logo

বিশ্বে প্রথম মানব জিন পরিবর্তনের অনুমতি যুক্তরাজ্যে

বিশ্বে প্রথম মানব জিন পরিবর্তনের অনুমতি যুক্তরাজ্যে

ওয়াশিংটন, ০১ ফেব্রুয়ারি- মানুষের দেহের জিন নিয়ে অনেকদিন ধরেই গবেষণা করে আসছেন পশ্চিমা বিজ্ঞানীরা। তবে জিনগত পরিবর্তনের ব্যাপারে তাদের উপর আরপিত ছিল নিষেধাজ্ঞা। অনেকেই বিশেষজ্ঞই মনে করেছেন, মানদ দেহের জিন পরিবর্তন করার ফলে অপরিবর্তনীয় ক্ষতি হয়ে যেতে পারে মানব জাতির। কিন্তু যুক্তরাজ্যের বিজ্ঞানীরা অবশেষে মানব ভ্রুনের জিন পরিবর্তনের অনুমতি পেয়েছেন। 

বিশ্বের ইতিহাসে যুক্তরাজ্যই হবে প্রথম দেশে যারা মানব ভ্রুনের ডিএনএ পরিবর্তন করার কৌশল প্রয়োগের অনুমতি দিল। এই গবেষণা চালানো হবে লন্ডনের ক্রিক ইন্সটিটিউশনে। গবেষকদের উদ্দেশ থাকবে, প্রথম দিককার মানুষদের সম্বন্ধে ভালো করে জ্ঞান আহরণ করা। তবে এই পরিবর্তিত ভ্রূণ কোনো নারীর গর্ভে স্থাপন করাটা বিজ্ঞানীদের জন্য অবৈধ বলে গণ্য হবে।

ডিএনএ ধরা হয় জীবনের ব্লুপ্রিন্ট বা মূল নকশা হিসেবে। যে কারণে জিনগত পরিবর্তন নিয়ে বহুদিন ধরে চলে আসছে বিতর্ক। যদি এই পরিবর্তন মারাত্মক কোনো পরিণতি বয়ে আনে তাহলে সেটা হবে সত্যিই অপূরণীয়।