Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English

গড় রেটিং: 0/5 (0 টি ভোট গৃহিত হয়েছে)

print

আপডেট : ০৯-১৪-২০১৭

প্রতিবেশী হিসেবে মুসলিমদের পছন্দ নয় ইউরোপীয়দের

প্রতিবেশী হিসেবে মুসলিমদের পছন্দ নয় ইউরোপীয়দের

লন্ডন, ১৪ সেপ্টেম্বর- ইউরোপীয় সমাজে মুসলিমদের সংমিশ্রণকে সব মহল থেকে ইতিবাচকভাবে নেয়া হচ্ছে না। মহাদেশটির ২০ শতাংশ মানুষ প্রতিবেশী হিসেবে মুসলিমদের তেমন পছন্দ করেন না।

জার্মানির বার্টেলসমান স্টিফটাং নামের একটি প্রতিষ্ঠানের ওয়েবসাইটে রিলিজিয়াস মনিটর’ সংস্থার ২০১৭ সালের একটি জরিপের তথ্য নিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে। সেখানে ইউরোপীয় দেশগুলোতে মুসলিমদের অবস্থান নিয়ে নানা ধরনের তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে।

অস্ট্রিয়ায় চারজন অমুসলিমের মধ্যে একজন বা তার বেশি কোনো মুসলিম প্রতিবেশি চান না৷ যুক্তরাজ্যে এই হার ২১ শতাংশ৷ জার্মানিতে অমুসলিম উত্তর প্রদানকারীদের ১৯ শতাংশ বলেছেন যে, তারা কোনো মুসলিম প্রতিবেশি পছন্দ করেন না৷ সুইজারল্যান্ডে এই অনুপাত হলো ১৭ শতাংশ ও ফ্রান্সে ১৪ শতাংশ৷ সব মিলিয়ে মুসলিমরা সর্বাধিক প্রত্যাখ্যাত সামাজিক গোষ্ঠীগুলির মধ্যে অন্যতম।

যেসব মুসলিমরা ধর্মপ্রাণ এবং ধর্মীয় আচার-ব্যবহারে সচেতন তারা সমাজের বৈষম্য ও শ্রমিকদের ন্যায্য মুজুরি মতো বিষয়গুলো নিয়েও সোচ্চার। যুক্তরাজ্য ছাড়া পুরো ইউরোপেই ধর্মপ্রাণ মুসলিমদের ভাল চাকরি পাওয়ার হার খুবই কম। শতকরা ৪১ শতাংশ মুসলিম যোগ্যতা অনুযায়ী ভাল চাকরি পেয়ে থাকেন। অপেক্ষাকৃত কম ধর্মপ্রাণ মুসলিমরা সহজেই চাকরি পেয়ে যান।

২০১০ সলের আগে যেসব মুসলিম জার্মানিতে এসেছেন, তাদের প্রায় ৬০ শতাংশের আজ ফুলটাইম চাকরি রয়েছে। আরো ২০ শতাংশ পার্টটাইম কাজ করছেন৷ অমুসলিমদের ক্ষেত্রেও পরিসংখ্যান ঠিক একই রকম৷ ইউরোপের অন্যান্য দেশে পার্থক্য অনেক বেশি, যেমন ফ্রান্সে মুসলিমদের মধ্যে বেকারত্বের হার ১৪ শতাংশ, কিন্তু অমুসলিমদের ক্ষেত্রে মাত্র ৮ শতাংশ৷

জার্মান সংবিধানে ধর্মীয় স্বাধীনতার গ্যারান্টি দেওয়া আছে৷ কিন্তু খ্রিষ্টীয় বা ইহুদি সম্প্রদায়গুলি যে ধরনের প্রশাসনিক স্বীকৃতি পেয়েছে, মুসলিম সম্প্রদায়ের পক্ষে তা পাওয়া কঠিন।

১৯৬০ এর দশক থেকে ইউরোপীয় দেশগুলোতে মুসলিম জনসংখ্যা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। বর্তমানে ইউরোপের অধিকাংশ দেশেই মুসলিম জনসংখ্যা মোট জনসংখ্যার মধ্যে শতকরা ৫ শতাংশে উন্নিত হয়েছে।

মুসলিমদের মিশ্রণের এই প্রক্রিয়ার বিপরীতে নানা রকম সামাজিক প্রতিবন্ধকতা থাকলেও এই সংখ্যা নিয়মিত বাড়ছে। জার্মানিতে জন্ম এমন মুসলিমদের তিন-চতুর্থাংশের প্রথম ভাষা হলো জার্মান৷ প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম যে ভাষাগত দক্ষতা বাড়তে থাকে, তা ইউরোপের অন্যত্রও দেখা গেছে৷

সুইস মুসলিমদের ৮৭ শতাংশ তাদের অবসর সময়ে অমুসলিমদের সঙ্গে নিয়মিত দেখাশোনা করে থাকেন৷ জার্মানি ও ফ্রান্সের ক্ষেত্রে তা ৭৮ শতাংশ, যুক্তরাজ্যে ৬৮ শতাংশ ও অস্ট্রিয়াতে ৬২ শতাংশ৷ সব সামাজিক বাধা সত্ত্বেও প্রজন্ম থেকে প্রজন্ম মুসলিম ও অমুসলিমদের মধ্যে এই যোগাযোগ চলে আসছে৷

জার্মানি, অস্ট্রিয়া, সুইজারল্যান্ড, ফ্রান্স ও যুক্তরাজ্যে প্রায় দশ হাজার নাগরিকের উপর জরিপ করে এই সব ফলাফল পাওয়া গেছে৷ যেসব মুসলিম উদ্বাস্তু ২০১০ সালের পরে ইউরোপে এসেছেন, তাদের এই জরিপে বিবেচনা করা হয়নি৷

আর/০৭:১৪/১৪ সেপ্টেম্বর

ইউরোপ

আরও সংবাদ

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে