বিমানের নিয়মিত কার্যক্রমেরই অংশ। এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনাও রয়েছে। আমরা প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা ও প্রত্যাশা পূরণে নিরলস কাজ করে যাচ্ছি।

উল্লেখ্য, একসময় বাংলাদেশ ও জাপানের মধ্যে সরাসরি আকাশপথে যোগাযোগ ছিল। বাংলাদেশ বিমানের ঢাকা-টোকিও রুটটি চালু হয়েছিল ১৯৭৯ সালে। ১৯৮১ সালে সাময়িক বিরতির পর তা আবার চালু হয়। তখন ঢাকা-নারিতা রুটে ফ্লাইটটি চলত। ১৯৯২ সালে এ ফ্লাইট নাগোয়া পর্যন্ত সম্প্রসারণ করা হয়। সেটিও পরে বন্ধ হয়ে যায়। বিমানের উড়োজাহাজ বহরে বর্তমানে ৪টি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর, ৪টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০, ২টি বোয়িং ৭৭৭-২০০ ইআর, ২টি এয়ারবাস ৩৩০-২০০, ২টি ড্যাশ ৮–কিউ৪০০ অর্থাৎ মোট ১৩টি উড়োজাহাজ রয়েছে। এর মধ্যে ৪টি বোয়িং ৭৭৭-৩০০ ইআর, ২টি বোয়িং ৭৩৭-৮০০ অর্থাৎ মোট ৬টি উড়োজাহাজ বিমানের নিজস্ব এবং বাকি ৭টি উড়োজাহাজ ভাড়ায় নেয়া।

সূত্র: জাগোনিউজ২৪

আর/১৭:১৪/০৭ ডিসেম্বর

জাতীয়

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে