logo

'ছবি থাকলেই কি স্বামী হয়?'

মাকসুদুল হক ইমু


'ছবি থাকলেই কি স্বামী হয়?'

ঢাকা, ০১ ফেব্রুয়ারী- কোনো না কোনো কারণে সব সময়ই আলোচনায় নায়িকা পরীমনির। এবার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঝড় তুলেছে পরীমনি হয়ে ওঠার আগের তার কিছু ছবি।

৩১ জানুয়ারি ফেইসবুকে পরীমনির কিছু ছবি পোস্ট করে একটি স্ট্যাটাস দেয়া হয় অনিক আব্রাহাম নামধারী এক অ্যাকাউন্ট থেকে। এর মধ্যে দুটি ছবিতে পরীমনিকে এক যুবকের সঙ্গে দেখা যায়। সেই সঙ্গে ছিল বেশ কয়েকটি একক ছবিও। ছবি দেখে স্পষ্ট বোঝা করা যায় সেগুলো বেশ পুরোনো। অনিক আব্রাহাম স্ট্যাটাসে লেখেন, ''আমার বন্ধু ইসমাইল আর তার স্ত্রী স্মৃতিমনি যে আজ বাংলা চলচ্চিত্রের আলোচিত নায়িকা পরীমনি। এক সময় ভোলা সদরেই থাকতো তার জামাই বাড়িতে। তারপর তার নেশা গেলো অর্থ আর লোভ লালসার দিকে, যার জন্য আমার সহজ সরল বন্ধুকে ত্যাগ করতে দ্বিধাবোধ করলো না। যাই হোক ছবিগুলো দেখে পুরনো দিনের কথা মনে পড়ে গেল তাই সবার সাথে একটু শেয়ার করলাম।''


পরীমনির ফেসবুক ও অনিক আব্রাহাম এর ফেসবুকের পোষ্ট থেকে

ফেইসবুকে পোস্টটি দেয়ার আধা ঘণ্টার মধ্যেই তিন হাজার বারেরও বেশি শেয়ার করা হয়। বিকেল ৫ টার দিকে নিজের ফেইসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে বিষয়টিকে ভিত্তিহীন দাবী করে একটি স্ট্যাটাস দেন পরীমনি। তিনি লেখেন,''এরকম ছবি আমার অনেকের সাথেই আছে,তার মানে কি তারা সবাই আমার জামাই? ছবিটিতে কি আমি বউ সেজে বাসর ঘরে বসে আছি ? নাকি ন্যাংটা হয়ে দাড়িয়ে আছি? এরকম নিউজ যারা করেছেন তাদের অনেকের সাথেও আছে। তুলনা করলে আরও ঘনিষ্ট ছবি আছে। তার মানে আপনারা সবগুলো আমার জামাই। যে বা যাহারা আমার ক্ষতি করবেন বলে এসব করছেন তাদেরকে বলছি,আমার ক্ষতি না বরং আপনারা আপনাদের মূল্যবান সময় নষ্ট করছেন।'' স্ট্যাটাসের শেষে পরীমনি সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন,''আসল সাংবাদিকদের উপর সম্মান রেখে বলছি আপনারা প্লিজ ভিত্তিহীন নিউজ করবেন না।''

এই বিষয়ে পরিমনির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, "আসলে যার সাথে আমার ছবিটি প্রকাশ করা হয়েছে, তিনি আমার কাজিন। তার স্ত্রী আছে। এ ধরনের খবর উনিও জানেন না। কেউ ইচ্ছে করেই আমার নামে এসব বদনাম ছড়াচ্ছে। তবে একটা কথা বলি, এ বিষয়টা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন ও মিথ্যা। আমার ইতোমধ্যেই ছয়টি সিনেমা মুক্তি পেয়েছে। আমাকে দর্শকরা অনেক ভালোবাসে। আর এই সময় এমন কোনো কিছু আমার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র ছাড়া কিছুই না।"

২৯ জানুয়ারি মুক্তি পেয়েছে পরীমনির নতুন সিনেমা 'পুড়ে যায় মন'। চিত্রনায়ক সাইমন সাদিকের বিপরীতে সিনেমাটি পরিচালনা করেছেন অপূর্ব রানা।