logo

কলম্বিয়ায় ‍জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত ২০ হাজার

কলম্বিয়ায় ‍জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত ২০ হাজার

বোগোতা, ৩১ জানুয়ারি- দক্ষিণ আমেরিকার দেশ কলম্বিয়ায় কমপক্ষে ২০ হাজার মানুষ জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে কমপক্ষে ২ হাজার ১শ ১৬ জনই গর্ভবতী নারী।

দেশটির জাতীয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর শনিবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, তাদের কাছে জিকা ভাইরাসে আক্রান্তের কেস অন্তর্ভূক্ত হয়েছে প্রায় ২০ হাজার ২শ ৯৭টি। আর এই সংখ্যার কারণে ব্রাজিলের পর জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত দেশগুলোর মধ্যে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে কলম্বিয়া।

জিকা ভাইরাস ‘বিস্ফোরক’য়ের মত ছড়িয়ে পড়ছে এবং আমেরিকায় এ বছর ৩০ থেকে ৪০ লাখ মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হবে বলে সতর্ক করে দিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।

মশার মাধ্যমে ছড়াচ্ছে জিকা ভাইরাস। আর এই রোগের উপসর্গও খুব একটা বোঝা যায় না। তাই আগে থেকে সতর্ক হওয়ার কোনো উপায় নেই।এই ভাইরাসের কারণে মাইক্রোসেফেলি রোগ হয়। এতে সদ্য জন্ম নেয়া শিশুর মাথা স্বাভাবিকের তুলনায় অনেক ছোট হয়। এই রোগের কারণে স্থায়ীভাবে শিশুর মেধা ও বুদ্ধি বিকাশ ব্যাহত হতে পারে। তবে চিন্তার বিষয় হচ্ছে এ রোগের প্রতিষেধক তৈরি করতে আরো ১০ বছরের মত সময় লাগবে। আর এই রোগের কারণে সবচেয়ে ঝুঁকির মুখে রয়েছে সদ্য জন্ম নেয়া শিশুরা। তাই সম্প্রতি দেশের আদালতের কাছে গর্ভপাতের অনুমতি চাইছেন সন্তান সম্ভবা নারীরা। 

ব্রাজিলে এ পর্যন্ত ১৫ লাখ মানুষ জিকা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। গত বছর থেকেই দেশটিতে জিকা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে। গত বছর জিকা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের পরে মাইক্রোসিফেলি রোগে আক্রান্ত হয়েছে ৩ হাজার ৭শ ১৮ জন। এর আগের বছর এই সংখ্যা ছিল মাত্র ১শ ৬৩।

কলম্বিয়ার জাতীয় স্বাস্থ্য সংস্থা জানিয়েছে, ১ হাজার ৫০ টি কেস ল্যাবরেটরিতে পরীক্ষা করা হয়েছে এবং ১৭ হাজার ১শ ১৫টি কেস বিভিন্ন ক্লিনিকে পরীক্ষা করা হয়েছে। আর ২ হাজার ১শ ৩২টি কেস সন্দেহের তালিকায় রয়েছে। সেগুলো সম্পর্কে এখনও নিশ্চিত তথ্য পাওয়া যায়নি।

তবে এই ভাইরাসে নারীরাই বেশি আক্রান্ত হচ্ছে। দেশটির প্রায় ৬৩ দশমিক ৬ ভাগ নারী এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে।