logo

জেল খাটা ভক্তের পাশে কোহলি!

জেল খাটা ভক্তের পাশে কোহলি!

ইসলামাবাদ, ৩১ জানুয়ারি- ভারতের পতাকা উড়ানোর দায়ে বিরাট কোহলির সেই পাকিস্তানি সমর্থক উমর দারাজের ১০ বছরের জেল হতে পারে। মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) তাকে গ্রেফতার করা হয়। তবে এ ঘটনায় এখন শুরু হয়েছে নানা বিতর্ক। এবার উমর দারাজ নামের সেই সমর্থককে জেল থেকে মুক্ত করতে এগিয়ে আসছে কোহলির পরিবার।

উমর দারাজকে মুক্ত করার প্রসঙ্গে কোহলির ভাই বিকাশ কোহলি বলেন, ‘হ্যা, আমরা এই ঘটনা শুনেছি। আর সেই ভক্তের জন্য দুঃখ জানাচ্ছি। আমরা তাকে মুক্ত করার ব্যাপারে পাকিস্তান সরকারের বরাবর আবেদন করবো। এই মুহূর্তে আমরা পারিবারিক একটি ‍অনুষ্ঠানে রয়েছি। তাই এখনই সিদ্ধান্ত নিতে পারছি না। তবে অবশ্যই এ ব্যাপারে আমরা কোহলির সঙ্গে আলোচনা করবো।’

এরআগে পাঞ্জাব প্রদেশে থাকা ২২ বছর বয়সী উমর দারাজ নামের সেই সমর্থকের বড় অপরাধ ছিল ভারতীয় পতাকা উত্তোলন করে কোহলির সমর্থন জানানো। পেশায় দর্জি এই তরুণের বিপক্ষে দেশটির দণ্ডবিধির ১২৩-ক ধারায় মামলা করা হয়। দেশের সার্বভৌমত্বের ক্ষতি করে এমন অপরাধে তাকে ১০ বছরের জেল দেওয়া হতে পারে।


উমর দারাজ।

লাহোর থেকে ২০০ কিলোমিটার দূরে পাঞ্জাবের ওকারা জেলায় বাস করেন দারাজ। মঙ্গলবার (২৬ জানুয়ারি) ভারতের প্রজাতান্ত্রিক দিবসে এমন অপরাধ করায় দারাজকে গ্রেফতার করে পাকিস্তানি পুলিশ। এ ব্যাপারে মুহাম্মদ জামিল নামের এক পাকিস্তানি পুলিশ জানান, আমরা উমর দারাজের বাসায় যাই। আর তার ছাদে ভারতীয় পতাকা দেখতে পাই। জামিল আরও জানান, আমরা দারাজকে গ্রেফতার করি এবং তার বিরুদ্ধে পাবলিক অর্ডার রক্ষণাবেক্ষণের ধারায় মামলা করি। একই দিন তাকে কোর্টে ও পুলিশ হাজতে নেওয়া হয়।

এদিকে কোহলির সমর্থক দারাজ জানান, ‘আমি কোহলির ভক্ত। আমি ভারতীয় দলকে সমর্থন করি শুধুমাত্র কোহলির জন্য। আর আমার ছাদের ওপর ভারতীয় পতাকা উড়িয়েছি শুধুমাত্র সেখানের ক্রিকেটারদের প্রতি ভালোবাসা থেকে। ভারতীয় পতাকা উড়ালে যে অপরাধ হবে এটি জানতাম না। আমি শুধুই একজন ভারতীয় সমর্থক, কোনো গোয়েন্দা নই।

পাকিস্তানি পুলিশ দারাজের ঘর থেকে ভারতীয় পতাকা ছাড়াও তার দেওয়ালে বেশ কয়েকটি কোহলির পোস্টার জব্দ করে। ভারতীয় প্রজাতান্ত্রিক দিবসে অস্ট্রেলিয়া ও ভারতের টি-টোয়েন্টি ম্যাচ চলাকালীন এমন ঘটনা ঘটে।