logo

এবার প্রশ্ন ফাঁস সম্ভব হবে না: শিক্ষামন্ত্রীর আশাবাদ

এবার প্রশ্ন ফাঁস সম্ভব হবে না: শিক্ষামন্ত্রীর আশাবাদ

ঢাকা, ০১ ফেব্রুয়ারী- আজ থেকে শুরু হওয়া এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেওয়ার কারণে এবার প্রশ্ন ফাঁস হবে না বলে আশা প্রকাশ করেছেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

সোমবার সকালে রাজধানীর তেজগাঁও সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার কেন্দ্র পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ কথা বলেন তিনি।

প্রশ্নফাঁস প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘কিছু সীমাবদ্ধতার কারণে আমরা সুপার টেকনোলজি ব্যবহার করতে পারছি না। তবে কিছু ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে, যা কাউকে বলব না। যাতে করে কেউ জানতে না পারে কোথায় কি হচ্ছে। অনেকগুলো প্রশ্ন করা হচ্ছে যেন কেউ বুঝতে না পারে কোনটা আসল প্রশ্ন। আমরা আশাবাদী এখন কারো দ্বারাই প্রশ্ন ফাঁস সম্ভব না।’

পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস সম্পর্কে তিনি আরো বলেন, ‘একবারই প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনা ঘটেছে। কিন্তু এক শ্রেণির অসাধু লোক আছে যারা মনে করে সবসময়ই প্রশ্ন ফাঁস হয়। কিছু সাজেশন থেকে যদি কিছু কমন পড়ে তাহলে সেই অসাধু চক্র প্রশ্ন বলে টাকা হাতিয়ে নেয়। দয়া করে কোনো অভিভাবক শিক্ষার্থীরা এসব গুজবে কান দিবেন না। তাহলে শিক্ষার্থীরাই বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়।’

মন্ত্রী বলেন, ‘অনেকে বলেন আমরা শিক্ষকদেরকে বেশি নম্বর দিতে বলি। আমরা আগেও শিক্ষকদেরকে প্রাপ্য নম্বরটুকু দিতে বলেছি। এবার পাবলিকলি বলছি শিক্ষার্থীদের যার যা পাওনা সেই নম্বরটুকুই দিন আপনারা। এর ব্যতিক্রম হলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

পরীক্ষার কেন্দ্র পরিদর্শনে আসলে শিক্ষার্থীদের সমস্যা হয়- এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এবার শুধুমাত্র মন্ত্রী এবং সচিব পরীক্ষা কেন্দ্রে প্রবেশ করেছে। বাকি সবাই বাইরে ছিলেন। কোনো ধরনের ডিসটার্ব হয়নি। পরীক্ষার হল পরিদর্শন একটা রেওয়াজ, আমরা আসলে শিক্ষার্থী ও অবিভাবকরা খুশি হন, তাই আসা।’

এবারের পরীক্ষায় শুরুতে এমসিকিউ আগে নেওয়ার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘কিছু অসৎ শিক্ষক আছেন যারা বাইরে থেকে এমসিকিউ উত্তরগুলো পূরণ করে দেন। এখন শুরুতে এ পরীক্ষাটা নেওয়ায় আর এ সুযোগ নেই।’

এ বছর এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় ১৬ লাখ ৫১ হাজার ৫২৩ শিক্ষার্থী অংশ নিচ্ছে। এর মধ্যে ৮ লাখ ৪২ হাজার ৯৩৩ ছাত্র ও ৮ লাখ ৮ হাজার ৫৯০ ছাত্রী। যা গতবারের চেয়ে দেড় লাখেরও বেশি। এবছর ছেলেদের তুলনায় মেয়ে পরীক্ষার্থীর সংখ্যাও বেড়েছে। এবার দেশে ৩ হাজার ১৪৩টি কেন্দ্রে এবং দেশের বাইরে ৮টি কেন্দ্রে এসএসসি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হচ্ছে।