logo

কিবরিয়া হত্যামামলা নিয়ে সিদ্ধান্ত শিগগির: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

কিবরিয়া হত্যামামলা নিয়ে সিদ্ধান্ত শিগগির: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

হবিগঞ্জ, ২৯ জানুয়ারী- সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যা মামলার থেমে যাওয়া কার্যক্রম আবার চালুর বিষয়ে শিগগিরই সিদ্ধান্ত আসছে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।

শুক্রবার বিকালে হবিগঞ্জে এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “কিবরিয়া হত্যা মামলার বিচারকাজ স্থগিত হয়নি। দ্রুত বিচার ট্রাইবুন্যালের নির্ধারিত সময় শেষ হওয়ায় এখন কার্যক্রম চলছে না। দুই-এক দিনের মাঝে জানা যাবে কোথায় বিচার কাজ চলবে।”

দ্রুততম সময়ে কিবরিয়া হত্যা মামলার বিচারকাজ শেষ হবে বলেও জানান তিনি।

গত বছরের ১১ জানুয়ারি হবিগঞ্জ জেলা দায়রা জজ আদালতে থেকে কিবরিয়া হত্যা মামলাটি সিলেট দ্রুত বিচার ট্রাইবুন্যালে যায়। নিয়ম অনুয়ায়ী, দ্রুত বিচার ট্রাইবুন্যালে ১৩৫ কার্যদিবস শেষ হয়ে গেলে মামলার কার্যক্রম থেমে যায়।

এবিষয়ে ট্রাইবুন্যালের বিশেষ পিপি কিশোর কুমার কর বলেন, গত ২০ ডিসেম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইবুন্যালে কিররিয়া হত্যামামলার ১৩৫ কার্যদিবস শেষ হয়।

“মামলাটি দ্রুত বিচার ট্রাইবুন্যালে চালাতে হলে নতুন করে সময় বাড়ানোর প্রয়োজন। তাই গত ২৪ ডিসেম্বর ট্রাইবুন্যালের পক্ষ থেকে সময় বাড়ানোর আবেদন জানানো হয়েছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে।”

এ বিষয়ে মন্ত্রণালয় থেকে এখনও কোনো আদেশ দেওয়া হয়নি বলে জানান তিনি।

এ মামলার ১৭১ সাক্ষীর মধ্যে ১৩ জনের সাক্ষী নেওয়া হয়েছে। গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বর এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়।

২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জের বৈদ্যের বাজারে জনসভায় গ্রেনেড হামলায় আওয়ামী লীগ নেতা শাহ এএমএস কিবরিয়াসহ পাঁচজন নিহত হন। ১৯৯৬-২০০১ মেয়াদে আওয়ামী লীগ সরকারের সময় অর্থমন্ত্রী ছিলেন কিবরিয়া।

হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মজিদ খান ওই রাতেই হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে দুটি মামলা দায়ের করেন।

তিন দফা তদন্তের পর এ মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সিআইডির সিলেট অঞ্চলের সহকারী পুলিশ সুপার মেহেরুন নেছা পারুল ২০১৪ সালের ২১ ডিসেম্বর ৩২ জনের বিরুদ্ধে সম্পূরক অভিযোগপত্র দেন।

হবিগঞ্জের জেলা ও দায়রা জজ মো. আতাবুল্লাহ মামলাটি বিচারের জন্য গত ১১ জুন সিলেট দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে পাঠিয়ে দেন।