Deshe Bideshe

DESHEBIDESHE

Login
ইউনিজয়
ফনেটিক
English
Rashifal

কোন রাশির মানুষ কেমন মা-বাবা হয়ে থাকেন?



মেষ (২১ মার্চ - ২০ এপ্রিল)

সব বিষয়েই আপনার উৎসাহ বেশি এবং অভিভাবকত্বের ক্ষেত্রেও তা সত্যি। এ কারণে আপনি নিজের সন্তানকে উৎসাহ দিতেও পটু। বাড়িতে এবং স্কুলে তারা যেন ভালো সময় কাটাতে পারে তার চেষ্টা করেন আপনি। তবে কম বয়সে বাব/মা হলে আপনি বাচ্চাদের দুষ্টুমি সহ্য করার ক্ষেত্রে একটু অধৈর্য হয়ে উঠতে পারেন। তবে শীঘ্রই এ সমস্যা কেটে যায়। মেষ মা সাধারণত অন্য সব কাজের চাইতে বাচ্চার জন্য বেশি সময় ব্যয় করেন।



বৃষ (২১ এপ্রিল - ২১ মে)

শৈশবে নিজে যে সব সুযোগ-সুবিধা পাননি, নিজের বাচ্চাকে সেসব দেওয়ার চেষ্টা করেন বৃষ অভিভাবক। তিনি হয়ে থাকেন বেশ নিয়মানুবর্তী, কিন্তু তাই বলে সন্তানকে স্নেহ দেবার ব্যাপারে কার্পণ্য নেই তার। তারা মাঝে মাঝে বাচ্চার পেছনে অতিরিক্ত খরচ করে ফেলেন। তবে সন্তানের শিক্ষার পেছনে যদি সেই খরচটা যায়, তবে তাতে কোনও ক্ষতি নেই।



মিথুন (২২ মে – ২১ জুন)

অভিভাবক হিসেবে আপনি প্রাণবন্ত এবং সুবিবেচক। নতুন নতুন আইডিয়া দিয়ে বাচ্চাদের ব্যাস্ত রাখতে পারেন আপনি। তবে সবসময় বাচ্চাদের মাঝে থাকতে কিছুটা বিরক্ত লাগতে পারে আপনার। সাধারণত বাচ্চার দেখাশোনা এবং কাজ সব একসাথে ম্যানেজ করতে অসুবিধে হয় না আপনার। আপনার বাচ্চারা সাহারন্ত আপনার মনোভাব বুঝতে পারে এবং সেভাবেই আচরণ করে। বাবা হিসেবে ভালো হয়ে থাকেন মিথুন, কারণ বয়স যতই হোক তার মন থাকে চির তরুণ।



কর্কট (২২ জুন – ২২ জুলাই)

কর্কটেরা অসাধারণ হয়ে থাকে অভিভাবক হিসেবে। সন্তানের যত্ন নেবার ব্যাপারে তারা নিবেদিতপ্রাণ। তবে মাঝে মাঝে বেশি নজরদারি করে থাকেন তারা। আবেগের বশে সন্তানদেরকে নিজের আচলে বেঁধে না রেখে আরেকটু স্বাধীনতা দেওয়া প্রয়োজন।



সিংহ (২৩ জুলাই - ২৩ আগস্ট)

সিংহ হলো সেই রাশি যা পিতৃত্বের প্রতীক। তিনি সন্তানের জন্য যথেষ্ট শিক্ষামূলক কাজ করতে উৎসাহী। আপনি বাচ্চাদের উৎসাহ দিতে ভালোবাসেন কিন্তু কখনো কখনো আপনার প্রত্যাশার চাপে পিষে যেতে পারে বেচারা। নিজের প্রত্যাশা তাদের ওপরে চাপিয়ে দেবেন না। তাদেরকে গড়ে তুলতে পারেন সহজ-সরল এবং সৎ মানুষ হিসেবে।



কন্যা (২৪ আগস্ট – ২৩ সেপ্টেম্বর)

কন্যা রাশির মানুষ সাধারণত পরিবার পরিকল্পনায় বিশ্বাসী হয়ে থাকে। অভিভাবক হিসেবে খুব মমতাময় হয়ে থাকেন তারা। তিনি ভালো মানুষ হিসেবে গড়ে তুলতে পারেন সন্তানকে। সন্তান যেন জীবনে কোনো ভালো অভিজ্ঞতাই না হারায়, তার দিকে তিনি নজর রাখেন। কম বয়সেই বাচ্চাদের পড়াশোনা শুরু করতে পছন্দ করেন তারা। তবে তাদের উচিৎ নিজের জন্যেও কিছু সময় রাখা নয়তো সন্তানের পেছনে দৌড়াতে দৌড়াতে ক্লান্ত হয়ে যাবেন।



তুলা (২৪ সেপ্টেম্বর – ২৩ অক্টোবর)

বেশ হালকা মেজাজের অভিভাবক হয়ে থাকেন তুলা। সন্তানের সাথে বেশি কঠোর হন না তারা। কিন্তু এর পরেও নিজের সন্তানকে সামাজিক মূল্যবোধ ঠিকই শেখাতে পারেন। সংসারে ঝামেলা পছন্দ করেন না তারা এবং সন্তান বেশি বায়না ধরলে শুধুমাত্র শান্তি বজায় রাখার জন্য “হ্যাঁ” বলে দেন। আপনি কোনো সিদ্ধান্ত নিতে দেরি করেন, যেটা আপনার সন্তানদের জন্য হয়ে উঠতে পারে বিরক্তিকর। বাচ্চদের সব আবদার মেটাতে ব্যস্ত হয়ে পড়েন আপনি কখনো কখনো।



বৃশ্চিক (২৪ অক্টোবর – ২২ নভেম্বর)

বাচ্চারা আজেবাজে কাজে নিজেদের সময় এবং সম্ভাবন নষ্ট করছে এমনটা দেখতে চান না আপনি। এ কারণে হয়ে থাকেন বেশ কঠোর এবং মেজাজি। তাদের নিজেদের জীবনের চাইতে যে সন্তানের জীবন আলাদা এটা বুঝে উঠতে চান না তারা।



ধনু (২৩ নভেম্বর – ২১ ডিসেম্বর)

ধনু নারী ও পুরুষ উভয়েই চিন্তা করে থাকেন, তারা হয়তো অভিভাবক হিসেবে ঠিক যোগ্য নন, অথবা কাজটা তাদ্র খুব একটা ভালো লাগে না। বাচ্চার সাথে খাপ খাওয়াতে কিছুটা সমস্যা হতে পারে তাদের। কিন্তু যথেষ্ট আন্তরিকতা থাকলে সেটাও সম্ভব।



মকর (২২ ডিসেম্বর – ২০ জানুয়ারি)

মকর রাশির কর্মজীবী মায়েরা সন্তানের জন্য নিজের কর্মক্ষেত্র থেকে সরে আসতে কিছুটা অস্বস্তি বোধ করতে পারেন। বাচ্চার সাথে মাঝে মাঝে আবেগশূন্য আচরণ করে থাকেন তারা। এসব সমস্যা কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করা উচিৎ তাদের।



কুম্ভ (২১ জানুয়ারি – ১৮ ফেব্রুয়ারি)

আপনি সন্তানদের যেভাবে বড় করে তোলেন, সে পদ্ধতিটা মোটেই সাধারণ নয়। আপনি হয়ে থাকেন তাদের সাথে বেশ ধৈর্যশীল এবং বাচ্চারাও আপনার পেছনে পেছনে ঘুরে বেড়াতে পছন্দ করে। আপনি তাদেরকে বাচ্চা বলে তাচ্ছিল্য করেন না মোটেই। তবে একটা ব্যাপারে সাবধান থাকুন, আপনি যেভাবে জীবন নিয়ে চিন্তা করেন, আপনার সন্তানের চিন্তা তার থেকে ভিন্ন হতেই পারে।



মীন (১৯ ফেব্রুয়ারি – ২০ মার্চ)

আপনার মাঝে নিয়ম-কানুন মানার প্রতি উদাসীনতা থাকলেও অভিভাবক হিসেবে আপনি চমৎকার। আপনি নিজের সন্তানের শৈশব বুঝতে পারেন, কারণ আপনার বয়স বাড়লেও আপনার মাঝে শিশুসুলভ মানসিকতা থেকেই যায়। তবে একটা বিষয়ে সতর্ক থাকুন, সন্তানের সব কথায় সায় দেবেন না। তারা যেন আপনাকে যথেষ্ট গুরুত্ব দেয় সে ব্যাপারে খেয়াল রাখুন।

Bangla Newspaper, Bengali News Paper, Bangla News, Bangladesh News, Latest News of Bangladesh, All Bangla News, Bangladesh News 24, Bangladesh Online Newspaper
উপরে